বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > HT NxT: ২০২৩ সালেই কি ফুটবলকে বিদায় জানাতে চলেছেন সুনীল ছেত্রী?
জাতীয় দলের জার্সি গায়ে সুনীল ছেত্রী। ছবি- হিন্দু্স্তান টাইমস প্রিন্ট। (HT_PRINT)
জাতীয় দলের জার্সি গায়ে সুনীল ছেত্রী। ছবি- হিন্দু্স্তান টাইমস প্রিন্ট। (HT_PRINT)

HT NxT: ২০২৩ সালেই কি ফুটবলকে বিদায় জানাতে চলেছেন সুনীল ছেত্রী?

  • নিজের সুদীর্ঘ কেরিয়ারের জন্য নিয়মানুবর্তিতা এবং কিছুটা ভাগ্যকে কৃতিত্ব দেন ছেত্রী।

ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে একের পর এক রেকর্ড ভাঙা গড়ার মধ্যে দিয়ে বহু চড়াই উতরাইয়ের সাক্ষী থেকেছেন সুনীল ছেত্রী। তবে সব ভালরই শেষ আছে। সুদীর্ঘ কেরিয়ারের সায়াহ্নে এসে সুনীল ছেত্রীর অবসর নিয়েও তাও জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। সাধারণত বেশি দূরের কথা না ভাবলেও সেই বিষয়ে হালকা ইঙ্গিত দিলেন ছেত্রী।

হিন্দুস্তান টাইমসের সামিটে বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) এক ভার্চুয়াল সভায় ছেত্রী জানান ২০২৩ সালের এএফসি এশিয়ান কাপে ভারত যদি কোয়ালিফাই করে তাহলে তিনি তাতে অংশগ্রহণ করতে পারলে খুবই সন্তুষ্ট হবেন। ভারতীয় অধিনায়ক বলেন, ‘আমি যদি ওই টুর্নামেন্টে (এশিয়ান কাপ) অংশগ্রহণ করতে পারি, তাহলে তা ব্যক্তিগতগতভাবে আমাকে খুবই আনন্দ দেবে।’

এশিয়ান কাপে সুনীল অংশগ্রহণ করলে সেই সময় তাঁর বয়স গিয়ে দাঁড়াবে ৩৯। ফুটবলের মতো শারীরিকভাবে ডিমান্ডিং খেলায় ফিটনেসের চরম শিখরে না থাকলে তা সম্ভব নয়। পাশপাশি ছেত্রীর কেরিয়ারও ১৯ বছরে পদার্পন করবে। এতদিন ধরে শীর্ষস্তরে খেলা চালিয়ে যাওয়া, নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করা যে মোটেই সহজ নয়, তা আলাদা করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন হয় না। ছেত্রী কিন্তু এর জন্য নিয়মানুবর্তিতা এবং কিছুটা ভাগ্যকে কৃতিত্ব দিচ্ছেন।

‘সবসময় প্রতিটা দিন যদি তুমি নিজের সেরাটা দাও, তাহলে তারপর ফলাফল যাই হোক না কেন, সেটার সঙ্গে তোমায় মানিয়ে নিতে হবে। হঠাৎ করে মাঠে নেমেই বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখলে তা সম্ভব নয়। তাই জন্যই আমার মতে স্পোটর্স সবসময় সব ঋণ শোধ করে দেয় বলে আমি মনে করি। নিজের ভেতর থেকে সেই জিনিসটাকে খুঁজে বার করা খুব জরুরি যা তোমার চালিকাশক্তি হবে। সেটা শেষ পরাজয় থেকে শুরু করে যা খুশি হতে পারে। আমি নিজের জীবনে যা পেয়েছি, সেটাই আমাকে আরও ভাল করার জন্য উদ্বুদ্ধ করে।’ দাবি কিংবদন্তী ভারতীয় ফুটবলারের।

বন্ধ করুন