বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > EURO 2020: হ্যারি কেনের পেনাল্টি নিয়ে বিতর্ক, ইংল্যান্ডের জয় নিয়ে উঠল প্রশ্ন
রাহিম স্টার্লিং-কে করা বিতর্কিত ফাউল। ছবি- গেটি ইমেজেস।
রাহিম স্টার্লিং-কে করা বিতর্কিত ফাউল। ছবি- গেটি ইমেজেস।

EURO 2020: হ্যারি কেনের পেনাল্টি নিয়ে বিতর্ক, ইংল্যান্ডের জয় নিয়ে উঠল প্রশ্ন

  • ১০৪ মিনিটে হ্যারি কেনের পেনাল্টিতে ফাইনালের টিকিট পাকা করে ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডের সাম্প্রতিক ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ও গৌরবের রাতের জৌলুস কিছুটা হলেও ফিকে করে দিল একটি বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। ডেনমার্ক-ইংল্যান্ডের সেমিফাইনাল নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর অমীমাংসিত শেষ হওয়ায় অতিরিক্ত সময়ে গড়ায়। 

১০৪ মিনিটে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেন পেনাল্টি থেকে গোল করে ৫৫ বছর ফাইনালের টিকিট সুনিশ্চিত করেন। ইংল্যান্ড ম্যাচটি জিতে নেয় ২-১ গোলে। তবে এই পেনাল্টি ঘিরেই উঠেছে সমালোচনার ঝড়। ইংল্যান্ড উইঙ্গার দুরন্তভাবে পেনাল্টি বক্সে বল নিয়ে গেলে জোয়াকিম মেইলা তাঁকে ফাউল করায় রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নেন। ভিএআরও সিদ্ধান্ত বহাল রাখে।

তবে হাইলাইটসে দেখা যায় মেইলা স্টার্লিং-এর তেমন কোন সংঘর্ষ তো হয়ইনি, উল্টে তাঁদের সংঘর্ষের আগেই ইংল্যান্ডের উইঙ্গার নিজের ভারসাম্য হারিয়ে মাটিতে পড়ে যাচ্ছিলেন। শেষ পর্যন্ত হ্যারি কেনেপ পেনাল্টি স্পট থেকে শট ক্য়াসপার স্মাইকেল প্রথমবার বাঁচিয়ে দিলেও ফিরতি বল জালে জড়িয়ে দেন কেন।

ইংল্যান্ডের এই জয়ে গোটা দেশ আনন্দে মাতলে একাধিক বিশেষজ্ঞ থেকে সমর্থক কিছুতেই রেফারির এই সিদ্ধান্ত মেনে নিচতে পারছেন। প্রাক্তন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড তারকা মাইকেল সুয়ার্টের ঘটনাটিকে ‘চরম লাঞ্চনা’র আখ্যা দেন, তো কেউ কেউ আবার স্টালিংয়ের ‘ডাইভ’ নিয়ে ক্ষুব্ধ। সাড়ে পাঁচ দশক পরে এখনও অবধি ইংল্যান্ড ফুটবলের সবচেয়ে গৌরবের রাতেও তাই জয়ের উচ্ছ্বাসকে কিছুটা হলেও ফেকাসে করে দিল এই বিতর্ক।

বন্ধ করুন