বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > EURO 2020: ম্যাচে নামার আগে ড্যানিশ গোলরক্ষকের মন্তব্যে মাঠের বাইরেই শুরু ইংল্যান্ড-ডেনমার্ক লড়াই
ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে অনুশীলনরত ক্যাসপার স্মাইকেল। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে অনুশীলনরত ক্যাসপার স্মাইকেল। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

EURO 2020: ম্যাচে নামার আগে ড্যানিশ গোলরক্ষকের মন্তব্যে মাঠের বাইরেই শুরু ইংল্যান্ড-ডেনমার্ক লড়াই

  • ইংল্যান্ডেই নিজের ফুটবল কেরিয়ারের সিংহভাগ সময় কাটিয়েছেন জুনিয়র স্মাইকেল।

ইউরোর দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ডেনমার্ক ও ইংল্যান্ড। একদিকে ইংল্যান্ডের সামনে রয়েছে দশকের পর দশক ধরে হতাশার গ্লানি দূর করার সুযোগ, তো অন্যদিকে ২৯ বছর আগের ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে আগ্রহী ডেনমার্ক।

সেইবার ডেনমার্কের পোস্টের নীচে দুর্গ সামলানোর দায়িত্বভার ছিল পিটার স্মাইকেলের ওপর। এবার ঘটনাক্রমে ড্যানিশ গোল আগলাবেন তাঁর পুত্র ক্যাসপার। নিজের ক্লাব ফুটবল কেরিয়ারের প্রায় পুরোটাই ইংল্যান্ডে কাটালেও ম্যাচের আগে ইংল্যান্ড দল বা বলা ভাল ইংলিশ মিডিয়াকে তাদের দলের হতাশাজনক ইতিহাসের কথা মনে করিয়ে দেওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করলেন না ড্যানিশ গোলরক্ষক।

ঘটনার সূত্রপাত এক সাংবাদিকের তরফ থেকে। ইংল্যান্ড ফুটবলের বিখ্যাত উক্তি ‘ইটস কামিং হোম (ওটা ঘরে আসছে)’-কে কেন্দ্র করে ওই রিপোর্টার জানতে চান ট্রফি শেষমেশ ইংল্যান্ডের ঘরেই আসতে চলেছে কিনা। জবাবে কোনসময় নষ্ট না করেই স্মাইকেলের সপাট জবাব, ‘কখনও কি ওটা আদৌ ঘরে এসছে? আমার তো জানা নেই। কখনও তোমরা এই টুর্নামেন্ট জিতেছ?’ উত্তরে সাংবাদিক ৬৬ সালের বিশ্বজয়ের কথা বলায় সঙ্গে সঙ্গেই তার উত্তর স্মাইকেল বলেন, ‘৬৬ সালের জয় তো বিশ্বকাপে এসেছিল তাই নয় কি?’

মাস দুয়েক আগেই সেমিফাইনালের মাঠ ওয়েম্বলিতেই তাঁর ক্লাব লেস্টার সিটির হয়ে ঐতিহাসিক এফএ কাপের খেতাব জিতেছিলেন স্মাইকেল। ইতিমধ্যেই বাবার দেখানো পথে এফএ কাপের পাশপাশি প্রিমিয়র লিগ জয়ের কৃতিত্বও রয়েছে ৩৪ বছর বয়সী গোলরক্ষকের ঝুলিতে। এবার জাতীয় দলের হয়ে স্মাইকেলসহ ড্যানিশ ফুটবলাররা ইউরো জয়ের নজির গড়তে পারেন কিনা এখন সেটাই দেখার বিষয়।

বন্ধ করুন