বাংলা নিউজ > ময়দান > ১ক্যালেন্ডার বর্ষে আন্তর্জাতিক টি-২০তে সর্বাধিক ছয় হজমের লজ্জার নজির হার্ষালের

১ক্যালেন্ডার বর্ষে আন্তর্জাতিক টি-২০তে সর্বাধিক ছয় হজমের লজ্জার নজির হার্ষালের

ভারতের অনুশীলনে হার্ষাল প্যাটেল (ছবি-এএনআই) (ANI)

২০২১ সালে এক ক্যালেন্ডার বর্ষে ৩২টি ছয় হজম করে এই লজ্জার নজির গড়েছিলেন জাম্পা। ২০২২ সাল এখন পর্যন্ত ৩৩ টি ছয় হজম করে ফেলেছেন হার্ষাল প্যাটেল। এখনও ঘরের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ এমনকি টি-২০ বিশ্বকাপও বাকি রয়েছে। ফলে এই সংখ্যাটা যে বাড়তে চলেছে তা সহজেই বলা যায়।

শুভব্রত মুখার্জি: সামনেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে টি-২০ বিশ্বকাপ। তার আগে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সারতে ব্যস্ত সব দল। ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করে দিয়েছে প্রত্যেকে। সেই অনুযায়ী দল সাজিয়ে ঘরের মাটিতেই সিরিজ খেলছে ভারত। সেখানে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তৃতীয় টি-২০ তে এক লজ্জার নজির গড়ে ফেললেন ভারতীয় বিশ্বকাপ দলের সদস্য হার্ষাল প্যাটেল। এক ক্যালেন্ডার বর্ষে আন্তর্জাতিক টি-২০তে সর্বাধিক ছয় হজমের নজির গড়লেন তিনি। পিছনে ফেললেন অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার অ্যাডাম জাম্পাকে।

আরও পড়ুন… হার্দিক নিজের কাজে বিশ্বসেরা, ওকে দেখেই প্ল্যান করেছিলাম আমরা, বললেন ম্যাচের সেরা গ্রিন

২০২১ সালে এক ক্যালেন্ডার বর্ষে ৩২টি ছয় হজম করে এই লজ্জার নজির গড়েছিলেন জাম্পা। ২০২২ সাল এখন পর্যন্ত ৩৩ টি ছয় হজম করে ফেলেছেন হার্ষাল প্যাটেল। এখনও ঘরের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ এমনকি টি-২০ বিশ্বকাপও বাকি রয়েছে। ফলে এই সংখ্যাটা যে বাড়তে চলেছে তা সহজেই বলা যায়। এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছেন অ্যান্ড্রু টাই। তিনি ২০১৮ সালে ২৭ টি ছয় হজম করেছিলেন। বলা বাহুল্য ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে এই পরিসংখ্যান যথেষ্ট চিন্তার। তাদের কপালে ভাঁজ পড়তে বাধ্য। অস্ট্রেলিয়াতে উইকেট সাধারণভাবে গতিময় হয়। সেখানে পেসাররাই ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দেন। সেখানে দাঁড়িয়ে হার্ষালের এই ফর্ম ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে ভাবাতে বাধ্য।

আরও পড়ুন… IND vs AUS: চার নম্বরে সবচেয়ে সফল ‘SKY’! এবার যুবরাজকে পিছনে ফেললেন সূর্যকুমার

রবিবার হায়দরাবাদের ম্যাচে টসে জিতে রোহিত শর্মা বল করার সিদ্ধান্ত নেন। ব্যাট হাতে এদিন আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করেন ক্যামেরন গ্রিন। তিনি ২১ বলে ৫২ রান করেন। অপর আক্রমণাত্মক ব্যাটার টিম ডেভিড মাত্র ২৭ বল খেলে করেন ৫৪ রান। এছাড়া জস ইঙ্গলিশ ২২ বলে ২৪ এবং ড্যানিয়েল স্যামস ২০ বলে ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। ফলে ২০ ওভারে অজিরা ৭ উইকেটে ১৮৭ রান করতে সমর্থ হয়। হার্ষাল প্যাটেল এদিন ২ ওভার বল করে ১৮ রান দিয়ে নেন একটি উইকেট। টিম ডেভিডকে প্যাভিলিয়নে ফেরান তিনি। রান তাড়া করতে নেমে বিরাট কোহলির ৬৩ এবং সূর্যকুমার যাদবের ৬৯ রানে ভর করে সহজেই জয়ের দিকে এগিয়ে যায় ভারত। ১৬ বলে ২৫ রান করে অপরাজিত থেকে সেই জয় নিশ্চিত করেন হার্দিক পান্ডিয়া।

বন্ধ করুন