বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ব্যর্থতা, ঘরের মাঠে PSG সমর্থকদেরই বিদ্রুপের মুখে মেসি-নেইমার
পিএসজি জার্সিতে মেসি ও নেইমার। ছবি- গেটি ইমেজেস।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ব্যর্থতা, ঘরের মাঠে PSG সমর্থকদেরই বিদ্রুপের মুখে মেসি-নেইমার

  • আরেক তারকা ফরোয়ার্ড এমবাপেকে অবশ্য বিদ্রুপের মুখে পড়তে হয়নি।

শুভব্রত মুখার্জি

ফ্রান্সের ঘরোয়া ফুটবল লিগের ম্যাচে বোর্দোর মুখোমুখি হয়েছিল পিএসজি। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে নাটকীয়ভাবে হারের পরে প্রথমবার মাঠে নেমেই ক্লাব সমর্থকদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হল লিওনেল মেসি, নেইমার জুনিয়রদের। রীতিমতো গোটা ম্যাচ জুড়ে সমর্থকদের বিদ্রুপ, টিটকিরি ধেয়ে এল প্যারিস সাঁ-জাঁ তারকাদের জন্য।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে আগেই প্রিয় দল বিদায় নেওয়ায় পিএসজির সমর্থকদের মনে লুকিয়ে ছিল ক্ষোভ। যার বহিঃপ্রকাশ ঘটল এদিনের ম্যাচে। যার পুরোটাই গিয়ে পড়ল লিওনেল মেসি ও নেইমারের উপর। ব্যতিক্রম হিসেবে এই ক্ষোভের 'আগুনে' পুড়তে হল না আক্রমণভাগের আরেক তারকা কিলিয়ান এমবাপেকে। ফরাসি ফরোয়ার্ড এদিন দলের হয়ে গোলও করলেন। মরিসিও পচেতিনোর দল এদিন ঘরোয়া লিগে পেল স্বস্তির জয়। ঘরের মাঠে রবিবার লিগা ওয়ানের ম্যাচে বোর্দোর বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতল পিএসজি।

এদিন ম্যাচে এমবাপের পাশাপাশি গোল পেয়েছেন নেইমারও। দলের অপর গোলদাতা লিয়ান্দ্রো প্যারেডেস। তবে গোলের দেখা পাননি মেসি। তারকা ফুটবলারের শট এদিন লাগে পোষ্টে। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে ৩-১ গোলে হেরে প্রতিযোগিতাটি থেকে ছিটকে যাওয়ার আগে লিগা ওয়ানে নিসের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে হেরেছিল পিএসজি। তবে সেই হতাশা কাটিয়ে এদিন জয়ের সরণীতে ফিরল পিএসজি। রিয়াল ম্যাচের প্রথম একাদশ থেকে দু'টি পরিবর্তন করা হয় পিএসজির তরফে। জিয়ানলুইজি দোনারুমার জায়গায় এদিন গোলে খেলানো হয় কেইলর নাভাসকে।

ম্যাচের ২৩তম মিনিটে এগিয়ে যায় পিএসজি। মেসি ডি-বক্সের বাইরে খুঁজে নেন জর্জিনিয়ো ওয়াইনালডমকে। এই ডাচ মিডফিল্ডারের পাস বক্সের ভেতরে পেয়ে যান এমবাপে। তাঁর শট গোলরক্ষকের পায়ে লেগে গোলে চলে যায়। আজকের এই গোলের ফলে চলতি লিগা ওয়ানে ২৪ ম্যাচে এমবাপের গোল সংখ্যা দাঁড়াল ১৫তে। দ্বিতীয়ার্ধের সপ্তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। মেসির থ্রু বল বক্সের ভেতর খুঁজে নেয় আশরফ হাকিমিকে। প্রাক্তন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডারের পাস থেকে ছয় গজ বক্সের মুখ থেকে গোল করেন নেইমার।

৫৬তম মিনিটে বোর্দোর ডি-বক্সে ওয়াইনালডমকে ফাউল করা হয়। পেনাল্টি দেওয়া হলেও ভিএআরের সাহায্যে আগের সিদ্ধান্ত বাতিল করেন রেফারি। কারণ আক্রমণের শুরুতে নেইমার অফসাইডে ছিলেন। ৬১তম মিনিটে স্কোরলাইন ৩-০ করেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার পারেডেস। ফলে স্বস্তির জয়ে ফিরল পিএসজি। তবে এদিন ম্যাচে নজর কাড়ে মেসি-নেইমারকে উদ্দেশ্য করে সমর্থকদের টিটকিরা, বিদ্রুপ। দুই তারকার পায়ে বল গেলেই বিদ্রুপ ধ্বনি দিচ্ছিলেন তারা। এই জয়ের ফলে ২৮ ম্যাচে ২০ জয় ও ৫ ড্রয়ে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে দখল আরও মজবুত করল পিএসজি।

বন্ধ করুন