বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ফিফা অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা ফুটবল বিশ্বকাপেই ভারতে 'অভিষেক' ভার প্রযুক্তির
প্রতীকী ছবি

ফিফা অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা ফুটবল বিশ্বকাপেই ভারতে 'অভিষেক' ভার প্রযুক্তির

  • ১৫ অগস্টে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের উপর চাপানো ফিফার নির্বাসন ১১ দিনে উঠে গিয়েছে। সেই নির্বাসন ওঠায় আগামী অক্টোবরে ভারতে অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপ হতে আর কোন বাধা নেই।

শুভব্রত মুখার্জি: দীর্ঘ টালবাহানার পরে অবশেষে ভারতেই অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর বসতে চলেছে। প্রথমে করোনা এবং পরবর্তীতে ভারতীয় ফুটবলের উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল তাতেই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল ভারতের মাটিতে ফুটবলের রাজসূয় যঞ্জের আয়োজন। তবে আশঙ্কার সব মেঘ কেটে গিয়েছে। এবার পুরো দমে বিশ্বকাপ আয়োজনের বিষয়ে ব্যস্ত এআইএফএফ। আর তার মাঝেই ভারতীয় ফুটবলের জন্য এল আরেক সুখবর। ফিফা অনুর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপের হাত ধরেই এবার ভারতে 'অভিষেক' হতে চলেছে 'ভার' (ভিডিয়ো অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি) প্রযুক্তির।

আরও পড়ুন: ‘নাসিম ফিট থাকলে পাকিস্তান কী জিতত?’ মজার জবাব দিলেন রবীন্দ্র জাদেজা

১৫ অগস্টে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের উপর চাপানো ফিফার নির্বাসন ১১ দিনে উঠে গিয়েছে। সেই নির্বাসন ওঠায় আগামী অক্টোবরে ভারতে অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপ হতে আর কোন বাধা নেই। আর এবার এই বিশ্বকাপের হাত ধরেই ভারতে প্রথমবার ব্যবহৃত হতে চলেছে এই নয়া প্রযুক্তি। পাশাপাশি উল্লেখ্য এই ১ম বার বয়সভিত্তিক কোনও বিশ্বকাপে ভিডিয়ো অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভার) প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এর আগে ফিফাও কোনও বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় এই 'ভার' প্রযুক্তির ব্যবহার করেনি। মঙ্গলবার ফিফার তরফে এই বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফুটবলের মক্কা কলকাতাতে এই বিশ্বকাপের কোনও ম্যাচ হচ্ছে না। ভুবনেশ্বর, মারগাঁও এবং নবি মুম্বইয়ে অনূর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের ম্যাচগুলি আয়োজন করা হবে।

ফিফার মহিলা রেফারি বিভাগের প্রধান কারি সাইৎজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন 'ম্যাচ পরিচালনা এবং রেফারিদের গুণমানের বিষয়টি যাচাই করতে এবং তাদের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জোগাড় করার মঞ্চ হিসেবে এই বিশ্বকাপকে কাজে লাগাতে চাইছি আমরা। এবারই প্রথম অনূর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপে ভার প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। বিশ্বকাপে মহিলা ভিডিয়ো অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি হিসেবে যারা থাকছে এটা তাঁদের কাছে দারুণ সুযোগ। আমাদের প্রধান লক্ষ্য ২০২৩ মহিলা বিশ্বকাপে সফলভাবে এই প্রযুক্তির ব্যবহার ঘটানো।'

'ভার' ফুটবলে ব্যবহত নবতম প্রযুক্তি। এটির ব্যবহার সাধারণত ৪টি ক্ষেত্রেকরা হয়—

১) গোল বা গোলের সুযোগ তৈরির সময় বাধা দেওয়া হলে

২) পেনাল্টি দেওয়ার সিদ্ধান্ত বা পেনাল্টির আগে অবৈধ ভাবে বাধা দেওয়া হলে

৩) সরাসরি লাল কার্ডের ক্ষেত্রে অথবা

৪) ভুল ফুটবলারকে কার্ড দেখানো হলে।

--ম্যাচ চলাকালীন এই চারটি বিষয় কড়া নজরে রাখে 'ভার' প্রযুক্তির দায়িত্বে থাকা দল। অনফিল্ড রেফারির সিদ্ধান্ত ভুল হলে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করার নির্দেশ বা উপদেশ দেওয়া হয় তাকে। পুরুষ ফুটবলে ভারের ব্যবহার দীর্ঘদিন ধরেই হচ্ছে। তবে মহিলাদের ফুটবলে এখনও সেইভাবে ব্যবহার করা হয়নি এই প্রযুক্তি।

বন্ধ করুন