বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > সৃঞ্জয়-দেবাশিসের পদত্যাগের দাবি, ATK হাটাও মোহনবাগান বাঁচাও স্লোগান সমর্থকদের
ক্ষুব্ধ সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা।
ক্ষুব্ধ সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা।

সৃঞ্জয়-দেবাশিসের পদত্যাগের দাবি, ATK হাটাও মোহনবাগান বাঁচাও স্লোগান সমর্থকদের

  • এমনিতেই ক্লাবের নামের সঙ্গে এটিকে-র সংযুক্তিকরণ নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন সবুজ-মেরুন সদস্য-সমর্থকেরা। তার উপর আবার এটিকে মোহনবাগানের অন্যতম ডিরেক্টর উৎসব পারেখ এক সাক্ষাৎকারে বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন। তিনি বলেন, মোহনবাগান নিজেদের ক্ষমতায় কোনও দিন এএফসি কাপে খেলতে পারেনি।

মোহনবাগান থেকে এটিকে-কে আলাদা করতে হবে। এই দাবি নিয়ে নতুন করে সরব সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা। এই নিয়ে তারা নতুন করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছে। এমন কী নিজেদের দাবি নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রায় ১০০ জন সদস্য-সমর্থক প্রেস ক্লাবে জমায়েত হয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন। তাঁদের একটাই দাবি, এটিকের সঙ্গে গাঁটছড়া ভেঙে দিতে হবে। ১৩২ বছরের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসকে সঙ্গী করেই মোহনবাগান স্বতন্ত্র ক্লাব  হিসেবে মাঠে নামবে। কোনও ক্লাবের সঙ্গে মার্জারের পরিবর্তে সঠিক কোনও ইনভেস্টর নিয়ে আসতে হবে ক্লাব কর্তাদের।

এমনিতেই ক্লাবের নামের সঙ্গে এটিকে-র সংযুক্তিকরণ নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন সবুজ-মেরুন সদস্য-সমর্থকেরা। তার উপর আবার এটিকে মোহনবাগানের অন্যতম ডিরেক্টর উৎসব পারেখ এক সাক্ষাৎকারে বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন। তিনি বলেন, মোহনবাগান নিজেদের ক্ষমতায় কোনও দিন এএফসি কাপে খেলতে পারেনি। তাই বিরোধিতা ছেড়ে সব মোহনবাগান সমর্থকদের উচিত এটিকে মোহনবাগানকে সমর্থন করা। আর তাঁর এই মন্তব্যের পরেই যেন আগুনে ঘি পড়ে।

শুধু এটিকে-র সঙ্গে সঙ্গে মার্জার ভাঙাই নয়, তাঁরা দাবি করেছেন, মোহনবাগান ক্লাব ফিরিয়ে দিতে না পারলে পদত্যাগ করুক এটিকে মোহনবাগানের দুই ডিরেক্টর সৃঞ্জয় বসু এবং দেবাশিস দত্ত। সুমিত ঘোষ নামে এক সমর্থকের দাবি, ‘আমাদের ভুল বুঝিয়ে মিথ্যে আশ্বাস দিয়ে, এটিকের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধা হয়েছে। আমরা চুক্তিপত্র দেখতে চেয়েছিলাম। সেটাও দেখানো হয়নি। কেন আমাদের লোগো ব্যবহার করা হবে না? ১৩২ বছরের একটি ক্লাব নাকি এটিকের নামে নথিভুক্ত। এটা কি ছেলেখেলা হচ্ছে? বলা হচ্ছে আমরা তিন বছরের ক্লাব। ১৩২ বছরের ইতিহাস কি আমরা ভুলে যাব? আমাদের ক্লাব ফিরিয়ে দিতে হবে। নয়তো এই আওয়াজ থামবে না। এটিকে মোহনবাগান ১০ জুলাই ২০২০ তে গঠিত হয়েছে। আমাদের মোহনবাগান জার্সি ধার নিয়ে খেলা ক্লাবের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ত্যাগ করছি।’

বন্ধ করুন