বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে চুক্তি করেই ভালো দল গঠনের প্রতিশ্রুতি ইমামির, তবে প্লেয়ার কোথায়?
ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হল ইমামির।

ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে চুক্তি করেই ভালো দল গঠনের প্রতিশ্রুতি ইমামির, তবে প্লেয়ার কোথায়?

  • নতুন কোম্পানিতে ইনভেস্টরের শেয়ার থাকবে ৭৭ শতাংশ এবং ক্লাবের হাতে থাকবে ২৩ শতাংশ শেয়ার। ১০ জন ডিরেক্টরের অনুপাত হবে ৭:৩। ক্লাব আসন্ন ডুরান্ড কাপ এবং কলকাতা লিগে খেলবে ইমামি ইস্টবেঙ্গল নামেই। যার নতুন লোগোও এ দিন উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে। 

ইস্টবেঙ্গল দিবসে বড় ঘোষণা করে স্বস্তি দিয়েছিলেন বিনিয়োগকারী সংস্থা ইমামির কর্তারা। তাঁরা জানিয়ে দিয়েছিলেন, আইএসএলে ইস্টবেঙ্গল নামেই খেলবে লালল-হলুদ। আর তার পর দিনই ইমামি আর ইস্টবেঙ্গলের চুক্তি সই হয়ে গেল। আনুষ্ঠানিক ভাবে পথ চলা শুরু করল ইস্টবেঙ্গল আর ইমামি।

কলকাতার পাঁচতারা হোটেলে বিনিয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে চুক্তিতে সই হয় ইস্টবেঙ্গলের। লাল-হলুদের তরফে হাজির ছিলেন ক্লাব সচিব কল্যাণ মজুমদার, শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার। প্রেসিডেন্ট, সহ সচিব, ফুটবল সচিব বিদেশে আছেন। অনুষ্ঠান উপস্থিত ছিলেন ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন ফুটবলাররাও। ইমামি গ্রুপের কর্তা আদিত্য আগরওয়াল, মণীশ গোয়েঙ্কা, সন্দীপ আগরওয়ালরা উপস্থিত ছিলেন এই অনুষ্ঠানে।

নতুন কোম্পানিতে ইনভেস্টরের শেয়ার থাকবে ৭৭ শতাংশ এবং ক্লাবের হাতে থাকবে ২৩ শতাংশ শেয়ার। ১০ জন ডিরেক্টরের অনুপাত হবে ৭:৩। ক্লাব আসন্ন ডুরান্ড কাপ এবং কলকাতা লিগে খেলবে ইমামি ইস্টবেঙ্গল নামেই। যার নতুন লোগোও এ দিন উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে। তবে আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের শুধু ইস্টবেঙ্গল এফসি নামে খেলার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও এ দিন ঠিক কত দিনের চুক্তি হয়েছে, সেটা স্পষ্ট হয়নি।

আরও পড়ুন: আইডেন্টি ক্রাইসিস করি না! ATK MB-কে ঠুকে ইমামি বলল, ইস্টবেঙ্গল নামেই খেলবে দল

ইমামি গ্রুপের অন্যতম ডিরেক্টর আদিত্য আগরওয়াল বলেন ‘স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনকে কোচ হিসেবে নিয়োগ করেছি। ভারতীয় প্লেয়ারদের ভালো করে চেনেন। অনেক ভালো চয়েস। কয়েক দিনের মধ্যেই ভারতে চলে আসবে। আগামী দিনে আরও কয়েক জন ভালো ফুটবলার নিয়োগ করা হব। আজ আমরা ইনভেস্টর হিসেবে এসেছি। স্পনসর হিসেবে নয়। তাই ক্লাবের প্রতি দায়বদ্ধতা বেশি। ইমামিকে ইস্টবেঙ্গলের দরকার, ইস্টবেঙ্গলেরও ইমামিকে দরকার। আমরা একে অপরকে সমর্থন করব। দায়িত্ব ভালো ভাবে পালন করব। খারাপ সময়ও একে অপরের সঙ্গে থাকব। এই পজিটিভ এনার্জি থাকলে ভালো খেলা হবে।’

আরও পড়ুন: ফের ইস্টবেঙ্গলে ফিরতে চলেছেন সুহের, অমরিন্দর কি এ বার লাল-হলুদে নাম লেখাচ্ছেন?

অপর ডিরেক্টর মণীশ গোয়েঙ্কা, ‘অনেক সম্মানের আমাদের কাছে যে যুক্ত হতে পেরেছি ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে। আমরা জানি কিভাবে একসঙ্গে চলতে। বন্ডিংই আমাদের শক্তি। আমার বাবা, আগারওয়াল আঙ্কল দীর্ঘদিনের বন্ধু। আমরা জানি কি ভাবে একসঙ্গে পথ চলতে হয়। আমাদের তরফ থেকে সব রকম সহযোগিতা করা হবে। আমরা ভালো দল গড়ব। সমর্থকদের বলব, খারাপ সময় পাশে দাঁড়াবেন।’

আপাতত ট্রান্সফার উইন্ডোর একদম শেষ দিকে কোমর বেঁধে নেমেছে লাল হলুদ ব্রিগেড। কোচ স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন কবে আসবেন এখনও পরিষ্কার নয়। তবে, সহকারী কোচ হিসেবে ইস্টবেঙ্গলে পা রেখেছেন বিনো জর্জ। গত বারের মত কোনও রকমে দল গড়া নয়। বরং ইস্টবেঙ্গলের নজরে থাকা ফুটবলাররা প্রত্যেকেই সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলার অভিজ্ঞতা নিয়ে আসছেন কলকাতায়। এমনটাই দাবি লাল-হলুদের। প্রসঙ্গত, ভিপি সুহের, অমরিন্দর সিং, অনিকেত যাদবকে সম্ভবত কিছুদিনের মধ্যে সই করাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল।

বন্ধ করুন