বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ফুটবলারদের প্রায় দেড় কোটির বকেয়া বেতন বাকি, ট্রান্সফার ব্যানের কবলে পড়তে চলেছে SC EB
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

ফুটবলারদের প্রায় দেড় কোটির বকেয়া বেতন বাকি, ট্রান্সফার ব্যানের কবলে পড়তে চলেছে SC EB

  • সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের প্লেয়ার স্ট্যাটাস কমিটির তরফে একটি নতুন চিঠি এসেছে এসসি ইস্টবেঙ্গলের কাছে। সেই চিঠিতে সাতজন প্লেয়ারের বকেয়া বেতন ১ কোটি ৪২ লক্ষ টাকা দেওয়ার জন্য লাল-হলুদকে বলা হয়েছে।। যদি এই বেতন লাল-হলুদ না মেটায়, তবে পরের তিন ট্রান্সফার উইন্ডোতে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হবে তাদের।

গত কয়েক মাস আগে একাধিক প্রাক্তন খেলোয়াড়দের বকেয়া বেতন না মেটানোয় শাস্তির মুখে পড়েছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। এ বার আবারও একই পরিস্থিতির মুখে পড়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড। ট্রান্সফার ব্যানের কবলে পড়তে চলেছে লাল-হলুদ ব্রিগেড।

সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের প্লেয়ার স্ট্যাটাস কমিটির তরফে একটি নতুন চিঠি এসেছে এসসি ইস্টবেঙ্গলের কাছে। সেই চিঠিতে সাতজন প্লেয়ারের বকেয়া বেতন ১ কোটি ৪২ লক্ষ টাকা দেওয়ার জন্য লাল-হলুদকে বলা হয়েছে।। যদি এই বেতন লাল-হলুদ কর্তারা না মেটান, তা হলে পরের তিন ট্রান্সফার উইন্ডোতে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হবে এসসি ইস্টবেঙ্গলকে।

কেভিন লোবো, রিনো অ্যান্টো, সিকে বিনীত, ইউজিনসেন লিংডো, গিরিক খোসলা, কিগান পেরেরা এবং অনিল চৌহানকে মিলিয়ে মোট ১ কোটি ৪২ লক্ষ টাকা বেতন বকেয়া রয়েছে। আর এই টাকা ৪৫ দিনের মধ্যে ফেরত দিতে লাল-হলুদকে। আর যদি না দিতে পারে, সে ক্ষেত্রে তো ট্রান্সফার ব্যানের কবলে পড়বে এসসি ইস্টবেঙ্গল। আর এ রকম কিছু ঘটলে, দেশি-বিদেশি কোনও প্লেয়ারকেই সই করাতে পারবে না লাল-হলুদ ব্রিগেড।

রিনো অ্যান্টো, সিকে বিনীত,কিগান পেরেরারা এসসি ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে টাকা না মেটানোর অভিযোগ নিয়ে ফেডারেশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাঁরা ২০২০ সালে ইস্টবেঙ্গলে সই করেন। সেই বছর সেপ্টেম্বরে শ্রী সিমেন্ট লাল-হলুদের দায়িত্ব নেয়। কিন্তু ক্লাব বা শ্রী সিমেন্ট কেউই এই সাত ফুটবলারের বকেয়া টাকা এখনও মেটায়নি। বিষয়টি পিএসসি-তে যায়।

বন্ধ করুন