বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ডার্বি পিছোতে ফেডারেশনের কাছে চিঠি পাঠাল ইস্টবেঙ্গল

ডার্বি পিছোতে ফেডারেশনের কাছে চিঠি পাঠাল ইস্টবেঙ্গল

ইস্টবেঙ্গলের যুব দল।

৪ তারিখ আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশন লিগে যাত্রা শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল। এ দিকে আবার এ দিকে ৭ তারিখই রয়েছে ডেভলপমেন্ট লিগের ডার্বি। আর এতেই সমস্যায় পড়েছে লাল-হলুদ। কারণ রিজার্ভ টিমের জেসিন টিকে, অতুল উন্নিকৃষ্ণন, তুহিন দাস, আদিত্য পাত্ররা যুব লিগেও খেলেন।

ডেভলপমেন্ট লিগের ডার্বি পিছিয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে ফেডারেশনকে চিঠি দিল ইস্টবেঙ্গল। আসলে ৪ তারিখ আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশন লিগে যাত্রা শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল। প্রথম ম্যাচে লাল-হলুদের সামনে শিলং লাজং এফসি। লাজংয়ের বিরুদ্ধে নিজেদের মাঠে খেলার কথা থাকলেও, ম্যাচের স্থান পরিবর্তন হয়। নৈহাটিতে লাজংয়ের বিরুদ্ধে আই লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের ম্যাচে নামবে ইস্টবেঙ্গল। এ দিকে আবার এ দিকে ৭ তারিখই রয়েছে ডেভলপমেন্ট লিগের ডার্বি। আর এতেই সমস্যায় পড়েছে লাল-হলুদ।

রিজার্ভ টিমের জেসিন টিকে, অতুল উন্নিকৃষ্ণন, তুহিন দাস, আদিত্য পাত্ররা যুব লিগেও খেলেন। তাই ফেডারেশনের কাছে বড় ম্যাচ পিছনোর আবেদন জানিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। সিনিয়র দলের পারফরম্যান্স অত্যন্ত হাতাশাজনক হলেও, লাল-হলুদের যুব দল সম্মান রক্ষা করছে ক্লাবের। পূর্বাঞ্চল পর্যায়ে বেশ ভালো পারফর্ম করেছে বিনো জর্জের দল। যুব লিগে ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চান তুহিন দাস, জেসিন টিকেরা। যে কারণে ডেভলপমেন্ট লিগের ডার্বি পিছানোর আবেদন করেছে লাল-হলুদ।

আরও পড়ুন: পুরো ম্যাচ না খেলায় ৪ কোটি জরিমানা কেরালা ব্লাস্টার্সকে, ১০ ম্যাচ নির্বাসিত কোচ

এই ডেভলপমেন্ট লিগে এখনও পর্যন্ত কঠিন ম্যাচ বাকি ইস্টবেঙ্গলের। বিনো জর্জের অধীনে জোরকদমে অনুশীলন করছেন ফুটবলাররা। একই সঙ্গে রয়েছে আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনের ম্যাচও। ইস্টবেঙ্গলের রিজার্ভ দল এই দ্বিতীয় ডিভিশন লিগে খেলবে। সেই রিজার্ভ দলের অনেকেই আবার খেলেন যুব লিগে। দুটো লিগে ধারাবাহিক ভাবে ভালো পারফর্ম করার লক্ষ্যেই এগোচ্ছে ইস্টবেঙ্গল। সেই মতোই অনুশীলনে নিয়মিত গা ঘামাচ্ছেন লাল-হলুদের ফুটবলাররা।

আরও পড়ুন: ফুটবল ছেড়ে RCB-তে যোগ সুনীল ছেত্রীর, ডাইভ দিয়ে ক্যাচ ধরে চমকে দেন সকলকে- ভিডিয়ো

আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনে ভালো ফল করার পাশাপাশি ডেভলপমেন্ট লিগে ভালো পারফর্ম করতে পারলে ‘নেক্সট জেন’ কাপে পারফর্ম করার সুযোগ থাকবে। গত বছর বেঙ্গালুরু এফসি আর কেরালা ব্লাস্টার্স এই টুর্নামেন্টে খেলেছিল। রিজিওনাল কোয়ালিফায়ারের পর জাতীয় গ্রুপ পর্ব আর জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে খেলার সুযোগ থাকছে। সেখানে প্রথম দুইয়ে শেষ করতে পারলেই নেক্সট জেন কাপে খেলার সুযোগ পাবে লাল-হলুদ।

লাল-হলুদে ভিআইপি বক্স: নিজেদের মাঠে ভিআইপি বক্স বানাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল। প্রেস বক্সের পাশেই তৈরি করা হচ্ছে ভিআইপি বক্স। ম্যাচ দেখতে আসা বিশেষ ব্যক্তিরা লিফ্টের মাধ্যমে ভিআইপি বক্সে যেতে পারবেন। আশা করা হচ্ছে, কলকাতা লিগের আগেই বক্স বানানোর কাজ শেষ হয়ে যাবে।

বন্ধ করুন