বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ATKMB signs East Bengal player: মঙ্গলবার খেলেছেন ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে, বুধে সেই ফুটবলারকে দলে নিল ATKMB

ATKMB signs East Bengal player: মঙ্গলবার খেলেছেন ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে, বুধে সেই ফুটবলারকে দলে নিল ATKMB

দেবনাথ মণ্ডল। (ছবি সৌজন্যে ফেসবুক এবং টুইটার)

ATKMB signs East Bengal player: বুধবার এটিকে মোহনবাগানের তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়, প্রতিভাবান গোলকিপার দেবনাথ মণ্ডলকে দলে নেওয়া হয়েছে। যিনি মঙ্গলবার ইস্টবেঙ্গলের জার্সি পরে খেলেছিলেন।

মঙ্গলবার খেলেছিলেন ইস্টবেঙ্গলের জার্সি পরে। বুধবার সেই খেলোয়াড়কে দল নিল এটিকে মোহনবাগান। বুধবার এটিকে মোহনবাগানের তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়, প্রতিভাবান গোলকিপার দেবনাথ মণ্ডলকে দলে নেওয়া হয়েছে।

মরশুম শুরুর আগে মঙ্গলবার প্রস্তুতি ম্যাচে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডায়মন্ড হারবাবের এফসির বিরুদ্ধে নেমেছিল ইস্টবেঙ্গল। ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলের পারফরম্যান্স চূড়ান্ত হতাশাজনক ছিল। গোলশূন্যভাবে শেষ হয় প্রস্ততি ম্যাচ। যদিও সেই ম্যাচে হেরে যেতে পারত ইস্টবেঙ্গল। দেবনাথের দুরন্ত পারফরম্যান্সের কারণেই লাল-হলুদ শিবিরকে হার দিয়ে অভিযান শুরু করতে হয়নি। কমপক্ষে তিনটি নিশ্চিত গোল বাঁচিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: কেন নির্বাসিত AIFF? এর জন্য কী সমস্যায় পড়বেন ছেত্রীরা? কতটা সঙ্কটে EB-MB?

সেই দেবনাথকেই বুধবার দলে নিয়েছে এটিকে মোহনবাগান। যে ঘোষণার পর তীব্র ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের একাংশ। তেমনই এক সমর্থক বলেন, 'গতকাল (মঙ্গলবার) প্রস্তুতি ম্যাচে দু'জন ভালো খেলেছেন - মনোতোষ এবং দেবনাথ। ইস্টবেঙ্গলের ম্যানেজমেন্ট এতদিন ওই খেলোয়াড়দের দলে রেখে দিয়েছে। কিন্তু চুক্তি করেনি। আজ আর্কাইভ উদ্বোধনের মধ্যে দু'জনকেই সই করিয়েছে এটিকে মোহনবাগান (যদিও মনোতোষের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি)।' ইমামি ইস্টবেঙ্গলের চিফ টেকনিকাল অফিসার অময় ঘোষণালের উপরও ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অনেকে।

ইস্টবেঙ্গলের প্রথম ম্যাচ

ইস্টবেঙ্গল প্রস্তুতি ম্যাচে মূলত রিজার্ভ দলের ফুটবলারদের খেলিয়েছিল। আক্রমণ, প্রতি আক্রমণে দু’দলের মধ্যে লড়াই একেবারে হয়নি, তা নয়। তবে লাল-হলুদকে একেবারেই উজ্জ্বল দেখায়নি। ইস্টবেঙ্গলের খেলায় প্রস্তুতির অভাব ছিল স্পষ্ট। লাল-হলুদের চেয়ে বরং গোলের সুযোগ বেশি তৈরি করেছিল ডায়মন্ড হারবার এফসি। প্রায় গোটা ম্যাচটাই প্রেস বক্সে বসে দেখেন ইস্টবেঙ্গল কোচ স্টিভেন কনস্ট্যানটাইন। মাঝে-মাঝে হতাশায় মাথা নাড়তেও দেখে গিয়েছে তাঁকে।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলের জল্পনা উড়িয়ে, কৃষ্ণের পথে হেঁটে নিজের পুরনো ক্লাবেই সই সন্দেশের

ম্যাচের পর সহকারী কোচ বিনো জর্জ অবশ্য দলের প্লেয়ারদের উৎসাহ দিতে বলেছেন, ‘সবে ১৫-১৬ দিন হল দলটা তৈরি হয়েছে। ম্যাচ খেলা তো আর চা তৈরির মতো সহজ ব্যাপার নয়। প্রধান কোচকে অনুরোধ করে মূল দল থেকে তিনজন ফুটবলারকে নিয়েছিলাম। তাদের খেলিয়েছি। এই দলেও কয়েকজন ফুটবলার রয়েছে, যারা ভবিষ্যতে সিনিয়র দলে সুযোগ পেতে পারে। তবে কম সময়ে দল তৈরি এবং অনুশীলনের পরেও ফুটবলাররা যা খেলেছে, তাতে আমি খুশি। কনস্ট্যানটাইন নিজে পুরো খেলা দেখেছেন। বিরতিতে তিনি কিছু খেলোয়াড় পরিবর্তন করতে বলেন। কিন্তু হাতে বেশি ফুটবলার না থাকায় তা সম্ভব হয়নি।’

বন্ধ করুন