ঋদ্ধিমান সাহা। ছবি- এপি।
ঋদ্ধিমান সাহা। ছবি- এপি।

ধোনি টেস্টে জায়গা না ছাড়লে মাঠে নামার সুযোগ পেতেন না, অকপট ঋদ্ধিমান

  • ঋষভ পন্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও ভালো বন্ধু, জানালেন বাংলার উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান।

কিছুদিন আগেই ফিভার এফএমের #100Hours100Stars-এর শোয়ে পার্থিব প্যাটেল জানিয়েছেন যে, ধোনির প্রজন্মের উইকেটকিপার হওয়ায় তাঁর আক্ষেপ নেই। কারণ, ধোনির আগেই তিনি জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছিলেন এবং তিনি জায়গা ধরে রাখতে পারেননি বলেই ধোনি উঠে আসেন। পরে ধোনির জন্যই আর সেভাবে জাতীয় দলে ফেরা সম্ভব হয়নি পার্থিবের।

ধোনি থাকলে ভারতীয় দলে যে আর কোনও উইকেটকিপারের জায়গা হওয়া সম্ভব নয়, এটা বোঝেন ঋদ্ধিমান সাহাও। বিকল্প ছিল না বলেই হতাশায় ভেঙে পড়েননি বাংলার উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। তিনি চেষ্টা করেছেন ধোনির সঙ্গে স্কোয়াডে থেকে তাঁর থেকে যত বেশি সম্ভব শেখার।

স্পোর্টস তক-এর সাক্ষাৎকারে ঋদ্ধি জানালেন, তাঁকে ধোনির পরিবর্ত ভাবা যথার্থ নয়। বরং তাঁকে ধোনির উত্তরসূরী বলা যায়। কারণ, তাঁর জন্য জাতীয় দলে জায়গা হারাননি ধোনি। তিনি তখনই খেলার সুযোগ পেয়েছেন, যখন ধোনি টেস্ট খেলা ছেড়ে দিয়েছেন। ঋদ্ধি এটাও স্বীকার করে নেন যে, তিনি জানতেন, ধোনি থাকলে তাঁর মাঠে নামার সুযোগ পাওয়া সম্ভব নয়।

ঋদ্ধির কথায়, ‘আমি এমএস ধোনির পরিবর্ত নই। আমি তখনই খেলার সুযোগ পেয়েছি, যখন ও টেস্ট খেলা ছেড়ে দেয়। তার আগে ওর নেতৃত্বে আমার টেস্ট অভিষেক হয়েছিল লক্ষ্মণ আঙুলে চোট পেয়েছিল বলেই। নাগপুরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভিভিএসের ব্যাকআপ হিসেবে রোহিতকে ডেকে নেওয়া হয়েছিল। রোহিত বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিল। ম্যাচের দিন অনুশীলেনর সময় রোহিতের সঙ্গে আমার ধাক্কা লাগে। দু’জনেই গোড়ালিতে চোট পাই। তবে ওর চোট ছিল বেশি। ধোনি যখন টস করতে যাচ্ছে, তখন আমি বদ্রিনাথকে বল ছুঁড়ে ব্যাটিং প্র্যাকটিস দিচ্ছিলাম। যাওয়ার ধোনি বলে যায়, সাহা তুই খেলছিস। নাহলে কার্স্টেন আমাকে জানিয়ে দিয়েছিলেন ধোনি খেলছে, তাই আমার সুযোগ হবে না।'

ঋদ্ধি পরক্ষণেই বলেন, ‘আমি জানতাম, ধোনি খেললে কখনই আমার সুযোগ হবে না। কেউই মাঠের বাইরে বসে থাকতে চায় না। তবে ধোনি দলে থাকলে বাইরে বসে থাকা ছাড়া অন্য কোনও বিকল্পও থাকে না। সুতরাং, আমি ওর থেকে শেখার চেষ্টা করতাম। ওর কিপিং, ওর ব্যাটিং, চকিতে স্টাম্পিং, সবকিছুই শেখার মতো বিষয়। পরে যখনই সুযোগ পেয়েছি, পারফর্ম করার সময় সেই শিক্ষাগুলোই কাজে লাগিয়েছি।’

ঋদ্ধি এটাও জানান যে, এই মুহূর্তে ঋষভ পন্ত তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও দু'জনের সম্পর্ক মোটেও খারাপ নয়। বরং দু'জনে খুবই ভালো বন্ধু।

বন্ধ করুন