বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারতের প্রাক্তনীর ছেলে এ বার সুযোগ পেলেন ইংল্যান্ডের অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলে
হ্যারি সিং।

ভারতের প্রাক্তনীর ছেলে এ বার সুযোগ পেলেন ইংল্যান্ডের অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলে

  • আরপি সিং-এর ছেলে এবং মেয়ে দু'জনেই ইংল্যান্ডে বড় হয়েছেন এবং দু'জনেরই ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ তীব্র। ল্যাঙ্কাশায়ারের দ্বিতীয় দলের হয়ে ওপেনিং করেন আরপি সিং-এর ছেলে হ্যারি।। আরপি সিং-এর মেয়েও ল্যাঙ্কাশায়ারের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

আশির দশকে ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা প্রাক্তন সিমার আরপি সিং-এর ছেলে হ্যারি সিং ইংল্যান্ডের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে নির্বাচিত হয়েছেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের জন্য তাঁকে দলে নেওয়া হয়েছে। আরপি সিং উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা এবং ভারতের হয়ে কয়েকটি ওডিআই ম্যাচ খেলেছেন। তাঁর আন্তর্জাতিক কেরিয়ার খুব বেশি দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। আরপি সিং ইংল্যান্ডে চলে যান। সেখানে তিনি একটি কোচিং কোর্স করেন এবং ক্লাব ক্রিকেটে কোচ হিসেবে কাজ শুরু করেন।

আরপি সিং-এর ছেলে এবং মেয়ে দু'জনেই ইংল্যান্ডে বড় হয়েছেন এবং দু'জনেরই ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ তীব্র। ল্যাঙ্কাশায়ারের দ্বিতীয় দলের হয়ে ওপেনিং করেন আরপি সিং-এর ছেলে হ্যারি।। আরপি সিং-এর মেয়েও ল্যাঙ্কাশায়ারের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। কিন্তু পরে তিনি পড়াশোনায় মনোযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং তার পর ক্রিকেট ছেড়ে দেন।

আরও পড়ুন: একেবারে গায়ানার রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ, তার পর আমেরিকার ভিসা পেলেন রোহিতরা

হ্যারি অলরাউন্ডার

আরপি সিং-এর ছেলে অবশ্য ক্রিকেট চালিয়ে যাচ্ছেন। এবং ইংল্যান্ডর জাতীয় দলে তিনি সুযোগও পেয়ে গিয়েছেন। হ্যারি সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে, আরপি সিং ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেছেন যে, তাঁর ছেলে একজন ওপেনার, যিনি অফ-স্পিনও করতে পারেন। আরপির মতে, হ্যারি প্রথমে ফাস্ট বোলিংয়ে আগ্রহী ছিলেন, কিন্তু তার পর তিনি হ্যারিকে ব্যাটিংয়ে নজর দিতে বলেন। এমন পরিস্থিতিতে দ্রুত বল করা কঠিন বলে, অলরাউন্ডার হওয়ার জন্য তাঁকে স্পিন বোলিংয়ে মনোযোগ দিতে বলেন আরপি সিং।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলা আরপি নন

এই আরপি সিং সেই আরপি সিং নন, যিনি ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতা টিম ইন্ডিয়ার সদস্য ছিলেন। এই আরপি সিং আশির দশকে বাঁ-হাতি ফাস্ট বোলার ছিলেন। লখনউয়ের পেসার রুদ্র প্রতাপ সিনিয়র ভারতের হয়ে ১৯৮৬ সালে দু'টি ওয়ানডে আন্তর্জাতিক খেলেছিলেন। এরপর ৯০ এর দশকের শেষের দিকে ইংল্যান্ডে চলে যান।

আরও পড়ুন: পরের ম্যাচ কি রোহিত খেলতে পারবেন, বড় আপডেট দিল BCCI

আর আরপি সিং জুনিয়র ভারতের হয়ে ১৪টি টেস্ট ম্যাচ, ৫৮টি ওডিআই এবং ১০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। সামের মিল ছাড়াও আরও মিল রয়েছে দু'জের মধ্যে। দু'জন আরপি সিং-ই উত্তরপ্রদেশ থেকে এসেছেন এবং দু'জনেই বাঁ-হাতি ফাস্ট বোলার।

ইংল্যান্ডের যুব দলে এশিয়ার ক্রিকেটাররা

হ্যারি একা নন, এর আগে বহু ভারতীয় তথা দক্ষিণ এশিয়ার বংশোদ্ভূত ক্রিকেটাররা ইংল্যান্ডের যুব স্তরের হয়ে খেলেছেন। কিন্তু সিনিয়র পর্যায়ে উঠে আসার ক্ষেত্রে সংখ্যাটা খুবই কম। আর সেই চ্যালেঞ্জটির মুখোমুখি হতে হবে আরপি সিং-এর ছেলে হ্যারিকেও।

বন্ধ করুন