বাংলা নিউজ > ময়দান > মন্ত্রণালয়ের নিষেধ এড়িয়ে অর্জুন পুরস্কার ডোপিংয়ে অভিযুক্ত প্যারা অ্যাথলিটকে!
অর্জুন পুরস্কার।

মন্ত্রণালয়ের নিষেধ এড়িয়ে অর্জুন পুরস্কার ডোপিংয়ে অভিযুক্ত প্যারা অ্যাথলিটকে!

  • অর্জুন পুরস্কারের জন্য বেছে নেওয়া ক্রীড়াবিদদের তালিকায় জায়গা হয়েছে অতীতে ডোপিংয়ে অভিযুক্ত প্যারা অ্যাথলিটের।

শুভব্রত মুখার্জি

কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা আগে থেকেই ছিল। তা থাকার পরেও ডোপিংয়ে এক অভিযুক্ত অ্যাথলিটকে কীকরে কেন্দ্রীয় সরকার প্রদত্ত পুরস্কারে সম্মানিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল তা নিয়ে বিতর্কও দানা বেঁধেছে। সদ্য ঘোষিত অর্জুন পুরস্কারপ্রাপ্ত ক্রীড়াবিদদের তালিকায় জায়গা হয়েছে এই ডোপিংয়ে অভিযুক্ত প্যারা অ্যাথলিটের।

এই বছরের অর্জুন পুরস্কারের যে তালিকা নির্বাচন করা হয়েছে তার নির্বাচকরা কি অ্যাথলিটের অতীতে ডোপিংয়ের বিষয়টি জানতেন না! নাকি বিষয়টি তাঁরা অবহেলা করেছেন! না এর পিছনে রয়েছে অন্য কোন অভিঃসন্ধি ! তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। প্রশ্ন উঠছে নির্বাচনের সময় হলের মধ্যে থাকা মন্ত্রণালয়ের এবং সাইয়ের কর্তারা তাহলে কি করছিলেন? ২০২১ সালের ৬ই অগস্ট মন্ত্রণালয়ের তরফে যে অর্ডার দেওয়া হয়েছিল তা কীভাবে তাদের নজর এড়ালো! যেখানে অতীতে ডোপিংয়ে অভিযুক্ত কোন ক্রীড়াবিদকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত না করার কথা স্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে।

উল্লেখ্য অর্জুন পুরস্কারের ১২ জনের কমিটি যার পৌরহিত্য করছেন অবসরপ্রাপ্ত সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি মুকুন্দকুম শর্মা, তারা প্যারা অ্যাথলিট শরদ কুমারের নাম মনোনয়ন করেন। প্রসঙ্গত অগস্ট মাসের ৩১ তারিখ টোকিওতে প্যারালিম্পিক্সে টি-৬৩ হাইজাম্প বিভাগে ভারতের হয়ে ব্রোঞ্জ পদক জিততে সমর্থ হন শরদ কুমার।

উল্লেখ্য আন্তর্জাতিক প্যারালিম্পিক্স কমিটির ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী ২০১২ সালে মালয়েশিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়নশিপে ডোপিংয়ের কারণে ধরা পড়েছিলেন শরদ। তার মূত্রে নিষিদ্ধ স্ট্যানোজোলোলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছিল। এই বছরেই ১৯ মে ভারতীয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয়ের তরফে খেলরত্ন এবং অর্জুন পুরস্কারের জন্য নামের তালিকা চাওয়া হয়। সেখানে প্রথমে বলা হয়েছিল অতীতে ডোপিংয়ের অভিযোগ থাকলেও নাম পাঠানো যাবে। পরবর্তীতে সেই সার্কুলারে পরিবর্তন করে জানানো ডোপিংয়ে অভিযুক্তদের নাম বিবেচিত হবে না। তারপরেও এই ঘটনা ঘটায় বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

বন্ধ করুন