বাড়ি > ময়দান > চায়ের আড্ডায় মুশকিল আসান, IPL-এ ক্রিকেটার নিলামের ভাবনা মাথায় আসে গল্পের ছলে
আইপিএল নিলাম। ছবি- টুইটার।
আইপিএল নিলাম। ছবি- টুইটার।

চায়ের আড্ডায় মুশকিল আসান, IPL-এ ক্রিকেটার নিলামের ভাবনা মাথায় আসে গল্পের ছলে

  • ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলিতে কীভাবে ক্রিকেটার ভাগ করে দেওয়া হবে, তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিল BCCI।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ অত্যন্ত আকর্ষণীয় টুর্নামেন্ট হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে, এবিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে উদ্বোধনী মরশুমে টুর্নামেন্টের থেকেও চমকপ্রদ বিষয় ছিল আইপিএলের নিলাম।

মূল্যবান সামগ্রীর মতো ক্রিকেটার কেনা-বেচার আসরের কথা সহজে ভাবা সম্ভবও ছিল না। পরবর্তী সময়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ যদি বিশ্বের সেরা টি-২০ লিগের তকমা ছিনিয়ে নিয়ে থাকে, তবে আকর্ষণ বিন্দুমাত্র কমেনি আইপিএল নিলামের।

খেলার সময় সাধারণত ক্রিকেটপ্রেমীদের নজর থাকে টেলিভিশনের পর্দায়। আইপিএল নিলামে চোখ থাকে সব ক্রিকেটারদেরও। বিশেষ করে যাঁরা ড্রাফ্টে নাম দিয়েছেন, তাঁরা জানতে উৎসুক থাকেন, কোনও দল তাঁদের দলে নিল কিনা। নিলেও, কোন দল এবং কত দামে কিনল তাদের, এটা জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন ক্রিকেটাররা।

কিন্তু এই নিলামের ভাবনা বিসিসিআইয়ের মাথায় এল কীভাবে? রহস্যটার হদিশ দিলেন আইপিএলের প্রাক্তন সিওও সুন্দর রমন। গৌরব কাপুরের সঙ্গে আইপিএল নিয়ে আলোচনার সময় সুন্দর রমন জানান, যদি কেউ মনে করেন দীর্ঘ ভাবনা-চিন্তার পরে বসিসিআই ক্রিকেটারদের নিলামের পরিকল্পনা খুঁজে বার করে, তবে ভুল হবে। কারণ, নিছক চায়ের আড্ডায় হালকা চালে ভাসিয়ে দেওয়া একটা পরামর্শেই নিলামের ভাবনার উদয় হয়।

প্রাক্তন আইপিএল সিওও বলেন, 'একদিন সন্ধ্যার চায়ের আড্ডায় নিলামের ভাবনার উদয় হয়। আমরা তখন হাজার কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজি বিক্রি করে দিয়েছি। ম্যাচ কেন্দ্র নির্ধারণ হয়ে গিয়েছে। শুধু একটা বিষয়ই ভাবাচ্ছিল যে, ক্রিকেটারদের কীভাবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলিতে ভাগ করে দেওয়া হবে।'

সুন্দর রমন পরক্ষণেই বলেন, ‘মার্কি প্লেয়ার কারা কোন দলে খেলবে, সেটা স্থির হয়েছিল। সচিন তেন্ডুলকর মুম্বইয়ের হয়ে, বীরেন্দ্র সেহওয়াগ দিল্লির হয়ে, যুবরাজ পঞ্জাবের এবং সৌরভ কলকাতার হয়ে খেলবে বলে ঠিক হয়ে গিয়েছিল। তবে ধোনির কোনও দল ছিল না তখনও। খেলোয়াড় ভাগ করার সমস্যা নিয়ে যখন দুশ্চিন্তায় ছিলাম, তখন ঠিক মনে নেই কে, তবে একজন ফ্র্যাঞ্চইজি মালিক বলে, আমরা ক্রিকেটারদের নিলাম করছি না কেন? মিনিট দুয়েক ভাবার পর আমি বলি, ভালো পরামর্শ। কেনা-বেচা নিয়ে প্রচুর আগ্রহ তৈরি হবে। এভাবেই নিলামের ভাবনা বাস্তবায়িত হয়।'

বন্ধ করুন