বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > FIFA World Cup 2022: বিশ্বকাপে তৈরি হতে চলেছে ইতিহাস, প্রথমবার ম্যাচ পরিচালনায় মহিলা রেফারি

FIFA World Cup 2022: বিশ্বকাপে তৈরি হতে চলেছে ইতিহাস, প্রথমবার ম্যাচ পরিচালনায় মহিলা রেফারি

প্রথমবার ম্যাচ পরিচালনায় মহিলা রেফারি

নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন তাঁরা। আর এভাবেই জায়গা করে নিয়েছেন কাতার বিশ্বকাপের মঞ্চে। আসুন একনজরে চিনে নেওয়া যাক এই তিন ইতিহাস সৃষ্টিকারী মহিলা রেফারিকে।

শুভব্রত মুখার্জি: ১৯৩০ সাল থেকে বসছে ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। কাতারে বসতে চলেছে ফিফা বিশ্বকাপের ২২তম আসর। আর সেই আসরেই সৃষ্টি হতে চলেছে এক নয়া ইতিহাস। যে ঘটনা এতবছরে কোনদিন ঘটেনি এবার সেই ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে ফুটবল বিশ্ব। বিশ্ব ফুটবলের ইতিহাসে প্রথমবার ফুটবল বিশ্বকাপের ম্যাচ পরিচালনা করবেন মহিলা রেফারিরা। ফুটবল বিশ্বকাপের গত ২১ আসরে যা ঘটেনি এবার তাই প্রত্যক্ষ করতে চলেছে গোটা বিশ্ব। বিশ্ব ফুটবলের মঞ্চে মহিলাদের সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে যা নতুন এক দিগন্ত খুলে দেবে।

প্রসঙ্গত বিশ্বকাপের ৩৬ জনের রেফারির প্যানেল ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানে জায়গায় করে নিয়েছেন তিন মহিলা রেফারি। তাঁরা হলেন ফ্রান্সের স্তেফানি ফ্রাপার্ট, জাপানের ইউশিমি ইয়ামাশিতা এবং রুয়ান্ডার সালিমা মুকানসাঙ্গা। নিজেদের দেশে ঘরোয়া লিগে ছেলেদের শীর্ষ ফুটবল লিগ ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে ম্যাচ পরিচালনাও করেছেন তাঁরা। যার মধ্যে দিয়ে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন তাঁরা। আর এভাবেই জায়গা করে নিয়েছেন কাতার বিশ্বকাপের মঞ্চে। আসুন একনজরে চিনে নেওয়া যাক এই তিন ইতিহাস সৃষ্টিকারী মহিলা রেফারিকে।

১) স্তেফানি ফ্রাপার্ট :

ফ্রান্স ফুটবলে মহিলাদের ঘরোয়া লিগে রেফারি হিসেবে পথচলা শুরু স্তেফানি ফ্রাপার্টের। ২০১১ সালে প্রথম মহিলা রেফারি হিসেবে ফরাসি ফুটবলে পুরুষদের তৃতীয় ডিভিশন লিগে ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। পরবর্তীতে ছেলেদের দ্বিতীয় বিভাগ এবং ২০১৯ সালে ফরাসি লিগা ওয়ানে ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। আর এভাবেই ফুটবল ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লিখিয়ে ফেলেষ ফ্রাপার্ট। উল্লেখ্য তিনি ২০১৫ এবং ১৯ মহিলা বিশ্বকাপে ও রেফারি ছিলেন। প্রথম কোনও মহিলা রেফারি হিসেবে ২০১৯ সালে উয়েফা সুপার কাপের ফাইনালে লিভারপুল ও চেলসির ম্যাচের দায়িত্বে পালন করে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন ফ্রাপার্ট। ২০২০ সালে ছেলেদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগও গত বছর ছেলেদের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নেদারল্যান্ডস ও লাটভিয়ার ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। গত ২ অক্টোবর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়াল মাদ্রিদ এবং সেল্টিকের ম্যাচেও রেফারির দায়িত্ব পালন করেছেন ৩৮ বছর বয়সি ফ্রাপার্ট।

২) ইউশিমি ইয়ামাশিতা :

আশ্চর্যজনকভাবে কোনও দিন রেফারি চাননি ইয়ামাশিতা! আর সেই তিনিই কিনা এবারের কাতার বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিচালনা করে ইতিহাস রচনা করতে চলেছেন! একটা সময় কিছু সময়ের জন্য ফিটনেস ট্রেনার হিসেবে কাজ করছেন জাপানের ইউশিমি ইয়ামাশিতা। সেই চাকরি ছেড়ে দেন তিনি। এরপর তিনি রেফারিংয়ে নাম লেখান। বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ম্যাচ পরিচালনার জন্য এক বন্ধু তাঁকে জোর করে ধরে নিয়ে মাঠে নামিয়ে দিয়েছিলেন। তারপরের ইতিহাসটুকু সকলের জানা। ২০১৯ সালে প্রথম মহিলা রেফারি হিসেবে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স লিগের একটি ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। জাপানের ছেলেদের ফুটবলের সর্বোচ্চ লিগেও ম্যাচ পরিচালনার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। যার সুফল হিসেবে বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিচালনার সুযোগ পেয়েছেন ৩৬ বছর বয়সি ইয়ামাশিতা।

৩) সালিমা মুকানসাঙ্গা:

২০২২ সালের শুরুতেই ইতিহাস গড়েন রুয়ান্ডার সালিমা মুকানসাঙ্গা। ছেলেদের আফ্রিকান নেশন্স কাপে ১ম বার মহিলা রেফারি হিসেবে ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। এরপরেই বদলছ যায় মুকানসাঙ্গার দুনিয়া। সুযোগ আসে কাতারে বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিচালনার। কিন্তু এমন সুযোগের আশা যে কখনওই করেননি তা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন মুকানসাঙ্গা। কাতার বিশ্বকাপের দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করা তাঁর প্রধান লক্ষ্য। এরপর মুকানসাঙ্গার স্বপ্ন ২০২৩ মহিলা বিশ্বকাপের রেফারি হিসেবেও কাজ করার সুযোগ পাওয়া।একসময় বাস্কেটবল খেলোয়াড় হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন সালিমা। কিন্তু রুয়ান্ডায় বাস্কেটবলে তেমন পরিকাঠামোই নেই। ফলে পরবর্তী সময়ে রেফারিংয়ে চলে আসেন তিনি। রেফারির কোর্স করে ২০ বছর বয়স থেকেই রুয়ান্ডার বিভিন্ন লিগে ম্যাচ পরিচালনা করতেন ৩৩ বছর বয়সি মুকানসাঙ্গা।

বন্ধ করুন