বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ইস্টবেঙ্গলের চুক্তি জট নিয়ে প্রকাশ্যে মতবিরোধ দুই প্রাক্তন ফুটবলার সুভাষ-মনোরঞ্জনের
ঝামেলায় জড়ান মনোরঞ্জন এবং সুভাষ।

ইস্টবেঙ্গলের চুক্তি জট নিয়ে প্রকাশ্যে মতবিরোধ দুই প্রাক্তন ফুটবলার সুভাষ-মনোরঞ্জনের

  • শুক্রবার সকালে ইস্টবেঙ্গলের ‘স্পোর্টস ডে’তে শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে চুক্তিপত্রে সই করা নিয়ে দুই প্রাক্তনীর মতবিরোধ প্রকাশ্যে চলে আসে। পরিস্থিতি এতটাই বাজে পর্যায়ে পৌঁছে যায় যে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন দুই কিংবদন্তি ফুটবলার।

শুভব্রত মুখার্জি: লাল হলুদ শিবিরে কর্তা বনাম ইনভেস্টর বিরোধ দীর্ঘ দিনের। আদৌ সেই বিরোধ কেটে শেষ পর্যন্ত ইস্টবেঙ্গল এই বছর ফুটবল খেলতে পারবে কি না, সেই নিয়ে এখনও সন্দেহ রয়ে গিয়েছে। চুক্তিপত্র বিবাদ মেটাতে ক্লাব কর্তারা প্রাক্তনীদের দ্বারস্থ হন। চুক্তিপত্রে ইস্টবেঙ্গল আদৌ সই করবে কিনা, তা সময় বলবে। তবে তার আগে চুক্তিবিবাদ মেটাতে গিয়ে ক্লাবের দুই প্রাক্তন ফুটবলার সুভাষ ভৌমিক ও মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য নিজেদের মধ্যেই ঝামেলাতে জড়িয়ে পড়লেন।

তাদের মতবিরোধ একেবারে প্রকাশ্যে চলে এল। ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন সচিব প্রয়াত দীপক দাস, যিনি পল্টু দাস নামেই বেশি জনপ্রিয়, তার জন্মদিন উপলক্ষে শুক্রবার সকালে ‘স্পোর্টস ডে’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল লাল হলুদ ক্লাব তাঁবুতে। সেই অনুষ্ঠানের মঞ্চেই শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে চুক্তিপত্রে সই করা নিয়ে দুই প্রাক্তনীর মতপার্থক্য প্রকাশ্যে এল। পরিস্থিতি এতটাই বাজে পর্যায়ে পৌছে যায় যে কথা কাটাকাটি জড়িয়ে পড়েন দুই প্রাক্তন কিংবদন্তি ফুটবলার।

মনোরঞ্জনের বক্তব্য ছিল ক্লাবের উচিত চুক্তিপত্রে সই করা। যার উল্টো মত পোষণ করেন সুভাষ ভৌমিক। মতপার্থক্যের কথা মেনে নিলেও প্রকাশ্যে দুই কিংবদন্তির মধ্যে কি কথা হয়েছে সেই ব্যাপারে কেউ মুখ খোলেননি। সুভাষ ভৌমিকও এই বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বন্ধ করুন