বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > EPL 2021-22: সনের জাদুতে ভন্ডুল গ্রিলিশের অভিষেক, মরশুমের প্রথম ম্যাচেই হার ম্যান সিটির
সিটির বিরুদ্ধে দুরন্ত গোল সন হিউং-মিনের। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

EPL 2021-22: সনের জাদুতে ভন্ডুল গ্রিলিশের অভিষেক, মরশুমের প্রথম ম্যাচেই হার ম্যান সিটির

  • ম্যাচে স্পার্স জার্সি গায়ে দেখা মেলেনি ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেনের।

মরশুমের প্রথম ম্যাচের আগে দুই দল দুই সম্পূর্ণ ভিন্ন মেরুতে বিচরণ করছিল। একদিকে জ্যাক গ্রিলিশের আগমনের পর হ্যারি কেনের সম্ভাব্য আগমনে নতুন উদ্যমে আবারও প্রিমিয়র লিগ খেতাব নিজেদের নামে করতে মরশুমের শুরুটা ভাল করতে আগ্রহী ছিল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি, তো অপরদিকে হ্যারি কেন ছাড়াও দল জিততে, তা প্রমাণ করার লক্ষ্যে মরিয়া ছিল টটেনহ্যাম হটস্পার।

প্রিমিয়র লিগের প্রথম সপ্তাহের শেষ ও সবচেয়ে বড় ব্লকবাস্টারে শেষ হাসিটা হাসল স্পার্সই, সৌজন্যে সন হিউং-মিন। স্পার্সের হয়ে নিজের প্রথম ম্যাচেই বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছিলেন নুনো এস্পিরিতো স্যান্টো। তবে পরের ৯০ মিনিটে স্রেফ গোটা দলের একত্রিত লড়াই ও অদম্য ইচ্ছাশক্তির ওপর ভর করেই ইংলিশ ফুটবলে প্রথমবার মরশুমের প্রথম ম্যাচেই পেপ গুয়ার্দিওলার দলকে পরাজিত করল স্পার্স। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন দক্ষিণ কোরিয়ার তারকা ফুটবলার সন হিউং-মিন।

পুরোপুরি ফিট না হওয়ায় সিটির হয়ে কেভিন ডি ব্রুইন ম্যাচের শুরু না করলেও প্রথম এগারোয় জায়গা করে নিয়েছিলেন রেকর্ড ইংলিশ ট্রান্সফার মূল্যের বিনিময়ে এই গ্রীষ্মে সিটিতে যোগ দেওয়া জ্যাক গ্রিলিশ। শুরুটাও স্বভাবচিত ছন্দেই করেছিল গুয়ার্দিওলার দল। ম্যাচের প্রথম ১৫ মিনিট প্রায় পায়ে বলই রাখতে পাইনি স্পার্স। তবে ধীরে ধীরে ম্যাচে ফিরে আসে উত্তর লন্ডনের দলটি। বল দখলের লড়াইয়ে সিটি এগিয়ে থাকলেও প্রতিআক্রমণে প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নদের বিদ্ধ করার লক্ষ্যে ছিল স্পার্স।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য শেষ হওয়ার পর প্রতিআক্রমণ থেকেই ৫৫ মিনিটে স্পার্সকে এগিয়ে দেন সন। এরপরে স্টিভেন বার্গওয়াইনের কাছে লিড দ্বিগুন করার সুবর্ণ সুযোগ থাকলেও তিনি গোল করতে ব্যর্থ হন। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচ জেতার আশায় আধাফিট ড্রি ব্রুইনকেও মাঠে নামাতে বাধ্য হন পেপ। তবে তাতেও গোলের মুখ খোলেনি। 

স্পার্সের হয়ে লুকাস মৌরা ও সন নিজের গতি ও দক্ষতার পরিচয় দিয়ে বারংবার সিটি ডিফেন্সকে চাপে ফেলেন। গ্রিলিশ ম্যাচ যত গড়ায় ততই যেন নিস্তেজ হয়ে পড়েন। তার জন্য অবশ্যে স্পার্সের দুই মিডফিল্ডার পিয়ের এমিল হোইবিয়ার ও অলিভার স্কিপের বিশাল কৃতিত্ব প্রাপ্য। অবশেষে স্পার্সের অদম্য লড়াইয়ের সামনে হার মানে সিটি। হ্যারি কেনের অনুপস্থিতিতেই চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে এক বিরাট গুরুত্বপূর্ণ জয় তুলে নেন নুনোর ছেলেরা। স্পার্স সমর্থকরা গোটা মরশুম জুড়েই তাদের প্রিয় দলের থেকে এমন ফুটবল দেখারই আশা করবেন। স্পার্স পরের ম্যাচে মুখোমুখি হবে নুনোর প্রাক্তন দল উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারারর্সের (উলভস), সিটির প্রতিপক্ষ নরউইচ।

বন্ধ করুন