বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ডুরান্ডের হতাশা কাটিয়ে মার্কাসের গোলে CFL ফাইনালে মহামেডান, চার দশক পরে খেতাব জয়ের সুযোগ
গোল করে সতীর্থের সঙ্গে উচ্ছ্বাস মার্কাস জোসেফের। ছবি- মহামেডান স্পোটিং (ফেসবুক)।
গোল করে সতীর্থের সঙ্গে উচ্ছ্বাস মার্কাস জোসেফের। ছবি- মহামেডান স্পোটিং (ফেসবুক)।

ডুরান্ডের হতাশা কাটিয়ে মার্কাসের গোলে CFL ফাইনালে মহামেডান, চার দশক পরে খেতাব জয়ের সুযোগ

  • ফাইনালে মহামেডানের প্রতিপক্ষ রেলওয়ে এফসি।

এ বছর যেন নতুন প্রাণ ফিরে পেয়েছে মহামেডান স্পোটিং ক্লাব। বহুদিন পরে ব্যর্থতার অন্ধকার গলি পেরিয়ে গত বছরই দলে বেশ কিছু বড় নাম এনে চমক দিয়েছিল মহামেডান স্পোর্টিং। সেই মরশুমে তেমন সাফল্য় না আসলেও এ মরশুমের শুরুটা দুর্দান্তই করেছে কলকাতা জায়ান্টরা। এবার তাদের সামনে ফের একবার খেতাব জয়ের হাতছানি।

 সপ্তমীর শুভদিনে কল্যাণীর দর্শকশূন্য মাঠে ইউনাইটেড স্পোটর্সকে মাত দিয়ে ফের একবার মাসখানেকের মধ্যেই আরেক ফাইনালে নিজেদের জায়গা পাকা করল মহামেডান। রৌদ্রতপ্ত দুপুরে ত্রিনিদাদের মার্কাস জোসেফের একমাত্র গোলে ইউনাইটেড স্পোটর্সকে হারিয়ে কলকাতা ফুটবল লিগের ফাইনালে মহামেডান। কিছুদিন আগেই ডুরান্ড কাপে ফাইনালে পৌঁছালেও এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে খেতাব হাতছাড়া করে সাদা-কালো শিবির। এবার তাদের সামনে চার দশক পর কলকাতা ফুটবল লিগ জয়ের হাতছানি।

মার্কাস বরাবরই বড় ম্যাচের ফুটবলার। তাঁর গোল ভর করেই ডুরান্ডের সেমিফাইনালে উঠেছিল মহামেডান। এবার পেনাল্টি থেকে তাঁর ঠান্ডা মাথায় করা গোল দলকে তুলল ফাইনালে। প্রথমার্ধের শেষের দিকে ৪০ মিনিটে আজহারউদ্দিন মল্লিককে ডি-বক্সে তন্ময় ঘোষ ফাউল করায় পেনাল্টি পায় মহামেডান। স্পট কিক জালে জড়িয়ে দিতে কোন ভুল করেননি মার্কাস। দ্বিতীয়ার্ধে ইউনাইটেড স্পোর্টস ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করে বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করলেও মহামেডানের জমাট রক্ষণ তা রুখে দেওয়ায় ম্যাচে আর কোন গোল হয়নি।

এ বছর দুই বড় ক্লাব ইস্টবেঙ্গল, এটিকে মোহনবাগান কলকাতা ফুটবল লিগে অংশ না নেওয়ায় মহামেডান শুরু থেকেই অন্যতম ফেভারিট ছিল। খেতাব জিতে নিজেদের দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটাতে পারে কি না, এখন সেটাই দেখার। ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ রেলওয়ে এফসি। 

বন্ধ করুন