বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > দলের কোথায় কোথায় পরিবর্তন দরকার, SC EB-র অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হয়ে জানালেন রেনেডি
রেনেডি সিং।
রেনেডি সিং।

দলের কোথায় কোথায় পরিবর্তন দরকার, SC EB-র অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হয়ে জানালেন রেনেডি

  • দিয়াজের বিদায়ের পর ক্লাব কর্তারা তাঁকে আপাতত দলের দায়িত্ব তুলে দিয়েছে। আর অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দায়িত্ব পেয়েই ফুটবলারদের নিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়েছেন রেনেডি। কোচ-বিদায়ের খবরে যাতে দলের ফুটবলারদের মধ্যে মানসিক সমস্যা না হয়, সেটাই আপাতত রেনেডির প্রথম কাজ।

স্প্যানিশ কোচ হোসে ম্যানুয়েল দিয়াজ দায়িত্ব ছেড়ে চলে যাওয়ার পরে এখন এসসি ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্ব তাঁর কাঁধেই। এই গুরু দায়িত্ব নিতে অবশ্য কোনও আপত্তি নেই প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের। বিন্দুমাত্র চাপেও ভুগছেন না তিনি। কারণ, রেনেডি সিং জানেন, তিনি চাপে ভুগলে তাঁর বিপর্যস্ত দল আরও চাপে পড়ে যাবে। বরং রেনেডিই এখন সাহস জোগাচ্ছেন দলের ছেলেদের, যাতে তাঁরা জয়ের রাস্তায় পা রাখতে পারেন।

দিয়াজের বিদায়ের পর ক্লাব কর্তারা তাঁকে আপাতত দলের দায়িত্ব তুলে দিয়েছে। আর অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দায়িত্ব পেয়েই ফুটবলারদের নিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়েছেন রেনেডি। কোচ-বিদায়ের খবরে যাতে দলের ফুটবলারদের মধ্যে মানসিক সমস্যা না হয়, সেটাই আপাতত রেনেডির প্রথম কাজ। আগামী মঙ্গলবার লাল-হলুদ বাহিনীর পরবর্তী ম্যাচ বেঙ্গালুরু এফসি-র বিরুদ্ধে। তার আগে দল গুছিয়ে নেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই কাজ শুরু করে দিলেন প্রাক্তন ইস্টবেঙ্গল তারকা। এটাই এখন তাঁর কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

এই চ্যালেঞ্জ নিয়ে রেনেডি এসসি ইস্টবেঙ্গলের ওয়েবসাইটে বলেছেন, ‘নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে আমরা ভাল খেলতে পারিনি ঠিকই, তবে আমাদের দল ওই ম্যাচে লড়াই করেছে। ছেলেদের কৃতিত্ব দিতেই হবে। কারণ, গত দুটো ট্রেনিং সেশনে ওরা নিজেদের একশো শতাংশ দিয়েছে। এ রকম লড়াকু মানসিকতা যদি ওরা ম্যাচেও দেখাতে পারে, তা হলে আমি নিশ্চিত, ভাল ফল আসবেই।’ 

জীবনে যেমন অনেক কঠিন ম্যাচ খেলেছেন, তেমনই অনেক কঠিন পরিস্থিতিও সামলেছেন। এই চ্যালেঞ্জ সামলানোর জন্য নিজের অভিজ্ঞতাকেই কাজে লাগাতে চান রেনেডি। তাঁর মতে, ‘যখন আমরা হারি, তখন দল মানসিক ভাবে পিছিয়ে পড়ে। কিন্তু তা সত্ত্বেও আমরা আইএসএল টেবলের ওপরের দিকে থাকা দলগুলো, যেমন কেরালা ব্লাস্টার্স, জামশেদপুর, হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে যথেষ্ট ভাল খেলেছি। এ থেকেই বোঝা যায়, লিগ টেবলে আমরা যে জায়গায় রয়েছি, সেখানে থাকার মতো দল আমাদের নয়। তাই ছেলেদের বলেছি, প্রত্যেক ম্যাচকেই তাদের শেষ ম্যাচ হিসেবে দেখতে। চাপটা সামলে নিতে পারলে এই দলের আরও ভাল খেলার ক্ষমতা আছে বলেই আমার বিশ্বাস।’

প্রথম আট ম্যাচের একটিতেও জয় না পাওয়ায় দলে এ বার কৌশল বদলানো প্রয়োজন বলে মনে করেন রেনেডি। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের দলের শেপ ঠিক রাখতে হবে। একটা দল হিসেবে খেলতে হবে। ডিফেন্স থেকে অ্যাটাকে ওঠা ও নামায় আরও উন্নতি করতে হবে। এসসি ইস্টবেঙ্গল যেখানেই খেলেছে, যথেষ্ট উঁচু স্তরে খেলেছে এবং সর্বদা লিগ টেবলের ওপর দিকে থেকেছে। তাই সমর্থকদের এই পরিস্থিতি মেনে নেওয়াটা বেশ কঠিন, আমি জানি। তবু আমি সমর্থকদের অনুরোধ করব, যাতে তাঁরা আমাদের সমর্থন করে যান। আমরা ভাল না খেলা সত্ত্বেও সমর্থকেরা আগেও আমাদের সমর্থন করেছেন। তাই ছেলেদের বলেছি, সমর্থকদের জন্যই নিজেদের নিঙড়ে দাও।’

বন্ধ করুন