বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > বিনিয়োগকারীর পোস্টে সঙ্কট বাড়ল মহমেডানে? শুরু জল্পনা

বিনিয়োগকারীর পোস্টে সঙ্কট বাড়ল মহমেডানে? শুরু জল্পনা

মহমেডান স্পোর্টিং ক্লাব।

হঠাৎ-ই তীব্র সঙ্কটের সামনে মহমেডান। আসলে এই সঙ্কটের কারণ, মহমেডানের বিনিয়োগকারী সংস্থা বাঙ্কারহিলের কর্তা দীপক কুমার সিংয়ের একটি ফেসবুক পোস্ট। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘তা হলে এটি হচ্ছে না। খুবই হতাশ। আমি পুনরায় ভাবব ভবিষ্যতের অঙ্গীকার নিয়ে।’

মহমেডান হয়তো এই মরশুনে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। তবে সব মিলিয়ে এই মরশুমে বেশ ভালো পারফরম্যান্স করেছে মহমেডান স্পোর্টিং। দীর্ঘ ৪০ বছর পর কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। ডুরান্ড কাপ ও আইলিগে রানার্স আপ হয়েছে। স্বভাবতই নতুন মরশুমে আরও শক্তিশালী দল করতে মরিয়া মহমেডান।

তারা চাইছে, বড় কোনও সংস্থার সঙ্গে জোট বাঁধতে। এই পরিস্থিতিতে হঠাৎ-ই তীব্র সঙ্কটের সামনে মহমেডান। আসলে এই সঙ্কটের কারণ, মহমেডানের বিনিয়োগকারী সংস্থা বাঙ্কারহিলের কর্তা দীপক কুমার সিংয়ের একটি ফেসবুক পোস্ট। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘তা হলে এটি হচ্ছে না। খুবই হতাশ। আমি পুনরায় ভাবব ভবিষ্যতের অঙ্গীকার নিয়ে।’

আর এই পোস্ট মহমেডান সমর্থকদের চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে। আসলে শোনা যাচ্ছে, নিজেদের শেয়ার অর্থাৎ ৫০ শতাংশ শেয়ার এক বড় সংস্থার কাছে বিক্রি করেছেন দীপক কুমার সিং। আর এই সংস্থার সিইও হিসেবে মহমেডানের সাথে চুক্তি করতে চাইছেন দীপক। কিন্তু আইএসএল খেলার জন্য সেই নতুন সংস্থাকে আরও এক শতাংশ, অর্থাৎ মোট ৫১ শতাংশ শেয়ার ছাড়ার জন্য মহমেডানকে জানিয়েছিলেন দীপক কুমার সিং।

আর এই বিষয় নিয়েই দ্বিমত পোষণ করেছেন মহমেডান কর্তারা। এই নিয়ে মহমেডান স্পোর্টিংয়ের এক শীর্ষকর্তা জানিয়েছেন, এই নিয়ে ১০-১৫ দিন সময় চান তারা। চুক্তিপত্রের পুরোটা পর্যালোচনা করে তারা আগামী সিদ্ধান্ত নিতে চান। যেহেতু তারা একটি শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাব, ফলে ৫১ শতাংশ শেয়ার ছাড়তে তারা রাজি নয়। তবে তারা আলোচনার রাস্তা খোলা রেখেছেন।

আর এই বিষয়টিই হয়ত পছন্দ হয়নি দীপক কুমার সিংয়ের। যেহেতু মহমেডান কর্তারা এই বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেছেন, যার ফলে কিছুটা বিরক্ত হন দীপক কুমার সিং। আর সেই কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন পোস্ট করে বসলেন বাঙ্কারহিল কর্তা। তবে এই নিয়ে মহমেডান কর্মকর্তাদের সাথে কথা হয়েছে দীপকের, এবং দীপকের রাগ ভেঙেছে, তাই শোনা যাচ্ছে।

বন্ধ করুন