বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > জিততে না পারলেও ডার্বির আগে জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকল SC ইস্টবেঙ্গল

জিততে না পারলেও ডার্বির আগে জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকল SC ইস্টবেঙ্গল

জামশেদপুরের সঙ্গে ড্র করল  SC ইস্টবেঙ্গল (ছবি:টুইটার)

সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়ে ম্যাচে প্রথমে লিড নিলেও শেষরক্ষা হল না অরিন্দমদের। ম্যাচ ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচ শেষ করল এসসি ইস্টবেঙ্গল।

শুভব্রত মুখার্জি: আইএসএলের দ্বিতীয় মরশুমেও শুরুটা ভালো হল না লাল হলুদ শিবিরের। চলতি আইএসএলে তিলক ময়দানে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল এবং জামশেদপুর এফসি। এদিন সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়ে ম্যাচে প্রথমে লিড নিলেও শেষরক্ষা হল না অরিন্দমদের। ম্যাচ ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচ শেষ করল এসসি ইস্টবেঙ্গল।

ম্যাচের দুটি গোল এল প্রথমার্ধে। ১৮ তম মিনিটে ভাল্সকিসের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে হার্টলের গোলে সমতা ফেরায় জামশেদপুর। দ্বিতীয়ার্ধে আর কোন গোল না হওয়াতে ওই ফলেই শেষ হয় খেলা। এদিন ১৭ তম মিনিটে এসসি ইস্টবেঙ্গল একটি কর্নার পায়। গোলকিপার রেহেনেশ পাঞ্চ করে বল ফিরিয়ে দিলেও পেরিসেভিচ ফের বক্সের মধ্যে ক্রস রাখেন সেখান থেকে ফ্রাঞ্জোর নেওয়া শট ভাল্সকিসের পায়ে লেগে জামশেদপুর এফসির জালে বল জড়িয়ে যায়।

প্রথমার্ধের ৪৫ মিনিটের পরে আরও তিন মিনিট যোগ করা হয়। এই যোগ করা সময়তেই সমতায় ফেরে জামশেদপুর। একটি কর্ণার থেকে জামশেদপুর এফসির অধিনায়ক হার্টলে হেড করে সমতা ফেরান। বিরতিতে জামশেদপুর কোচ কয়েল দুটি আক্রমণাত্মক পরিবর্তন করেন। পন্ডিতা এবং কোমল থাটালকে নামানো হয় প্রণয় হালদার এবং বরিসের বদলে। ম্যাচের ৫০ তম মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ডটি দেখেন সৌরভ দাস। ৬০ মিনিটে জোড়া পরিবর্তন করেন ইস্টবেঙ্গল কোচ মানেলো ডিয়াজ। জ্যাকিচাঁদ এবং ডেরভিসেচকে নামানো হয় নামতে এবং চিমার বদলে। ৭১ মিনিটে আনগুর বদলে নামানো হয় অমরজিৎকে। লক্ষ্য অবশ্যই ম্যাচ থেকে পুরো পয়েন্ট নেওয়া। তবে সেভাবে আক্রমণ তুলে আনতে ব্যর্থ হন তারা। ম্যাচের শেষে পাঁচ মিনিট অতিরিক্ত সময় যোগ করা হলেও ইস্টবেঙ্গলের স্ট্রাইকাররা জামশেদপুরের ডিফেন্স ভাঙতে সক্ষম হননি। ফলে প্রথম ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করেই সন্তুষ্ট থাকতে হল ইস্টবেঙ্গলকে।

বন্ধ করুন