বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শেষ দিন আসন্ন, ইস্টবেঙ্গল কি আদৌ আইএসএল খেলতে পারবে?
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শেষ দিন আসন্ন, ইস্টবেঙ্গল কি আদৌ আইএসএল খেলতে পারবে?

  •  ক্লাব লাইনেন্সিংয়ের শেষ দিন এগিয়ে এসেছে। কী হবে ইস্টবেঙ্গলের? আদৌ কি তারা এই বছর কোনও টুর্নামেন্ট খেলতে পারবে? 

শুভব্রত মুখার্জি : চুক্তি জট ইস্টবেঙ্গলে কাটার এই মুহূর্তে কোনও লক্ষণ নেই। দীর্ঘদিন ধরে ক্লাব কর্তা এবং বিনিয়োগকারীদের মতবিরোধ চলছে। বিভিন্ন সময়ে তা মেটানোর চেষ্টা হলেও এখনও পর্যন্ত সমাধানসূত্র অধরা। এমন আবহে দাঁড়িয়ে ইনভেস্টরের তরফ থেকে কার্যত স্পষ্ট বার্তা দিয়ে দেওয়া হল ক্লাব ম্যানেজমেন্টকে। যাতে তাদের কড়া অবস্থান স্পষ্ট। ক্লাবের তরফে ইনভেস্টরের শর্ত না মানা পর্যন্ত চূড়ান্ত চুক্তিপত্র ক্লাবে পৌছানোর কথা থাকলেও তা এসে পৌছাল না ভারতের স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালেও।

ফলে আসন্ন ইস্টবেঙ্গল আদৌ ভারতের প্রিমিয়ার ফুটবল টুর্নামেন্ট আইএসএল খেলবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই গেল। চূড়ান্ত চুক্তিপত্র ক্লাব কর্তাদের হাতে না পৌঁছানোর ফলে লগ্নিকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্টের কড়া অবস্থান স্পষ্ট হয়ে গেল। ইস্টবেঙ্গলের লগ্নিকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্টের তরফে এর আগে অপরিবর্তিত চূড়ান্ত চুক্তিপত্রই পাঠানো হয়েছিল ক্লাবকে । কিন্তু সেই চুক্তিপত্রে থাকা কয়েকটি শর্ত শিথিল করার আবেদন জানানো হয়েছিল ক্লাবের তরফ থেকে। সেই আবেদনে সাড়াও দিয়ে শ্রী সিমেন্টের তরফে চূড়ান্ত চুক্তিপত্র পাঠানোর কথা থাকলেও তা এখন পর্যন্ত আসেনি। ফলে স্নায়ুচাপ বেড়েছে কর্তাদের। জানা যাচ্ছে চূড়ান্ত চুক্তির ক্ষেত্রে অন্তরায় দুটি পয়েন্ট। যা কোনও ভাবেই মানতে রাজি নয় ক্লাব। আর যা না মানলে কোনভাবেই চুক্তি করতে রাজি নয় ইনভেস্টর।

শ্রী সিমেন্টের কর্ণধার হরিমোহন বাঙুর অবশ্য স্পষ্ট করে জানিয়েছেন যে গত পাঁচদিন আগেই যে চুক্তিপত্র পাঠানো হয়েছিল সেটাই চূড়ান্ত চুক্তিপত্র হিসেবে গন্য হবে । চুক্তিপত্রে নতুনকরে আর বদল সম্ভবপর নয়। আবার মড়ার উপর খাঁড়ার ঘায়ের মতন আগামী ১৬ অগাস্ট ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শেষ দিন। ফলে তার আগে ঝামেলা না মিটলে ইস্টবেঙ্গল ফুটবল দলের ভবিষ্যৎ যে বিশ বাও জলে তা বলাই বাহুল্য।

বন্ধ করুন