বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ISL 2022-23: লিগ টেবলের শীর্ষেই শেষ করব- পুরনো দলের বিরুদ্ধে নামার আগে আত্মবিশ্বাসী ATK MB কোচ

ISL 2022-23: লিগ টেবলের শীর্ষেই শেষ করব- পুরনো দলের বিরুদ্ধে নামার আগে আত্মবিশ্বাসী ATK MB কোচ

জুয়ান ফেরান্দো।

যে দলকে একটা সময়ে কোচিং করিয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে স্ট্র্যাটেজি করা কতটা চ্যালেঞ্জিং? জুয়ান ফেরান্দো তঁর পুরনো দল এফসি গোয়াকে সমীহ করলেও, নিজের বর্তমান টিম এটিকে মোহনবাগানকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী।

গত ম্যাচে কেরালা ব্লাস্টার্সের কাছে হেরেছিল এফসি গোয়া। তা বলে তাদের হাল্কা ভাবে নেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই বলে মনে করেন এটিকে মোহনবাগান কোচ জুয়ান ফেরান্দো। তাঁর মতে, এফসি গোয়া শুরুটা যে রকম ভালো করেছে, তার পরে তাদের যথেষ্ট ভালো দল হিসেবে ধরে নিচ্ছেন তিনি ও তাঁর দল। পাশাপাশি এই এফসি গোয়া ছেড়েই ফেরান্দো এসেছিলেন এটিকে মোহনবাগানে। তাই তাঁর কাছে এই ম্যাচ বাড়তি চ্যালেঞ্জ। তবে নিজের বর্তমান দল নিয়েও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ফেরান্দো। তবে রবিবার গোয়ার ফতোরদায় একটা কঠিন ম্যাচের অপেক্ষায় রয়েছেন বাগানের স্প্যানিশ কোচ।

আইএসএলের অন্যতম কঠিন ম্যাচে নামার আগে শনিবার সাংবাদিক বৈঠকে যা যা বললেন ফেরান্দো, দেখে নিন বিস্তারিত:

প্রশ্ন: এফসি গোয়ার তুলনায় এটিকে মোহনবাগানের মতো এত বড় একটা দলকে সামলানোর কাজটা কতটা কঠিন আপনার পক্ষে?

ফেরান্দো: কোচ হিসেবে দায়িত্ব একই রকম আছে। তবে এখানে চাপ বেশি। কারণ, সমর্থকেরা এখানে জেতার কথা ছাড়া কিছু ভাবেন না। তবে কাজটা একই। দল এবং তার খেলোয়াড়দের আরও উন্নত করে তোলা, তাদের সমস্যার সমাধান করা। সারা দুনিয়ার কোচেদেরই একই কাজ এবং দায়িত্ব।

আরও পড়ুন: স্কুলের ছেলেদের মতো ভুল করে ম্যাচ জেতা যায় না- ISL-এ ফের হার,ক্ষোভ উগরালেন EB কোচ

প্রশ্ন: এটিকে মোহনবাগান বরাবরই লিগ শিল্ড জয়ের ব্যাপারে ফেভারিট। কিন্তু কোনও বারই আপনারা তা জিততে পারেননি। আপনিও কি মনে করেন যে, আপনার দলই লিগ জয়ের দৌড়ে সেরা দল?

ফেরান্দো: অবশ্যই। আমাদের দলের ছেলেরা লিগ টেবলের শীর্ষে থাকার মানসিকতা নিয়েই মাঠে নামে। সব মরশুমেই একই উদ্দেশ্য নিয়ে মাঠে নামছে ওরা। আমি যখন এফসি গোয়ার কোচ ছিলাম, তখন যেমন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যোগ্যতা অর্জন করাটা আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল, এখনও তা-ই আছে। কারণ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এমন একটা জায়গা, যেখানে অংশ নিতে গেলে দলকে অনেক ভালো জায়গায় পৌঁছতে হয় এবং ভারতীয় ফুটবলেরও এতে উন্নতি হয়। আমরা প্রতি ম্যাচেই নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করি। এটাই আমাদের মানসিকতা। আশা করি, এ বার লিগ টেবলের শীর্ষে থেকেই শেষ করব এবং চ্যাম্পিয়নশিপও জিতব। তবে এখন যা পরিস্থিতি, তাতে প্রতি ম্যাচই ফাইনাল ধরে নিয়ে মাঠে নামতে হবে আমাদের।

প্রশ্ন: এফসি গোয়া দলের অনেকেই এ বার নতুন। সুতরাং, কতটা কঠিন হবে এই ম্যাচ?

ফেরান্দো: আমাদের প্রতিপক্ষ যথেষ্ট ভালো একটা দল। ওরা মরশুমের শুরুটা ভালোই করেছে। খেলোয়াড়দের নিয়ে বেশি কথা বলার নেই। কারণ, ওদের সিভি আপনাদের সবারই জানা। (আলভারো) ভাসকেজ, ইকের (গুয়ারৎজেনা), (মার্ক) ভ্যালিয়েন্তেরা এই দলের প্রধান খেলোয়াড়। এ ছাড়াও ওদের দলে কিছু ভালো ভালো ফুটবলার আছে। যথেষ্ট সঙ্ঘবদ্ধ দলটা। আক্রমণে ও রক্ষণে যথেষ্ট দক্ষ। আশা করি, কাল একটা কঠিন ম্যাচ হবে এবং ফুটবলপ্রেমীরা ম্যাচটা উপভোগ করবেন।

প্রশ্ন: এখনও পর্যন্ত দলের পারফরম্যান্সে আপনি খুশি?

