বাংলা নিউজ > ময়দান > হেলমেটে বল লাগার পরেই আক্রমের বাউন্সারে ছক্কা হাঁকিয়ে জবাব দেন সচিন, শারজায় দুই কিংবদন্তির দ্বৈরথের গল্প শোনালেন প্রসাদ
সচিন তেন্ডুলকর ও ওয়াসিম আক্রম। ছবি- গেটি।
সচিন তেন্ডুলকর ও ওয়াসিম আক্রম। ছবি- গেটি।

হেলমেটে বল লাগার পরেই আক্রমের বাউন্সারে ছক্কা হাঁকিয়ে জবাব দেন সচিন, শারজায় দুই কিংবদন্তির দ্বৈরথের গল্প শোনালেন প্রসাদ

  • ব্যাট করার সময় কোনও কিছুই সচিনের মনোসংযোগে চিড় ধরাতে পারত না, জানালেন ভেঙ্কটেশ।

কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা মুখে জবাব দেন না। বরং তাঁরা ব্যাট-বলকে কথা বলান নিজেদের হয়ে। সচিন তেন্ডুলকরকে নিয়ে এমনই এক ঘটনার কথা সামনে আনলেন ভেঙ্কটেশ প্রসাদ।

দ্য গ্রেড ক্রিকেট পডকাস্টে টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন পেসার জানান, সচিন কোনও অবস্থাতেই মুখে বা শরীরি ভাষায় নিজের অভিব্যক্তি জানাতেন না। ব্যাট করার সময় কোনও কিছুই তাঁকে বিচলিত করতে পারত না। মনোসংযোগে চিড় ধরে, এমন কোনও কাজই সচিন করতেন না। আর তাই একবার ওয়াসিম আক্রমকে নির্বিকারভাবে মোক্ষম জবাব দিয়েছিলেন ব্যাট হাতে।

প্রসাদ শারজার একটি  ম্যাচের কথা উল্লেখ করেন, যেখানে আক্রম গতিশীল বাউন্সারে সচিনের হেলমেটে আঘাত করেছিলেন। পরের বলেও বাউন্সারে তেন্ডুলকরকে চমকে দিতে চেয়েছিলেন পাক তারকা। তবে সচিন সেই বলটিকে গ্যালারিতে ফেলে জবাব দিয়েছিলেন ওয়াসিমকে।

প্রসাদ বলেন, ‘একটা ঘটনার কথা বলতে চাই। শারজায় একবার ওয়াসিম আক্রমের বল সচিনের হেলমেটে আঘাত করেছিল। অত্যন্ত গতিশীল বল ছিল। বোধহয় ১৪৫ কিলোমিটারের আশেপাশে হবে। এটা আশা করেনি ও। হেলমেটে বল লাগার পর ও শুধু লেগ আম্পায়ারের দিকে একটু হেঁটে গিয়ে শরীরটাকে ঝাঁকিয়ে নিয়েছিল। হেলমেট খোলেওনি। শুধু গ্রিলটা ধরে সেটাকে ভালো করে পরে নিয়েছিল। এর বেশি কিচ্ছু করেনি।'

পরক্ষণে প্রসাদ আরও বলেন, ‘ও ফিরে এসে ব্যাটিং শুরু করে। পরের বলে আক্রম ঠিক একই গতিতে একইভাবে সচিনের হেলমেট লক্ষ্য করে বাউন্সার দেয়। নিখুঁত নিশানায় ছিল বল। সচিন সেটাতে ছক্কা হাঁকায়। তার পরেও ওর মধ্যে কোনও প্রতিক্রিয়া ছিল না।’

বন্ধ করুন