বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > EURO 2020 Final: ১১০ কোটি টাকার মালিকের হাতে থাকবে ইউরো ফাইনালের বাঁশি
বিয়র্ন কুইপার্সের হাতে থাকবে ফাইনালে বাঁশি (ছবি:টুইটার) 
বিয়র্ন কুইপার্সের হাতে থাকবে ফাইনালে বাঁশি (ছবি:টুইটার) 

EURO 2020 Final: ১১০ কোটি টাকার মালিকের হাতে থাকবে ইউরো ফাইনালের বাঁশি

  • ফাইনাল ম্যাচের দায়িত্বে থাকবেন ৪৮ বছরের বিয়র্ন কুইপার্স।

ভারতীয় সময় আজ রাত ১২.৩০ ইউরো কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড এবং ইতালি। এই প্রথমবার ইউরোর ফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। যদিও সেমিফাইনালে তাদেরকে পেনাল্টি ‘উপহার’ দেওয়া নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক চলছে। সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। রেফারিকেও কাঠগোড়ায় তোলা হয়েছিল। তবে ফাইনালে যে সেই রকম কোনও ঘটনা ঘটবে তা অনেকেই আন্দাজ করছেন। কারণ ফাইনাল ম্যাচের দায়িত্বে থাকবেন ৪৮ বছরের বিয়র্ন কুইপার্স।

হ্যারি কেইনদের ঘরের মাঠ ওয়েম্বলিতে ইতালির বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন ডাচ রেফারি বিয়র্ন কুইপার্স। অনেক বড় বড় ম্যাচ পরিচালনার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এই রেফারির অন্য একটি বিশেষত্বও রয়েছে। বলা হচ্ছে, পৃথিবীর ধনীতম রেফারি হলেন এই কুপার্স। বলা যেতেই পারে কুপার্সের কাছে রয়েছে কুবেরের ধন। ২০১৮ সালে তাঁর কাছে ছিল আনুমানিক ১২.৪ মিলিয়ানের মালিক তিনি। ভারতীয় মূল্যে যা প্রায় ১১০ কোটি টাকা। 

পেশাদার রেফারিংয়ে ২০০২ সালে অভিষেক করেছিলেন ৪৮ বছরের কুইপার্সের। এবারের ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে ডেনমার্ক বনাম চেক প্রজাতন্ত্রের ম্যাচটাও তিনিই পরিচালনা করেছিলেন। আবার ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া ম্যাচে চতুর্থ রেফারি হিসেবে ছিলেন তিনি। ইউরোর ফাইনালে প্রথম ডাচ রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন তিনি। উয়েফা আয়োজিত প্রতিযোগিতায় রেফারিং করার প্রচুর অভিজ্ঞতা রয়েছে কুইপার্সের। মোট সাতটি উয়েফা আয়োজিত টুর্নামেন্টের ফাইনাল পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে আছে দুটি ইউরোপা লিগ এবং একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালও।

বিয়র্ন কুইপার্সের ব্যবসার একটি প্রমাণ(ছবি:টুইটার)
বিয়র্ন কুইপার্সের ব্যবসার একটি প্রমাণ(ছবি:টুইটার)

তবে রেফারিং-এর বাইরে কুইপার্সের আরও একটি পরিচিতি রয়েছে। ২০১৬ সালে এই ডাচ রেফারির সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ১১.৫ মিলিয়ন পাউন্ড। নেদারল্যান্ডস এবং বেলজিয়ামে বহুল পরিচিত জাম্বো কুপার্স নামক সুপার মার্কেট চেনের সহ প্রতিষ্ঠাতা তিনি। নিজমেগেন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে তার ডিগ্রিও রয়েছে। ২০১৬ নেদারল্যান্ডসে দেশের সেরা জাম্বো ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে তার সংস্থাকেই আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। এছাড়াও ফর্মুলা ওয়ানের স্পনশর হিসাবেও কুইপারসের কোম্পানির নাম করা হয়ে থাকে। তাহলে এবার মাথায় রাখবেন, ষখন ইউরো কাপের ফাইনাল ম্যাচ দেখতে বসবেন তখন মনে রাখবেন, কোনও সিদ্ধান্ত মনের মত না হলে কখনই বলবেননা রেফারি ঘুষ নিয়েছে। কারণ এই রেফারি নিজেই যে কুবের। প্রচুর অর্থের মালিক তিনি।  এবার তিনি হেয়ার সেলুনের নতুন চেইন ব্যবসা শুরু করছেন।

বন্ধ করুন