বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > WC Qualifiers: ব্রাজিল-আর্জেন্তিনা মহারণে আদপেও কি দেখা মিলবে মেসি-নেইমারের?
জাতীয় দলের জার্সি গায়ে লিওনেল মেসি ও নেইমার। ছবি- রয়টার্স।
জাতীয় দলের জার্সি গায়ে লিওনেল মেসি ও নেইমার। ছবি- রয়টার্স।

WC Qualifiers: ব্রাজিল-আর্জেন্তিনা মহারণে আদপেও কি দেখা মিলবে মেসি-নেইমারের?

  • সোমবার মধ্যরাতে বিশ্বকাপের যোগ্যতাপর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবলপাগল দেশ।

কোপা আমেরিকায় মাত্র মাস দু'য়েক আগেই মারাকানায় ব্রাজিলের স্বপ্নভঙ্গ করে প্রথম আন্তর্জাতিক খেতাব জিতেছিলেন লিওনেল মেসি। ম্যাচ শেষে কান্নায় ভেঙে পড়লেও কিছুক্ষণ পরেই সাজঘরে মেসির সঙ্গে খোশমেজাজে আড্ডা দিতে দেখা যায় নেইমারকে। তারপর অল্প সময়েই ফুটবলবিশ্বে অনেক বদল ঘটে গিয়েছে। বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিস সাঁ-জাঁতে (পিএসজি) এখন পুনরায় নেইমারের সতীর্থ মেসি।

তবে জাতীয় দলের হয়ে সোমবার মধ্যরাতে (ভারতীয় সময় অনুযায়ী) বিশ্বকাপের যোগ্যতাপর্বের ম্যাচে আবারও মুখোমুখি হবে ব্রাজিল ও আর্জেন্তিনা। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে কোপা হারের বদলা নিতে নিঃসন্দেহে মুখিয়ে থাকবে সেলেসাও ব্রিগেড। পাশপাশি দুই লাতিন আমেরিকার ফুটবল মহাতারকা, মেসি-নেইমারের ব্যক্তিগত মহারণের দিকেও চোখ থাকবে গোটা ফুটবল বিশ্বের। তবে ম্যাচে আদপেও দুই জনের একজনকেও খেলতে দেখা যাবে কি না, সেই নিয়ে রয়েছে ঘোরতর সংশয়। 

কোপা আমেরিকার পর সদ্যই গত সপ্তাহে পিএসজির হয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলেছেন মেসি ও নেইমার দুইজনেই। এ মাসের বিশ্বকাপ যোগ্যতাপর্বের প্রথম ম্যাচে দুই মহাতারকাই মাঠে নেমেছেন। তবে লাতিন আমেরিকার দুই শক্তিধর দেশের মহারণের আগে মেসি ভুগছেন চোট সমস্যায়, তো নেইমারের ম্যাচ ফিটনেস নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। চিলির বিরুদ্ধে ব্রাজিল জিতলেও নেইমার ওজন বাড়া নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। যদিও তা সরাসরি নাকচ করে ব্রাজিল ফরোয়ার্ড তাঁর অত্যাধিক বড় জার্সিকেই দায়ী করেছেন।

অপরদিকে, মেসি ভেনেজুয়েলার বিরুদ্ধে খেললেও প্রতিপক্ষের কড়া ট্যাকেলের সামনে ফিটনেসের অভাবে তাঁকে একটু অপ্রস্তুতই দেখিয়েছে। উপরন্তু, ব্রাজিলে দলে অ্যালিসন, এডারসন, রবার্তো ফির্মিনোর মতো প্রিমিয়র লিগ তারকারা নেই। দক্ষিণ আমেরিকার একাধিক দেশকে ব্রিটিশ সরকার লাল তালিকাভুক্ত করায় তাঁদের ফুটবলারদের ছাড়তে রাজি হয়নি ইংল্যান্ডের ক্লাবগুলি। তাই নিঃসন্দেহে ব্রাজিল-আর্জেন্তিনা ম্যাচে চিরাচরিত প্রথা অনুযায়ী ঝাঁঝ থাকলেও, একাধিক প্রথম দলের ফুটবলের না থাকায়, তা স্বাভাবিকের তুলনায় একটু কমই থাকার সম্ভাবনা। 

প্রসঙ্গত, ব্রাজিল এখনও অবধি যোগ্যতাপর্বের সাতটি ম্যাচের সবক'টিতেই জিতে দক্ষিণ আমেরিকা বিভাগের শীর্ষে। অপরাজিত থাকলেও চারটি জয় ও তিনটি ড্রয়ের সুবাদে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে আলবিসেলেস্তে। অবশেষে মেসি ও নেইমার মাঠে নামেন কি না, এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

বন্ধ করুন