বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারতীয় টেনিসে এক যুগের অবসান, প্রয়াত হলেন নরেশ কুমার
নরেশ কুমার।

ভারতীয় টেনিসে এক যুগের অবসান, প্রয়াত হলেন নরেশ কুমার

  • ১৯২৮ সালে পাকিস্তানের লাহোরে জন্ম নরেশ কুমারের। তখন লাহোর ভারতেরই অংশ ছিল। ডেভিস কাপে প্রথম প্রচারের আলোয় আসেন। ১৯৫২ সালে ভারতের ডেভিস কাপের দলে প্রথম সুযোগ পান। টানা আট বছর দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। ভারতের অধিনায়কও ছিলেন।

যেন ভারতীয় টেনিসের একটি যুগের অবসান হল। প্রয়াত হলেন কিংবদন্তি টেনিস প্লেয়ার নরেশ কুমার। দীর্ঘ দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন ভারতের ডেভিস কাপ দলের এই প্রাক্তন অধিনায়ক। বুধবার প্রয়াত হন ৯৩ বছরের তারকা। রেখে গেলেন স্ত্রী তথা চিত্রশিল্পী সুনীতা কুমারকে।

১৯২৮ সালে পাকিস্তানের লাহোরে জন্ম নরেশ কুমারের। তখন লাহোর ভারতেরই অংশ ছিল। ডেভিস কাপে প্রথম প্রচারের আলোয় আসেন। ১৯৫২ সালে ভারতের ডেভিস কাপের দলে প্রথম সুযোগ পান। টানা আট বছর দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। ভারতের অধিনায়কও ছিলেন।

আরও পড়ুন: US Open-এ ১৯-এর জাগরণ, রুডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন আলকারাজ, হলেন কনিষ্ঠতম এক নম্বর

উইম্বলডনেও অংশ নিয়েছিলেন নরেশ কুমার। ১৯৫৩, ১৯৫৫ এবং ১৯৫৮ সালে অল ইংল্যান্ড ক্লাবে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠেন। ১৯৫২ এবং ১৯৫৩ সালে পর পর দু’বছর আইরিশ চ্যাম্পিয়নশিপ জেতেন। ১৯৫২ সালে ওয়েলস চ্যাম্পিয়নশিপ জেতেন। এ ছাড়াও জিতেছেন ইংল্যান্ডের এসেক্স চ্যাম্পিয়নশিপ (১৯৫৭), সুইৎজারল্যান্ডের ওয়েঙ্গেন ওপেন (১৯৫৮)।

আরও পড়ুন: স্ট্রেট সেটে জাবেউরকে উড়িয়ে US Open-এর নতুন রানি ইগা

লিয়েন্ডার পেজের উত্থানের পেছনে নরেশ কুমারের বড় অবদান রয়েছে। তাঁর টেনিস জীবন নরেশ কুমারই তৈরি করে দিয়েছিলেন। লিয়েন্ডারকে প্রথমে বিদেশে পাঠান তিনিই। তাঁর হাতএর হাত ধরেই প্রথম ভারতীয় দলে সুযোগ পান লিয়েন্ডার। কলকাতায় এলেই ছুটে যেতেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে।

দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ থাকলেও তাঁকে মাঝে মধ্যে সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখা যেত নরেশ কুমারকে। সাউথ ক্লাবেও যেতেন সুদৃশ্য চেহারার নরেশ। ২০২০ সালে শেষ টেনিস কোচ হিসেবে দ্রোণাচার্য পানও কিংবদন্তি প্লেয়ার। তাঁর প্রয়াণে টেনিস মহলে শোকের ছায়া। ভারতীয় ক্রীড়ামহলের জন্যও এটি শোকের দিন।

বন্ধ করুন