বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ISL 2022-23: ম্যাচ হারলেই চোট অজুহাত খাড়া করে দেন ATKMB কোচ, ঘরের মাঠে দলের হারের পরেও তুষ্ট ফেরান্দো

ISL 2022-23: ম্যাচ হারলেই চোট অজুহাত খাড়া করে দেন ATKMB কোচ, ঘরের মাঠে দলের হারের পরেও তুষ্ট ফেরান্দো

জুয়ান ফেরান্দো।

মুম্বইয়ের কাছে হারের পর এটিকে মোহনবাগানের ১৩ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট। তারা ৭টি ম্যাচ জিতেছে, ২টি ড্র করেছে। ৪টি ম্যাচ হেরেছে। লিগ টেবলের চারেই রয়েছে সবুজ-মেরুন ব্রিগেড।

নতুন বছরের শুরুতে দু’সপ্তাহেরও বেশি ছুটি পেয়েছেন। দলে নতুন ফুটবলাররা যোগ দিয়েছেন। চোট-আঘাতের সমস্যা দু’সপ্তাহ আগের চেয়ে এখন অনেক কম। তা সত্ত্বেও শনিবার মুম্বই সিটি এফসি-র বিরুদ্ধে এক গোলে হারের কারণ হিসেবে সেই চোট-আঘাতের সমস্যাতেই ফিরে গেলেন এটিকে মোহনবাগানের কোচ জুয়ান ফেরান্দো। তাঁর বক্তব্য, দল না জিততে পারলেও ফুটবলারদের লড়াই এবং গোলের সুযোগ তৈরির বহর দেখে তিনি খুশি।

এ দিনের ম্যাচে হারের পর স্প্যানিশ কোচ বলেন, ‘আমার কাছে দলের ভালো পারফরম্যান্স, গোলের সুযোগ তৈরি- এগুলোই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ফল অবশ্যই হতাশাজনক হয়েছে। কিন্তু মুম্বই আমাদের চেয়ে ভালো খেলেছে বলেই জিতেছে।’

আরও পড়ুন: সুযোগ মিসের খেসারত দিল বাগান- মুম্বইয়ের কাছে লজ্জার হারের নজির বজায় থাকল

এই হারের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সেই চোট-আঘাত সমস্যাকেই টেনে আনেন কোচ। বলেন, ‘চেন্নাইয়িনের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচের পরে আমরা আর কখনও একসঙ্গে ছ'জন বিদেশি ফুটবলারকে পাইনি। এই প্রথম একসঙ্গে ছ'জনকে পেলাম। তা ছাড়া আগেও বলেছি, এত খেলোয়াড়ের চোট-আঘাত সমস্যা ছিল আমাদের যে, ঠিক মতো সবাইকে নিয়ে অনুশীলনও করতে পারিনি একসঙ্গে। এটা অজুহাত নয়। তবে এটাই সত্যি। ৯-১০ জন খেলোয়াড়কে নিয়ে তো আর কোনও ম্যাচের জন্য ঠিক মতো প্রস্তুতি নেওয়া যায় না। আমি বরং খুশি আমার দলের ছেলেরা তাদের দৃঢ় চরিত্রের পরিচয় দিয়েছে, নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দেওয়ার চেষ্টা করেছে।’

চোটের ফিরিস্তি দিয়ে এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘ফারদিনের পায়ের পেশীতে চোট। তাই ও ৪৫ মিনিটের বেশি খেলতে পারছে না। হুগোর কাঁধে সমস্যা। ইঞ্জেকশন নিয়ে মাঠে নামতে হচ্ছে ওকে। পেত্রাতোসেরও কোমরে চোট রয়েছে। খুবই কঠিন পরিস্থিতি। আমরা লিগ শুরুর পর পরই একের পর এক খেলোয়াড়কে চোট-আঘাতের জন্য হারিয়েছি। ওরা যদি থাকত, তা হলে ফল অন্য রকম হত। সেপ্টেম্বরের দল আর এখনকার দলের মধ্যে অনেক তফাৎ। এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও যে ওরা ভাল খেলে যাচ্ছে, এর জন্যই আমি খুশি। তবে প্রার্থনা করুন। মরশুমের বাকি সময়ে যেন আর নতুন করে চোট-আঘাত না হয়।’

আরও পড়ুন: প্রশাসনিক জটিলতার কারণে ভালো প্লেয়ারকে বসিয়ে রাখতে হচ্ছে- ক্ষোভ উগরালেন EB কোচ

এই জয়ের সঙ্গে লিগে ছ’টি ম্যাচ বাকি থাকতেই নক আউট পর্বে জায়গা করে নিল মুম্বই সিটি এফসি। তাদের প্রশংসা করে ফেরান্দো বলেন, ‘মুম্বই সিটি এফসি দলে এত জন ভালো ভালো ফুটবলার আছে, ওরা প্রত্যেকেই ফর্মের শিখরে রয়েছে, ফলে রোজই দলটা ভালো খেলছে। মুম্বইয়ের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড়রা আজ অসাধারণ ফর্মে ছিল। এটাও আমাদের মেনে নিতে হবে।’

এ দিন বরাবরের মতোই অসংখ্য গোলের সুযোগ নষ্ট করে ফেরান্দোর দল। দলে একজন যথার্থ নম্বার নাইন নেই বলেই এমনটা হচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞদের অনেকের অভিযোগ। কিন্তু তা মানতে রাজি নন স্প্যানিশ কোচ। বলেন, ‘একজনের ওপর গোলের দায়িত্ব দিয়ে লাভ নেই। দলে এগারো জন রয়েছে। গোল করার দায়িত্ব সবারই আছে। আসল কথা, আমরা কত গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারছি! আমাদের ভাগ্য ভালো যে, ছোটখাটো বিষয়ে আমরা বেশি পিছিয়ে থাকিনি। ফুটবলে এ রকম হয়ই। এখন আমাদের আরও পরিশ্রম করতে হবে। নতুন ফুটবলারদের আমাদের দলের নীতি, পদ্ধতির সঙ্গে ক্রমশ মানিয়ে নিতে হবে। আমাদের হলুদ কার্ডও রয়েছে প্রচুর। সেটাও একটা বড় সমস্যা।’

বন্ধ করুন