বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ‘তিনটি সেটপিস-ই পার্থক্য গড়ে দিল’, গোল করেও দলকে জেতাতে না পারায় হতাশ সিডোয়েল
গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন সিডেোয়েল, তবু জিততে পারল না লাল-হলুদ।
গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন সিডেোয়েল, তবু জিততে পারল না লাল-হলুদ।

‘তিনটি সেটপিস-ই পার্থক্য গড়ে দিল’, গোল করেও দলকে জেতাতে না পারায় হতাশ সিডোয়েল

  • মঙ্গলবার লাল-হলুদ রক্ষণের নগ্ন চেহারাটা একেবারে টেনে বের করে দিল ওড়িশা এফসি। এ দিন ম্যাচে ১-০ এগিয়ে গিয়েও একের পর এক গোল হজম করতে হয়েছে ইস্টবেঙ্গল। নিজেরা গোলশোধ করেও পাল্টা গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়েছে। যার পরিণাম, নিজেদের সম্মান ধুলিসাৎ করে ৪-৬ ম্য়াচ হেরে মাঠে ছেড়েছেন ম্যানুয়েল দিয়াজের ছেলেরা।

আইএসএলের প্রথম ম্যাচ থেকেই এসসি ইস্টবেঙ্গলের রক্ষণ নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। ডার্বির পর তো লাল-হলুদের ডিফেন্স নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে চলেছে। আর মঙ্গলবার লাল-হলুদ রক্ষণের নগ্ন চেহারাটা একেবারে টেনে বের করে দিল ওড়িশা এফসি। এ দিন ম্যাচে ১-০ এগিয়ে গিয়েও একের পর এক গোল হজম করতে হয়েছে ইস্টবেঙ্গল। নিজেরা গোলশোধ করেও পাল্টা গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়েছে। যার পরিণাম, নিজেদের সম্মান ধুলিসাৎ করে ৪-৬ ম্য়াচ হেরে মাঠে ছেড়েছেন ম্যানুয়েল দিয়াজের ছেলেরা।

ম্যাচের পরে ড্যারেন সিডোয়েলের গলায় হতাশা ছিল স্পষ্ট। প্রথমে গোলের মুখ খুলেছিলেন সিডোয়েলই। তার পর তিনটে সেটপিস থেকে তিন গোল করে বিরতির আগেই ৩-১ এগিয়ে যায় ওড়িশা এফসি। এর পর দ্বিতীয়ার্ধে ওড়িয়া আরও ৩ গোল দেয়। এসসি ইস্টবেঙ্গল কিন্তু তিনটে গোলশোধ করেছিল। তাও ২ গোলের ব্যবধান থেকেই গিয়েছে। ম্যাচ হেরে ঘুরিয়ে কিন্তু রক্ষণের দিকেই আঙুল তুলেছেন সিডোয়েল।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা শুরুতে ১-০ এগিয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু তার পরেই তিনটে সেটপিস থেকে গোল হয়ে গেল। বিরতিতেই ১-৩ পিছিয়ে পড়ি। তার পর সেখান থেকে ফিরে আসার লড়াইটা সহজ ছিল না।’ শুক্রবার চেন্নাইয়িনের বিরুদ্ধে ম্যাচ রয়েছে লাল-হলুদের। পরপর দুই ম্যাচ বাজে ভাবে হারের ধাক্কা কাটিয়ে ওঠাটা কতটা কঠিন হবে? সিডোয়েন বলেছেন, ‘নিঃসন্দেহে লড়াইটা কঠিন হবে। আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। আর তিন পয়েন্ট পেতেই হবে। এর বাইরে ভাবার কোনও জায়গা নেই।’

বন্ধ করুন