বাংলা নিউজ > ময়দান > ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের কোচ হতে আগ্রহী ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানো কোচ
গ্যারি কার্স্টেন।
গ্যারি কার্স্টেন।

ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের কোচ হতে আগ্রহী ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানো কোচ

  • ২০২১ সালে টেস্টে খুবই বাজে পারফরম্যান্স করেছে ইংল্যান্ড। ১৫টি টেস্ট খেলে মাত্র ৪টিতে জিতেছে। ৯টি টেস্টে হেরে গিয়েছে ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা। এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে সবচেয়ে বেশি টেস্ট হারের লজ্জার রেকর্ডও গড়েছে ইংল্যান্ড। এ রকম রেকর্ড বিশ্ব ক্রিকেট শুধুমাত্র বাংলাদেশেরই আছে।

ইংল্যান্ড টিমকে কোচিং করাতে আগ্রহী ভারতকে ওডিআই বিশ্বকাপ জেতানো কোচ গ্যারি কার্স্টেন। তবে তিনি শুধুমাত্র ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের দায়িত্ব নিতে আগ্রহী। সংক্ষিপ্ত ওভারের ক্রিকেটের নয়।

২০১৯ সালেও ইংল্যান্ডের প্রধান কোচ হওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে আবেদন করেছিলেন গ্যারি কার্স্টেন। ট্রেভর বেলিসের জায়গায় কোচ হতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) ব্রিটিশ টিমের কোচিংয়ের দায়িত্ব তুলে দেয় ক্রিস সিলভারউডের হাতে ।

২০২১ সালে টেস্টে খুবই বাজে পারফরম্যান্স করেছে ইংল্যান্ড। ১৫টি টেস্ট খেলে মাত্র ৪টিতে জিতেছে। ৯টি টেস্টে হেরে গিয়েছে ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা। এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে সবচেয়ে বেশি টেস্ট হারের লজ্জার রেকর্ডও গড়েছে ইংল্যান্ড। এ রকম রেকর্ড বিশ্ব ক্রিকেট শুধুমাত্র বাংলাদেশেরই আছে।

স্বাভাবিক ভাবেই ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর বর্তমান কোচ ক্রিস সিলভারউডকে নিয়েই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। তাঁর চাকরি না থাকার সম্ভাবনা প্রবল। এই পরিস্থিতিতেই ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের দায়িত্ব নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন গ্যারি কার্স্টেন।

আই-নিউজে কার্স্টেন দাবি করেছেন, ‘এটি (ইংল্যান্ডের কোচ) সব সময় আমার বিবেচনায় থাকে, কারণ এটি অনেক সম্মানের। এখনও পর্যন্তআমি দু’বা র (২০১৫ এবং ২০১৯) ইংল্যান্ডের কোচ হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছি এবং সব সময়েই আমি স্পষ্ট করে দিয়েছি যে সব ফরম্যাটের দায়িত্ব নিতে আমি রাজি নই। যখন ক্রিকেট বোর্ডগুলো আলাদা আলাদা ফরম্যাটের কোচিং নিয়ে ভাবে, তখন আমি আগ্রহ দেখাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি টেস্ট দলের সাথে কাজ করা বা ওয়ানডে দলের সাথে কাজ করা, সেটা দারুণ বিষয়। আমার মতে, ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দল একেবারে সংগঠিত, এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা ওয়ানডে দল তারা। তবে টেস্ট দল এখনও কিছুটা ধুঁকছে। আর এই মুর্হূতে টেস্ট দলের দায়িত্ব নিতে পারলে দারুণ বিষয় হবে বলে আমি মনে করি।’

কোচ হিসেবে কার্স্টেনের বড় সাফল্য ২০১১ সালে ভারতকে ওডিআই বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন করা। সে বার ২৮ বছর পর বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল ভারত। এর পর ২০১১-২০১৩ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় দলের দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর অধীনে ২০১২ সালে আইসিসি-র টেস্টের ক্রমতালিকায় তালিকায় শীর্ষে উঠেছিলো দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০১৩ সালের অগস্টে জাতীয় দলের কোচিং দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর, বিশ্বের বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি দলে কোচিং করাচ্ছিলেন কার্স্টেন। আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, বিবিএলে হোবার্ট হারিকেন্সের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

বন্ধ করুন