বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ATK MB শিবিরে গুটি গুটি ঢুকে পড়েছে ডার্বি উন্মাদনা, কী বলছে সবুজ-মেরুন ব্রিগেড?
এটিকে মোহনবাগান।
এটিকে মোহনবাগান।

ATK MB শিবিরে গুটি গুটি ঢুকে পড়েছে ডার্বি উন্মাদনা, কী বলছে সবুজ-মেরুন ব্রিগেড?

  • গত বছর আইএসএলে দু'টোতে ডার্বিতেই এটিকে মোহনবাগানের কাছে হেরেছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। এই বছরও আন্তোনিও লোপেজ হাবাস ব্রিগেড সেই জয়ের ধারাই ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর।

প্রথম ম্যাচে কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে দুরন্ত জয় পেয়েছে এটিকে মোহনবাগান। আর আইএসএলের দ্বিতীয় ম্যাচেই তারা মুখোমুখি হতে চলেছে  এসসি ইস্টবেঙ্গলের। ২৭ নভেম্বর আইএসএলের ডার্বি। আর ভারতীয় ফুটবলের সব ফোকাস এখন ডার্বিকে ঘিরেই। এই ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনার চোরাস্ত্রোত বয়ে চলেছে। ডার্বি কলকাতার বদলে গোয়াতে হলেও, সেই ম্যাচকে ঘিরে উন্মাদনায় এতটুকু ভাটা পড়েনি।

সোমবার থেকে পুরোদমে ডার্বির প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে এটিকে মোহনবাগান। গত বারের ডার্বির জয়ের ধারাটাই এই বছর বজায় রাখতে চায় সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। দলের এক নম্বর গোলকিপার অমরিন্দর সিং যেমন ডার্বি খেলার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। কারণ তিনি কখনও এর আগে ডার্বি খেলেননি। 

অমরিন্দর বলেছেন, ‘এশীয় ফুটবলে কলকাতা ডার্বি অন্যতম বড় ম্যাচ। এই ম্যাচের গুরুত্ব মেরিনার্সদের কাছে কতটা, সেটা খুব ভালো করে জানি। আর সবাইকে খুশি করাটাই তো আমাদের কাজ। প্রথম বার সবুজ-মেরুন জার্সিতে এই ম্যাচ খেলতে নামব ভেবেই উত্তেজনা হচ্ছে। তবে ইস্টবেঙ্গল খুব ভালো দল। ওদের খেলা দেখেছি। বেশ ভালো কিছু ফুটবলার রয়েছে টিমে। তবে আমাদের কাজ হল, কেরল ম্যাচের জয়ের ধারাই ধরে রাখা।’

লিস্টন কোলাসো, যিনিও এই প্রথম বার ডার্বি খেলতে চলেছেন, তিনিও উন্মাদনায় টগবগ করছেন। বলছিলেন, ‘ছোট থেকে ডার্বির কথা শুনেছি। গোয়ার ফুটবলাররা যাঁরা দুই প্রধানে খেলতেন, কোচ যদি খেলান, তবে বহু দিনের ডার্বি খেলার স্বপ্ন পূরণ হবে আমার। ডার্বিতে খেলে গোল করে দলকে জেতাবো। এই স্বপ্ন আমার পূরণ হওয়ার সুযোগ হবে। আর ইস্টবেঙ্গলের খেলা আমি দেখেছি। আমরা যা খেলছি, সেটা খেলতে পারলে, আমরাই জিতব।’

প্রীত কোটাল আর শুভাশিস বসুর আবার বহু ডার্বি খেলার বহু অভিজ্ঞতা রয়েছে। প্রীতম বলেছেন, ‘এই বছর আমরা খেলার ধরন বদলেছি। পিছন থেকে আক্রমণে উঠছি। আক্রমণাত্মক ফুটবলই আমাদের প্রধান অস্ত্র। ১ গোল খেয়ে ৪ গোল দেওয়ার ক্ষমতা আমাদের রয়েছে। আগের ম্যাচে রক্ষণে যে সমস্ত ভুলত্রুটি হয়েছে, সেইগুলো শুধরে নিয়ে ডার্বিতে নামব। আগের ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল ড্র করলেও ভালো খেলেছে। ওদের পেরোসেভিচ প্লেয়ারকে বেশ ভালো লেগেছে। তবে গতবার ওদের দু'বার হারিয়েছি। এই বারও ওদের হারানোর বিষয়ে চূড়ান্ত আত্মবিশ্বাসী।’ 

শুভাশিস আবার দাবি করেছেন, ‘ডার্বি নিয়ে বাড়তি চাপ নিতে চাই না। অন্য ম্যাচের মতোই এই ম্যাচটাকেও দেখব। তবে ভালো ভাবে জানি, এই ম্যাচ জেতার উপর সমর্থকদের কতটা আবেগ জড়িয়ে থাকে। তাই ডার্বিতে সেরাটা দিতে চাই। তাই এই ক'দিন ডার্বি জেতার জন্য প্রস্তুতি চালিয়ে যাব।’

বন্ধ করুন