বাংলা নিউজ > ময়দান > Team India-তে কী উপেক্ষিত পন্ত? একটি ভাইরাল ভিডিয়োতে দেখে তেমনই দাবি ভক্তদের

Team India-তে কী উপেক্ষিত পন্ত? একটি ভাইরাল ভিডিয়োতে দেখে তেমনই দাবি ভক্তদের

পন্ত কি দলে নিজেকে উপেক্ষিত মনে করছেন?

যদিও এশিয়া কাপে কার্তিকের বদলে পন্তকেই খেলানো হয়েছিল। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক সিরিজে, টিম ম্যানেজমেন্ট কার্তিকের উপরই আস্থা রেখেছিল। এমন কী অজিদের বিরুদ্ধে সিরিজের পর কার্তিকের হাতে ট্রফি তুলে দেন রোহিত। অন্য দিকে পন্তকে দল থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন দেখাচ্ছিল।

ঋষভ পন্ত নাকি দীনেশ কার্তিক? ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের একাদশে দু'জনের মধ্যে কাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে, তা নিয়ে চূড়ান্ত দোটনা রয়ে গিয়েছে। টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক রোহিত শর্মাকেও এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে, তিনি নিজেও ব্য়াজার মুখে এর উত্তর দেন। সম্প্রতি টিম ইন্ডিয়ার উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে ঋষভ পন্তকে সমস্ত ফর্ম্যাটে প্রথম অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু ২০২২ আইপিএলে দীনেশ কার্তিক দুরন্ত ভাবে প্রত্য়াবর্তন করেন। এবং তিনি জাতীয় দলে ফিরে আসেন। আর অর পরেই বদলে যায় যাবতীয় সমীকরণ।

যদিও এশিয়া কাপে কার্তিকের বদলে পন্তকেই খেলানো হয়েছিল। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক সিরিজে, টিম ম্যানেজমেন্ট দীনেশ কার্তিকের উপরই তাদের আস্থা দেখিয়েছিল। এমন কী অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের পর দীনেশ কার্তিকের হাতে ট্রফি তুলে দেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

আরও পড়ুন: বড় বড় কোহলির কাটআউট, T20 WC-এ ভারত-পাক ম্যাচের জন্য সাজছে MCG

অন্য দিকে ঋষভ পন্তকে দল থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন দেখাচ্ছিল। একজন ভক্ত ঋষভ পন্তের অদেখা ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন এবং দাবি করেছেন যে, এই তারকা খেলোয়াড় টিম ইন্ডিয়ায় উপেক্ষিত হচ্ছেন।

পন্ত এবং কার্তিক দু'জনেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে রয়েছেন। রোহিত বলেছেন যে, তিনি চান এই খেলোয়াড়রা যেন সর্বোচ্চ গেম টাইম পান। যাতে ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে কার্তিক বা পন্তের কোনও ফাঁক না থাকে। এখন দেখার বিষয়, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজে এই দু'জনের মধ্যে কাকে প্রাধান্য দেওয়া হয় একাদশে।

আরও পড়ুন: এখনও T20 WC-এর মূল দলে ঢুকতে পারেন মহম্মদ শামি, জেনে নিন ICC-র নিয়ম

রোহিত দাবি করেছেন, ‘আমি চাই দুই কিপারই বিশ্বকাপের আগে বেশ কিছু ম্যাচ খেলুক। এশিয়া কাপে দুই কিপারকেই সব ম্যাচ খেলানোর পরিকল্পনা ছিল। তবে আমার মনে হয় দীনেশের মাঠে আরও কিছু সময় কাটানো দরকার। ও সেই অর্থে ব্যাট করার সুযোগ পায়নি। মাত্র ৩টে বল মনে হয় খেলেছে। সেটা কোনও ভাবেই যথেষ্ট নয়।’ প্রসঙ্গত, কার্তিক সিরিজের তিন ম্যাচে মাঠে নেমে মোটে ৭টি বল খেলার সুযোগ পান। অন্যদিকে পন্ত একটি ম্যাচে মাঠে নামেন বটে, তবে ব্যাট করার সুযোগ পাননি।

বন্ধ করুন