বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > জামশেদপুর ম্যাচের আগে ATK মোহনবাগানকে নিয়ে ভাবছেন না SC ইস্টবেঙ্গল কোচ
SC ইস্টবেঙ্গল কোচ হোসে ম্যানুয়েল ‘মানোলো’ ডিয়াজ (ছবি:টুইটার)
SC ইস্টবেঙ্গল কোচ হোসে ম্যানুয়েল ‘মানোলো’ ডিয়াজ (ছবি:টুইটার)

জামশেদপুর ম্যাচের আগে ATK মোহনবাগানকে নিয়ে ভাবছেন না SC ইস্টবেঙ্গল কোচ

  • রবিবার ম্যাচে নামার আগে সাংবাদিক বৈঠকে ডার্বি নিয়ে প্রশ্ন করতেই ফুঁসে উঠলেন লাল-হলুদ কোচ। বললেন, ‘আমরা জামশেদপুরের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলব। ডার্বি নয়, আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য প্রথম ম্যাচে জেতা গুরুত্বপূর্ণ।’

রবিবার অষ্টম আইএসএল-এর যাত্রা শুরু করছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। প্রথম ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ জামশেদপুর এফসি। গত বারের ব্যর্থতা কাটিয়ে চলতি মরশুমে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া এসসি ইস্টবেঙ্গল। গত মরশুমে আইএসএল-এ নবম স্থানে শেষ করেছিল লাল-হলুদ ব্রিগেড। তবে নতুন মরশুম নতুন কোচের হাত ধরে নতুন ভাবে শুরু করতে চায় এসসি ইস্টবেঙ্গল। লাল হলুদের নতুন কোচ হোসে ম্যানুয়েল ‘মানোলো’ ডিয়াজকে নিয়ে প্রত্যাশার পারদটাও চড়তে শুরু করেছে। তাই এই বছর শুরুটা দারুণ করতে চান মানোলো। তবে এখনই তিনি ডার্বি নিয়ে ভাবতে চাননা।  

রবিবার ম্যাচে নামার আগে সাংবাদিক বৈঠকে ডার্বি নিয়ে প্রশ্ন করতেই ফুঁসে উঠলেন লাল-হলুদ কোচ। বললেন, ‘আমরা জামশেদপুরের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলব। ডার্বি নয়, আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য প্রথম ম্যাচে জেতা গুরুত্বপূর্ণ। প্রাক-মরশুম প্রস্তুতিতে আমরা সন্তুষ্ট। প্রথম ম্যাচে তাই ভালো খেলতে মুখিয়ে রয়েছি। ইতিহাস অনেক কথাই বলবে। কিন্তু এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে খেলার জন্যেও আমরা তৈরি।’  

কম সময় পেয়েও বিদেশি নিয়োগে দারণ কাজ করেছেন এসসি ইস্টবেহ্গলের বিনিয়োগকারীরা। বিশেষত ড্যানিয়েল চিমাকে নিয়ে মুগ্ধ অনেকেই। মানোলো বললেন, ‘গত বছর সমর্থকদের প্রতি সুবিচার করতে পারিনি আমরা। এ বার নতুন দল হয়েছে। কোচেরাও নতুন। গত বারের থেকে ভাল ফল করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। চিমার সম্পর্কে বলতে পারি, ও খুব ভাল ফুটবলার। নিজে গোল করতে এবং সতীর্থদের দিয়ে গোল করাতে ভালবাসে। ওকে খেলতে দেখার জন্য মুখিয়ে রয়েছি। তবে গোটা দল ভাল না খেললে চিমা একা কিছু করতে পারবে না।’

জামশেদপুর এফসিকে নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছেন লাল হলুদ কোচ। তিনি বলেন, ‘প্রাক-মরসুমে ৩৫টি সেশন করেছি আমরা। প্রত্যেক ফুটবলারের দক্ষতা এবং ক্ষমতা সম্পর্কে আমি জানি। বিভিন্ন পদ্ধতিতে আমরা খেলতে পারি। ম্যাচ জিততেও বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করতে পারি। জামশেদপুর গত বারের বেশিরভাগ ফুটবলারই ধরে রেখেছে। কোচও একই। এখন দেখার গত বারের কৌশলেই ওরা খেলে কিনা।’

বন্ধ করুন