বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > মেসিদের ক্লাবে খুশি নন, রোনল্ডোদের ম্যান ইউনাইটেডের কোচ হতে আগ্রহী পচেতিনো
মরিসিও পচেতিনো। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
মরিসিও পচেতিনো। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

মেসিদের ক্লাবে খুশি নন, রোনল্ডোদের ম্যান ইউনাইটেডের কোচ হতে আগ্রহী পচেতিনো

  • পিএসজিতে নিজের দল সব বিষয়ে পচেতিনোর সম্পূর্ণ দখল নেই এবং সেই নিয়েই ক্ষোভ আর্জেন্তাইন ম্যানেজারের।

ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড কোচের পদে ওলে গানার সোল্কজায়েরের চাকরি যাওয়ার পর থেকেই জিনেদিন জিদান, লুইস এনরিকে থেকে শুরু করে মরিসিও পচেতিনো, একাধিক শীর্ষ কোচের নাম পরবর্তী রেড ডেভিলস কোচ হিসেবে উঠে এসেছে। আপাতত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ম্যাচে মাইকেল ক্যারিক অস্থায়ী ভিত্তিত কোচের দায়িত্ব পালন করলেও শীঘ্রই পাকাপাকিভাবে নতুন কোচের নাম ঘোষণা করা হবে।

SKY Sports News-র রিপোর্ট অনুযায়ী প্যারিস সাঁ-জাঁ কোচ মরিসিও পচেতিনো পরবর্তী রেড ডেভিলস কোচ হতে আগ্রহী। প্রাক্তন টটেনহ্যাম হটস্পার কোচ যে পুনরায় প্রিমিয়র লিগে কোনো ক্লাবের ম্যানেজার হতে আগ্রহী, সেই বিষয়ে কোনদিনই রাখঢাক করেননি তিনি। ম্যান ইউনাইটেড কোচের পদে বহুদিন থেকেই পচেতিনোর নাম উঠে এসেছে। ক্লাব ম্যানেজমেন্ট আর্জেন্তাইনকে সেরা ম্য়ানেজারদের মধ্যে গণ্য করেন এবং তারা আগেও পচেতিনোকে কোচ করার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করেছে।

BBC-র মতে পচেতিনো বর্তমান ক্লাব পিএসজিতে খুব একটা খুশি নন। নেইমার, এমবাপে, লিওনেল মেসিদের নিয়ে তৈরি প্যারিসের ক্লাবে একাধিক বিষয়ে ক্ষোভ পচেতিনোর, যার মধ্যে অন্যতম হল দলে তাঁক ভূমিকা। পচেতিনো মূলত ক্লাবের প্রধান কোচ হিসেবেই কাজ করেন এবং বাকি সমস্ত দিকের দায়ভার ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দোর। দলে অপ্রয়োজনীয়ভাবে একাধিক তারকার উপস্থিতি দলের ভারসাম্য নষ্ট করেছে বলেই মনে করেন পচেতিনো। উদাহরণস্বরূপ গ্রীষ্মে কেইলার নাভাস থাকা সত্ত্বেও জিয়ানলুইজি দোনারুমাকে সই করানোর কোনো প্রয়োজন ছিল না বলেই মনে করেন পচেতিনো। 

তবে এসব ক্ষেত্রে মূলত লিওনার্দোর পরামর্শদাতা ছাড়া পচেতিনোর ভূমিকা নেই। আর এই ধরনের জিনিসগুলিই তাঁর ক্ষোভের কারণ। দলগত বিষয়ে অধিক নিয়ন্ত্রণ চান তিনি। এর জেরেই মাঝমরশুমেই দল বদল করে ম্যাঞ্চেস্টারে আসতে আগ্রহী পচোতিনো। উপরন্তু, তিনি প্যারিসে একটি হোটেলে থাকলেও এখনও তাঁর পরিবার লন্ডনেই থাকে। পচেতিনো ইউনাইটেড কোচ হলে জিনেদিন জিদান পিএসজি কোচ হতে পারেন বলে এক রিপোর্টে দাবি করে Marca। জিদানকে ম্যান ইউনাইটেডও কোচ হিসেবে চায়। তবে ইংরেজি বলার ওপর দখল এবং ইংল্যান্ডের ভিন্ন ধরনের ফুটবল সংস্কৃতির জন্যই তিনি এই চাকরি নিতে খুব একটা আগ্রহী নন। এখন দেখার অবশেষে কার হাতে ইউনাইটেডের রিমোট কন্ট্রোল যায়।

বন্ধ করুন