বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > এক সময়ের সতীর্থ এরিকসেনের পরিস্থিতি দেখে মাঠে নামা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন ডাচ তারকা
আয়াক্সের অনুশীলনে ব্লিন্ড, এরিকসেন ও সুয়ারেজ। ছবি- টুইটার।
আয়াক্সের অনুশীলনে ব্লিন্ড, এরিকসেন ও সুয়ারেজ। ছবি- টুইটার।

এক সময়ের সতীর্থ এরিকসেনের পরিস্থিতি দেখে মাঠে নামা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন ডাচ তারকা

  • ইউক্রেনের বিরুদ্ধে মাঠ ছাড়ার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন ডেলি ব্লিন্ড।

কোপেনহেগেনের মাঠে ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের হঠাৎ করে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ে যাওয়ার ঘটনার আকস্মিকতা এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি গোটা বিশ্ব। তাঁর প্রাক্তন ও বর্তমান সতীর্থদের কাছেও বিষয়টা মেনে নেওয়া যে কতটা কঠিন,তারই দেখা মিলল নেদারল্যান্ডস বনাম ইউক্রেন ম্যাচে।

ডাচ দলের তারকা ডিফেন্ডার ডেলি ব্লিন্ড ম্যাচের ৬৪ মিনিট খেলার পর কোচ ফ্রাঙ্ক ডি'বোর তাঁর পরিবর্তে নেথেন অ্যাকেকে মাঠে নামানোর সিদ্ধান্ত নেন। তখনই মাঠ ছেড়ে বেরোনোর সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্লিন্ড। প্রায় একই সময়ে আয়াক্সের অ্যাকাডেমি হয়ে সিনিয়র দলে খেলা শুরু করেন দুইজনে। নেদারল্যান্ডসের বিখ্য়াত ক্লাবের হয়ে একসঙ্গে খেতাবও জেতেন। তাই সম্ভবতই প্রাক্তন সতীর্থর এমন ঘটনা মনে গভীর প্রভাব সৃষ্টি করে ডাচ তারকার।

এরিকসেনের ঘটনার বিষয়ে ব্লিন্ড বলেন, ‘গতকালের ঘটনা আমার ওপর বিশাল প্রভাব ফেলে। শুধুমাত্র যে ও আমার কাছের বন্ধু তাই জন্যই নয়, আমি নিজেও এই বিষয়ে ভুক্তভুগী। তাই মানসিকভাবে আমাকে অনেকটা বাধা অতিক্রম করেই আজকের ম্যাচে মাঠে নামতে হয়।’

গত বছর হৃদরোগজনিত সমস্যার কারণেই অনেকটা একইরকমভাবে মাঠের মধ্যে পরে যান ব্লিন্ড। পরে সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরে আয়াক্সের সঙ্গে লিগ খেতাবও জেতেন বছর ৩১-র ডিফেন্ডার। ডাচ দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার তিনি। তবে প্রাথমিকভাবে মাঠে নামা নিয়ে সন্দিহান থাকলেও এরিকসেনের অনুপ্রেরণায় তাঁর জাতীয় দলের সতীর্থদের মাঠে নামতে দেখেই নিজের মত বদলান বলে জানান ব্লিন্ড।

‘আমি ম্যাচে না খেলার কথা ভেবেছিলাম। টেলিভিশনে ওই ঘটনার ছবিগুলো আমার ওপর গভীর প্রভাব ফেলে। রাতে ঠিক করে ঘুমোতেও পারিনি আমি। তবে যখন ক্রিশ্চিয়ান ওর সতীর্থদের মাঠে নামার জন্য অনুপ্রাণিত করে, তারপরেই আমি খেলার সিদ্ধান্ত নিই।’ বলেন ব্লিন্ড।

বন্ধ করুন