ফেরান্দো: আমি কখনও দলের পারফরম্যান্সে পুরোপুরি খুশি হই না। কারণ, আমি জানি দল রোজই উন্নতি করতে পারে। এমনিতে আমাদের দল খুবই ভালো। দলে ভালো খেলোয়াড়রাও আছে। তবে ক্রমশ আমাদের সেই জায়গায় পৌঁছতে হবে, যখন দলের সবাই একসঙ্গে ভালো খেলবে। এই ব্যাপারটা ভারতে খুবই কঠিন। কারণ, এখানে সবাই ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়, ম্যাচের নায়কদের নিয়ে বেশি মাতামাতি হয়, যা এখানকার ফুটবলের পক্ষে মোটেই ভালো নয়। অনেকেই ভুলে যান যে, ফুটবলটা দলগত খেলা। খেলোয়াড়দের নিজেদের ভূমিকা ঠিকমতো পালন করতে হবে এবং কোচকেও। দল হিসেবে ভাল খেললেই তবে ভবিষ্যতে ভাল ফল পাওয়া সম্ভব। গত মরসুমে হায়দরাবাদ এফসি যে ভাবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। কারণ, ওরা সবাই ভালো খেলে।

আরও পড়ুন: ১০টা মিসের পরে যদি জিতি, সেটাই আসল-গোল মিসের রোগ রয়ে গেলেও চিন্তিত নন ATK MB কোচ

প্রশ্ন: গত ম্যাচে এফসি গোয়া কেরালা ব্লাস্টার্সের কাছে ১-৩-এ হেরেছে। কিন্তু আপনারা গত চারটি ম্যাচেই অপরাজিত। এর ফলে কি গোয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে আপনারা বাড়তি সুবিধে পাবেন?

ফেরান্দো: আবারও বলছি, এফসি গোয়া মরশুমের শুরুটা খুবই ভালো করেছে। কেরালার বিরুদ্ধে প্রথমার্ধের শেষ পাঁচ মিনিটে ওদের মনসংযোগে বোধহয় ব্যাঘাত ঘটে। এটা ওদের কাছে একটা শিক্ষা। ০-২-এ পিছিয়ে গিয়ে ম্যাচে ফিরে আসা খুবই কঠিন। যদিও গতকাল ওড়িশা সেটা করে দেখিয়েছে। কিন্তু ওরা তিন মিনিটের মধ্যে পরপর দু'টি গোল করেছে। তবে আমার মনে হয় এফসি গোয়া কৌশল ও দক্ষতার দিক থেকে শক্তিশালী দল। ওরা মনে হয় প্লে অফে খেলবে। ওদের দলে ভালো ফুটবলার আছে। কেরালার বিরুদ্ধে ম্যাচে হয়তো ওদের দিনটা ভাল যায়নি। ওরা পেশাদার। আমার মনে হয় না, গত ম্যাচে যা হয়েছে, তার প্রভাব ওরা এই ম্যাচে পড়তে দেবে।

প্রশ্ন: প্রথম দু’বছর আপনি গোয়ার গ্যালারিতে সমর্থকদের পাননি। এ বার হিরো আইএসএলে পাবেন। কিন্তু বিপক্ষ দলের ডাগ আউটে থাকছেন আপনি। এই অনুভূতিটা কেমন?

ফেরান্দো: যখন আমি এফসি গোয়ার কোচ ছিলাম, তখন কোভিডের জন্য পরিস্থিতি মোটেই ভালো ছিল না। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ভেবেছিলাম, হয়তো দর্শকদের পাব। কিন্তু কোভিড পরিস্থিতি তখনও কাটেনি। তবে এখন যে পরিবেশ পাচ্ছি এটাই আসল। এখন আমি অনেক বেশি উপভোগ করছি। কোচি, মুম্বইয়ে আমাদের খেলোয়াড়রা দারুণ খেলেছে। কারণ, সমর্থকদের সঙ্গে ওদের একটা আবেগের সম্পর্ক রয়েছে। গোয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচেও অনেক ফুটবলপ্রেমী স্টেডিয়ামে আসবেন একটা ভালো ম্যাচ দেখার জন্য। এফসি গোয়া ভালো ফুটবল খেলে। এটিকে মোহনবাগানও ভালো খেলার চেষ্টা করে। প্রচুর সমর্থকেরা মাঠে এসে যখন হইচই করেন, তখন পরিবেশটাই অন্য রকম হয়ে যায়। আমরা ঘরের মাঠেও যেমন এ রকম পরিবেশ পেয়েছি, বাইরেও পেয়েছি। এটা ফুটবলেরই অঙ্গ এবং আমার কাছে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ।

বন্ধ করুন