বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > লা লিগার নতুন চুক্তি স্বাক্ষর নিয়ে প্রকাশ্যেই অসন্তোষ প্রকাশ রিয়াল-বার্সার
লা লিগা ট্রফি। ছবি- গেটি ইমেজেস।
লা লিগা ট্রফি। ছবি- গেটি ইমেজেস।

লা লিগার নতুন চুক্তি স্বাক্ষর নিয়ে প্রকাশ্যেই অসন্তোষ প্রকাশ রিয়াল-বার্সার

  • সম্প্রতি CVC Capital Partners নামক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের সঙ্গে ৩.২ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে লা লা লিগা।

রিয়াল মাদ্রিদ এবং বার্সেলোনার সঙ্গে যে স্প্যানিশ লা লিগার আধিকারিকদের সম্পর্ক খুব একটা মধুর নয়, সেই বিষয়ে সকলেই অবগত। লা লিগার সাম্প্রিতক এক সিদ্ধান্তে আরও একবার স্পেনের দুই বড় দলের সঙ্গে লিগ আধিকারকদের মতবিরোধের ছবি সামনে এল। লা লিগা কমিটিকে সরাসরি তাদের সিদ্ধান্তের জন্য তুলোধনা করা হল দুই ক্লাবের তরফেই। 

ঘটনার সূত্রপাত লা লিগার আন্তর্জাতিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড CVC Capital Partners-র সঙ্গে চুক্তি নিয়ে। এই আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে লা লিগা কর্তৃপক্ষ সাম্প্রতিক ৩.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি করেছে। এই চুক্তি ঘিরেই যত সমস্যা। আসন্ন সাধারন সভায় স্পেনের বাকি দলগুলি এই চুক্তির বিষয়ে সবুজ সঙ্কেত দিলেও বাঁধ সেধেছে স্পেনের সবচেয়ে বড় দুই দল। 

বৃহস্পতিবার (৫ অগস্ট) রিয়ালের তরফে বলা হয় তাদের না জানিয়েই এই চুক্তিটি করা হয়। তাদের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘রিয়াল মাদ্রিদ কিছু না জানিয়েই বা কোনরকম পরামর্শ ছাড়াই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আজকেই (বৃহস্পতিবার) চুক্তিপত্রের সামান্য কিছু অংশ আমাদেরকে পাঠানো হয়েছে। ক্লাবগুলি তিন বছরের জন্য নিজেদের অডিও ভিসুয়াল স্বত্ব দিয়ে থাকে। কিন্তু এই চুক্তির মাধ্যমে অন্যায্যভাবে পরবর্তী ৫০ বছরের জন্য ক্লাবগুলির অডিও ভিসুয়াল স্বত্বর ১০.৯৫ শতাংশ বাজেয়াপ্ত করবে, যা সম্পূর্ণ আইন বিরুদ্ধ।’

মাদ্রিদের তরফে দাবি করা হয় CVC ইনভেস্টমেন্ড ফান্ড যারা একসময় ফর্মুলা ওয়ানের কর্ণধার ছিল, তারা ইতালি এবং জার্মান লিগে একইরকম চুক্তি স্বাক্ষরের ব্যর্থ প্রচেষ্ট করে। উপরন্তু, এই একইরকম চুক্তির ক্ষেত্রে অন্যান্য কোন সংস্থার এই নিয়ে কোনরকম আলোচনা বা কোনরকম প্রতিযোগিতা না করেই এই প্রাইভেট সংস্থার হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হচ্ছে।

মাদ্রিদের মতোই বার্সাও চুক্তির সময়কাল এবং কোন প্রতিযোগিতা ছাড়াই এই ফান্ডের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরে আপত্তি জানায়। তাদের তরফেও দাবি করা হয় যে ভালভাবে এই বিষয়ে কোন দলের মতামত নেওয়া হয়নি বা আলোচনাও করা হয়নি। বিবৃতিতে তাদের তরফে বলা হয়, ‘বার্সেলোনা এমন একটি চুক্তি যেখানে বার্সেলোনাসহ বাকি ক্লাবগুলির মতামত নেওয়ার প্রয়োজন মনে করা হয়নি, সেই বিষয়ে জানতে পেরে হতবাক। বাকি প্রতিযোগীদের প্রস্তাব যার মাধ্যমে বর্তমান করোনা পরবর্তী সময়ে বাজারদর সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যেত, সেই বিষয়েও কোন গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। উপরন্তু, ফুটবল জগতের অনিশ্চয়তার মধ্যে অর্ধশত বছরের চুক্তি অনুচিত বলেই মনে করে।’

এই চুক্তির মাধ্যমে CVC-কে লিগের মোট উপার্জনের ১০ শতাংশ শেয়ার দেওয়া হত। লিগের তরফে জানানো হয় এই চুক্তি লা লিগার ক্লাবগুলিকে আর্থিকভাবে সাহায্য করবে এবং লিগকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রিমিয়র লিগের সঙ্গে প্রতিযোগিতাতেও অক্সিজেন জোগাবে। তবে লিগের ব্রডকাস্টিং স্বত্ব বা অন্যকিছুর ওপর এর কোন নিয়ন্ত্রণ থাকবে না। সংস্থা থেকে প্রাপ্ত অর্থের ৯০ শতাংশই ক্লাবগুলির মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে। কিছু অর্থ ঋণ মেটাতেও ব্যবহৃত হবে। এই চুক্তি স্বাক্ষর হলে ধীরে ধীরে স্প্যানিশ ক্লাবগুলি নিজের কোচিং স্টাফ ও খেলোয়াড় কিনতেও অধিক অর্থ ব্যয় করতে পারত। তবে আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত হলেও বার্সেলোনা বা রিয়াল মাদ্রিদ, কারুরই এই চুক্তিতে সম্মতি নেই।

বন্ধ করুন