বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ইস্টবেঙ্গলের ৫০ বছর আগের ডাগ আউট পাল্টে গেল, পর্যবেক্ষণ করলেন প্রাক্তনরা
নতুন ডাগআউটের উদ্বোধনে ইস্টবেঙ্গল মাঠে প্রাক্তনরা।
নতুন ডাগআউটের উদ্বোধনে ইস্টবেঙ্গল মাঠে প্রাক্তনরা।

ইস্টবেঙ্গলের ৫০ বছর আগের ডাগ আউট পাল্টে গেল, পর্যবেক্ষণ করলেন প্রাক্তনরা

  • মঙ্গলবার ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের নতুন ডাগআউট দেখতে হাজির ছিলেন একাধিক প্রাক্তন ফুটবলার। উপস্থিত ছিলেন অ্যালভিটো ডি'কুনহা, রহিম নবি, মিহির বসু, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, বিকাশ পাঁজি, সুমিত মুখোপাধ্যায়, মেহতাব হোসেনরা।

পুরনোর বদলে অধুনিকতার ছোঁয়া ইস্টবেঙ্গল মাঠে। ৫০ বছর আগের যে ডাগ আউটের সঙ্গে জড়িয়ে ছিল কতশত ঐতিহ্য এবং ইতিহাস, সেই ডাগ আউটই এ বার বদলে গেল। ৫০ বছরের ডাগ আউট একেবারে আধুনিক করে ফেলল ইস্টবেঙ্গল ক্লাব। দুই দল এবং ম্যাচ কমিশনার ও রেফারিদের জন্য যে ডাগ আউট ছিল, সবটাই বদলে গেল।

মঙ্গলবার ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের নতুন ডাগআউট দেখতে হাজির ছিলেন একাধিক প্রাক্তন ফুটবলার। উপস্থিত ছিলেন অ্যালভিটো ডি'কুনহা, রহিম নবি, মিহির বসু, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, বিকাশ পাঁজি, সুমিত মুখোপাধ্যায়, মেহতাব হোসেনরা। তবে এই ডাগ আউটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন এখনও হয়নি। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই হবে উদ্বোধন, এমনটাই জানা গিয়েছে ক্লাবের তরফ থেকে।

শুধু ডাগ আউট নয়, আরও বেশ কিছু ক্ষেত্রে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগতে চলেছে ইস্টবেঙ্গলে। তবে লাল-হলুদ ক্লাবে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগলেও দল রয়েছে একেবারে অন্ধকারে। আইএসএল-এর লাস্টবয় তারা। ১৩ ম্যাচের মধ্যে ৬টি ম্যাচই তারা হেরে বসে রয়েছে। ৬ ম্যাচ ড্র করেছে। আর বাকি ১টি ম্যাচে তারা জিতেছে। তাদের পয়েন্ট ৯। হায়দরাবাদ এফসি-র বিরুদ্ধে ৪ গোল খেয়ে ২৯ জানুয়ারি ফিরতি ডার্বির আগে বেশ চাপেই রয়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড।

বন্ধ করুন