বাড়ি > ময়দান > আউট ছিলেন না, তবু পাকিস্তানের জোরালো আবেদনের জন্যই মাঠ ছাড়তে হয়েছিল দ্রাবিড়কে
পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরছেন দ্রাবিড়। ছবি- টুইটার।
পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরছেন দ্রাবিড়। ছবি- টুইটার।

আউট ছিলেন না, তবু পাকিস্তানের জোরালো আবেদনের জন্যই মাঠ ছাড়তে হয়েছিল দ্রাবিড়কে

  • শারজায় দ্য ওয়ালকে ফেরানোর গল্প শোনালেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক।

ক্রিকেটকে যদি ভদ্রলোকের খেলা বলা হয়ে থাকে, তবে তা রাহুল দ্রাবিড়ের মতো ক্রিকেটারদের জন্য সন্দেহ নেই। ক্রিকেটের যথার্থ ভদ্রলোক খুঁজতে হলে দ্রাবিড়ের নাম প্রথম সারিতে উঠে আসবে নিশ্চিত। খেলার মাঠে কদাচিৎই মাথা গরম করতে দেখা গিয়েছে দ্য ওয়ালকে। এমনকি আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে মাঠ ছাড়তে হলেও কখনও সেভাবে মাঠে হতাশা প্রকাশ করতে দেখা যায়নি দ্রাবিড়কে।

কিংবদন্তি রাহুল দ্রাবিড় সম্পর্কে এমনই এক উপলব্ধির কথা জানালেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক রশিদ লতিফ। ১৯৯৬-এ শারজায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ম্যাচে আম্পায়ার ভুল আউট দিয়েছিলেন দ্রাবিড়কে। প্রাক্তন পাক লেগ-স্পিনার মুস্তাক আহমেদের জোরালো আবেদনে প্রভাবিত হয়েই আম্পায়ার দ্রাবিড়কে কট বিহাইন্ড দিয়েছিলেন। যদিও বল দ্রাবিড়ের ব্যাটে লাগেনি। মুস্তাকের সঙ্গে আবেদনে সুর মিলিয়েছিলেন উইকেটকিপার লতিফ-সহ গোটা দল।

দ্রাবিড় জানতেন বল তাঁর ব্যাট লাগেনি। তা সত্বেও তিনি মাঠ ছেড়ে গিয়েছিলেন। পরে ম্যাচের শেষে লতিফকে দ্রাবিড় জিজ্ঞাসা করেছিলেন, তিনি আউট ছিলেন কিনা? উত্তরে প্রাক্তন পাক অধিনায়ক জানিয়েছিলেন, দ্রাবিড় আউট ছিলেন না।

লতিফের কথায়, ‘ভারত শারজায় আমাদের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিল। সেই ম্যাচে দুর্ভাগ্যজনকভাবে দ্রাবিড়কে কট বিহাইন্ড দেওয়া হয়েছিল। মুস্তাক বল করেই আবেদন করতে শুরু করে। আমরাও তাতে গলা মেলাই। শেষমেশ রাহুলকে আউট দেওয়া হয়। ম্যাচের শেষে দ্রাবিড় আমার কাছে এসে জিজ্ঞাসা করে, 'আমি কি আউট ছিলাম?' উত্তরে আমি বলি, ‘না ভাই, মুস্তাক এমনই আবেদন করে বিরক্ত করে সব সময়।’

বন্ধ করুন