বাড়ি > ময়দান > KKR: সৌরভকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত মোটেও কঠিন ছিল না, যুক্তি দিলেন নাইট CEO
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি- গেটি ইমেজেস।
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি- গেটি ইমেজেস।

KKR: সৌরভকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত মোটেও কঠিন ছিল না, যুক্তি দিলেন নাইট CEO

  • ২০১১ সালের আইপিএল নিলামে সৌরভকে দলে রাখেনি কলকাতা নাইট রাইডার্স।

‘সৌরভকে দলে না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া আমার কাছে খুব একটা কঠিন ছিল না। তবে বুঝতে পেরেছিলাম যে, ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের পক্ষে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া অত্যন্ত কঠিন ছিল।’ স্বীকার করলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের চিফ এক্সিকিউটিভ বেঙ্কি মাইসোর।

২০০৮ সালে আইকন প্লেয়ার হিসেবে কেকেআরে যোগ দেন সৌরভ। ২০০৯ সালে তাঁকে সরিয়ে ক্যাপ্টেন করা হয় ব্রেন্ডন ম্যাকালামকে। যদিও পরের বছর পুনরায় নেতৃত্বে ফেরানো হয় সৌরভকে। ২০১০ সালে লিগ টেবিলের প্রথম চারে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হলে ২০১১ সালে সৌরভকে আর দলে রাখেনি নাইট রাইডার্স।

স্বাভাবিকভাবেই ঘরের ছেলেকে দলে না রাখায় উত্তাল হয়েছিল বাংলার ক্রিকেটমহল। সৌরভকে রিটেন না করা প্রসঙ্গে বেঙ্কি মাইসোর মুখ খোলেন আসন্ন আইপিএলের আগে। মাইসোর ২০১০-এর আইপিএলের পরে কেকেআরের সঙ্গে যুক্ত হন। সেদিক থেকে তিনি দায়িত্ব নিয়েই প্রথম কাজটা করেন সৌরভকে সরিয়ে দেওয়ার। 

যদিও তিনি স্পষ্ট জানালেন যে, তাঁর হাতে ক্ষমতা দেওয়া হলেও সৌরভকে দলে না রাখতে চাওয়ার সিদ্ধান্ত তাঁর একার ছিল না। তাঁকে বলা হয়েছিল এমন সিদ্ধান্ত নিতে এবং যেহেতু তিনি সবে মাত্র বাইরে থেকে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন, তাই তাঁর পক্ষে এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নেওয়া তুলনায় সহজ ছিল।

ইউটিউবে আরকে শো অনুষ্ঠানে নাইট সিইও বলেন, ‘বিষয়টাকে আমি দু’ভাগে ভাগ করতে চাই। ব্যক্তিগতভাবে আমার কাছে এটা (সৌরভকে দলে না রাখা) একেবারেই কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল না। কারণ, আমি দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলাম না। যদি আমি দলের সঙ্গে তিন বছর, দু'বছর বা অন্তত এক বছরও যুক্ত থাকতাম, তবে আমার পক্ষে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন হতো।'

বেঙ্কি আরও বলেন, ‘বিষয়টা এরকম ছিল যে, কেউ একজন বাইরে থেকে এসে দুম করে এমন একটা সিদ্ধান্ত নিয়ে বসল। ঠিক যেমনটা আমি করেছিলাম। আমি যথার্থই বহিরাগত ছিলাম। পরে বুঝেছি যে, ফ্র্যাঞ্চাইজির ক্ষেত্রে, বিশেষ করে মালিকদের পক্ষে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন ছিল। এটা এমন একটা সিদ্ধান্ত, যেটা আমাকে প্রস্তাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।’

শেষে বেঙ্কি বলেন, ‘আমার একার পক্ষে কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলা সম্ভব ছিল না। আমার প্রস্তাবে পূর্ণ সমর্থন ছিল শাহরুখ, জয়, জুহির। আসলে এটা ফ্র্যাঞ্চাইজি বোর্ডের সিদ্ধান্ত ছিল।’

বন্ধ করুন