বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > EPL 2020-21: ম্যান সিটির ফাইভ স্টার পারফরম্যান্সে মিকেল আর্টেটাকে কোচিং পাঠ পড়ালেন পেপ গুয়ার্দিওলা
গোলের পর উচ্ছ্বসিত ম্যাঞ্চেস্টার সিটি ফুটবলাররা। ছবি- টুইটার (@ManCity)।
গোলের পর উচ্ছ্বসিত ম্যাঞ্চেস্টার সিটি ফুটবলাররা। ছবি- টুইটার (@ManCity)।

EPL 2020-21: ম্যান সিটির ফাইভ স্টার পারফরম্যান্সে মিকেল আর্টেটাকে কোচিং পাঠ পড়ালেন পেপ গুয়ার্দিওলা

  • তিন ম্যাচের পর লিগ তালিকায় সবার নীচে আর্সেনাল।

প্রিমিয়র লিগ মরশুমের প্রথম দুই ম্যাচে পরাজয়ের পর ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির ঘরের মাঠে লড়াইটা প্রথম থেকেই কঠিন ছিল আর্সেনালের। দুঃস্বপনের এক বিকালে গানার্সদের ৫-০ পরাস্ত করে সিটি প্রমাণ করল কেন তারা বর্তমান ইউরোপের মতান্তরে সেরা দল।

এদিন ম্যাচে নিজের পরিকল্পনা বদলে পাঁচ জনের ডিফেন্স নিয়ে মাঠে নামেন মিকেল আর্টেটা। দলে ফেরেন সিড কোলাসিন্যাচ। ম্যাচের শুরুটাও কিন্তু ভালই করেছিল আর্সেনাল। তবে প্রথম পাঁচ মিনিটের পরই নিভে যায় তাদের আশার আলো। সিটির হয়ে ম্যাচে দলের অধিনায়ক ইলকাই গুন্দোয়ান সাত মিনিটে প্রথম গোলটি করেন। ১২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন ফেরান তোরেস। 

এমনিতেই ম্যাচের রাশ ছিল সিটির দখলে, উপরন্তু গ্রানিট জাকা ৩৫ মিনিটে জাও ক্যান্সেলোকে জঘন্য ট্যাকেল করার পর মুশকিল আরও বেড়ে যায় উত্তর লন্ডনের ক্লাবের। প্রথমার্ধের বিরতির আগেই জ্যাক গ্রিলিশের পাস থেকে সিটির তিন নম্বর গোলটি করেন গ্যাব্রিয়াল জেসুস। 

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ৫৩ মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ান রড্রি। ভাগ্য বদলের আশায় ৫৯ মিনিটে পিয়ের এমরিক-অবামেয়াংয়ের বদলে আলেকজান্ডার লাকাজেটকে মাঠে নামেন আর্সেনাল ম্যানেজার। তবে গোলশোধ তো দূর, বরং ৮৪ মিনিটে তোরেসের দ্বিতীয় গোলে ম্যাচের ফলাফল হয় ৫-০।

গানার্স গোলরক্ষক বার্নড লেনো না থাকলেও ম্যাচের ব্যবধান আরও লজ্জাজনক হতেই পারত আর্সেনালের জন্য। ইনজুরি টাইমেও একটি বিশ্বমানের সেভ করে দলকে হাফ ডজন গোল খাওয়ার হাত থেকে বাঁচান জার্মান গোলরক্ষক। 

হ্যারি কেন, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোরা সিটির জার্সি পরে খেলুক আর নাই খেলুক, প্রাক্তন সহকারী আর্টেটার দলকে গোলের মালা পড়িয়ে ফের একবার প্রিমিয়র লিগ জয়ের সিটিই যে সেরা দাবিদার, তা প্রমাণ করলেন পেপ গুয়ার্দিওলা। এই ম্যাচের পর প্রিমিয়র লিগ তালিকায় প্রথমবার সবার নীচে আর্সেনাল। তিন ম্যাচে নটি গোল খাওয়ার পাশপাশি এখনও অবধি একবারও বল প্রতিপক্ষের জালে জড়াতে পারেনি আর্টেটার দল।

পরের সপ্তাহে আন্তর্জাতিক ফুটবল বিরতি থাকায় এই পরাজয় বহুদিন বিঁধবে আর্সেনাল সমর্থকদের। গানার্সরা আশা করবে গ্যাব্রিয়েল, থমাস পার্টেরা যেন এর মধ্যেই ফিট হয়ে ওঠেন। আর্সেনালের পরবর্তী প্রতিপক্ষ নরউইচ। তবে সেই ম্যাচে আর্টেটাকে ডাগ আউটে আদৌ দেখা যাবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ যথেষ্ট রয়েছে। অপরদিকে, ম্যান সিটির পরের প্রতিপক্ষ জেইমি ভার্দির লেস্টার সিটি।

বন্ধ করুন