বাংলা নিউজ > ময়দান > কলকাতায় এসে ইলিশ-চিংড়ি থেকে দই-মিষ্টির প্রেমে পড়লেন সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া
কলকাতায় নীরজ চোপড়া
কলকাতায় নীরজ চোপড়া

কলকাতায় এসে ইলিশ-চিংড়ি থেকে দই-মিষ্টির প্রেমে পড়লেন সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া

  • মঙ্গলবার বিকেলে কলকাতায় পা রাখেন সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া। টোকিও অলিম্পিক্সে পদক জয়ের পরে এটাই ছিল তাঁর প্রথম কলকাতা সফর।

মঙ্গলবার বিকেলে কলকাতায় পা রাখেন সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া। টোকিও অলিম্পিক্সে পদক জয়ের পরে এটাই ছিল তাঁর প্রথম কলকাতা সফর। আর প্রথমবারেই বাঙালিয়ানায় মুড়ে ফেলা হল নীরজকে। অলিম্পিক্সে সোনা জয়ের পর প্রথমবার কলকাতায় এসে তিলোত্তমার প্রেমে মজে গেলেন নীরাজ। যে ছেল খাওয়া দাওয়া বা নিজের ডায়েট নিয়ে দারুণ সতর্ক, তার পাতে তুলে দেওয়া হল ইলিশ-চিংড়ি, দই-মিষ্টি। তবে ষোলোআনা বাঙালিয়ানা খাওয়া দেখে নীরজও ডায়েট ভুলে গেলেন। বাইপাসের ধারে সল্টলেক স্টেডিয়ামের উল্টোদিকের হোটেলে উঠেছেন নীরজ। সেখানেই মঙ্গলবার রাতে নীরজ চোপড়ার জন্য বাঙালি খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।

শুরুতে লুচি, আলুর দম, ডাল। তারপর ভাত, চিংড়ি মাছের মালাইকারি, ইলিশ, মটন কষা। শেষপাতে জলভরা সন্দেশ, নলেন গুড়ের আইসক্রিম, মিষ্টি দই। এ ভাবেই নীরজের পাত সাজিয়ে দেওয়া হল। কলকাতায় এসে এক্কেবারে বাঙালি হয়ে গেলেন সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া। শুধু খেলেনই না খাওয়ার আগে রীতিমতো কোনটার কি নাম সেটাও জেনে নিলেন। বাঙালি খাবার খেয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত গোল্ডেন বয়।

দেশের প্রথম ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড অ্যাথলিট হিসেবে ৮৭.৫৮ মিটার জ্যাভেলিন থ্রো করে টোকিও অলিম্পিক্সে প্রথম ভারতীয় হিসেবে সোনা জিতেছেন। বুধবার শহরে নীরজের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান রয়েছে। জানা গিয়েছে, এই অনুষ্ঠানে নীরজের মুখ থেকে তাঁরই জীবনের অজানা কাহিনী শুনতে পাওয়া যাবে। কি করে জ্যাভলিন থ্রো তে আসলেন তিনি? সাফল্যের পিছনে রহস্য কি ? পরিবারের অবদান কতটা? হরিয়ানার কৃষক পরিবার থেকে উঠে আসার গল্প? আগামী দিনের লক্ষ্য? এরকম একাধিক প্রশ্নের উত্তর দেবেন নীরজ।

বন্ধ করুন