বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ‘আমি ATK MB ছাড়তে চাইনি, ক্লাব আমাকে বাধ্য করেছে’, রয় কৃষ্ণের পর বোমা প্রবীরেরও
প্রবীর দাস।

‘আমি ATK MB ছাড়তে চাইনি, ক্লাব আমাকে বাধ্য করেছে’, রয় কৃষ্ণের পর বোমা প্রবীরেরও

  • ক্লাব ছাড়তেই নিজের ফেসবুক পেজে একটি ভিডিয়োও পোস্ট করেছেন প্রবীর দাস। সেখানে সবুজ-মেরুনকে নিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছেন তিনি। সেই ভিডিয়োতে পুরনো স্মৃতি হাতড়েছেন প্রবীর। পাশাপাশি তাঁর ভক্তদের ধন্যবাদও জানিয়েছেন। তবে সব কিছুর মাঝে তিনি বিতর্কও টেনে এনেছেন।

রয় কৃষ্ণের পর এ বার বোমা ফাটালেন প্রবীর দাসও। এটিকে মোহনবাগান ছাড়ার পর একরাশ ক্ষোভ উগড়ে দিলেন বাঙালি তারকা। সোমবারই তিন বছরের চুক্তিতে এটিকে মোহনবাগান ছেড়ে বেঙ্গালুরু এফসি-তে যোগ দিয়েছেন প্রবীর।

আর তার পরেই প্রবীর স্পষ্ট ভাষায় বলে দিয়েছেন, ‘আমি ক্লাব ছাড়তে চাইনি, ক্লাব আমাকে ছাড়তে বাধ্য করেছে। আমি কিছু লোকের ব্যবহারে হতাশ এবং আমি মনে করি না, আমার এটা প্রাপ্য ছিল। আমি অনেক বছর ধরে এই ক্লাবে খেলেছি এবং এই ক্লাবের সঙ্গে আমার একটা আলাদা সম্পর্ক তৈরি হয়ে গিয়েছিল।’

আরও পড়ুন: ‘জানানো হয়েছিল, কোচের স্টাইলে আমি ফিট করি না’, ATK MB নিয়ে বোমা ফাটালেন রয় কৃষ্ণ

ক্লাব ছাড়তেই নিজের ফেসবুক পেজে একটি ভিডিয়োও পোস্ট করেছেন প্রবীর দাস। সেখানে সবুজ-মেরুনকে নিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছেন তিনি। সেই ভিডিয়োতে পুরনো স্মৃতি- অনুশীলনের বিভিন্ন মুহূর্ত, সতীর্থদের সঙ্গে খুনসুটি- কার্যত হাতড়েছেন প্রবীর । পাশাপাশি তাঁর ভক্তদের ধন্যবাদও জানিয়েছেন। তবে সব কিছুর মাঝে তিনি বিতর্কও টেনে এনেছেন।

সেই ভিডিয়োতে প্রবীর বলেছেন, ‘আমি প্রফেশনাল হয়ে উঠতে পারিনি। এটা আমার ব্যর্থতা। প্রতি বছর ৫০-৬০ লক্ষ টাকা কম নিয়েও ফ্যানদের ভালোবাসার কথা মাথায় রেখে এটিকে মোহনবাগানে থেকে গিয়েছি। অন্য ক্লাবে যাইনি।’ তবে তিনি এটা জানাতেও ভোলেননি, তাঁর খারাপ সময়ে এটিকে মোহনবগানই তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিল।

তিনি বলেছেন, ‘একটা সময় কোনও ক্লাব ছিল না আমার কাছে। তখন মোহনবাগানই আমায় সই করিয়েছিল। তার পর ভালো খেলেছি। সমর্থকদের মনে জায়গা করে নিতে পেরেছি। কিন্তু সেই সময় মোহনবাগান সুযোগটা না দিলে, আমি প্রবীর দাস হয়ে উঠতে পারতাম না।’

বন্ধ করুন