বাংলা নিউজ > ময়দান > 'পরমাণু বোমার শক্তি ছিল, কোথাও বিস্ফোরণ ঘটাতেই হতো', নিজের আগুনে গতির রহস্য জানালেন আখতার
বল হাতে শোয়েব আখতার (ছবি: গেটি)

'পরমাণু বোমার শক্তি ছিল, কোথাও বিস্ফোরণ ঘটাতেই হতো', নিজের আগুনে গতির রহস্য জানালেন আখতার

  • ফাস্ট বোলার হতে চাননি, বক্তা শোয়েব আখতার। শুনতে অবাক লাগলেও শেষ পর্যন্ত নিজের আগুনে পেসারে পরিণত হওয়ার কারণ জানালেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস।

কখনই চাননি একজন ফাস্ট বোলার হবেন। তবে তাঁর ভিতরের শক্তিই তাঁকে বাইশগজে আগুন ঝরাতে উদ্বুদ্ধ করে। বিশ্বের সব থেকে গতিশীল পেসারের তকমা পাওয়া শোয়েব আখতার নিজের আগুনে গতির রহস্য সম্পর্কে এমনই মন্তব্য করেন দ্য ব্রেট লি পডকাস্টে।

সম্প্রতি লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেটে এশিয়া লায়ন্সের হয়ে মাঠে নামেন শোয়েব আখতার। একই টুর্নামেন্টে ওয়ার্ল্ড জায়ান্টসের হয়ে খেলতে নামেন ব্রেট লি। সর্বকালের অন্যতম দুই গতিশীল পেসার নিজেদের মধ্যে আলোচনায় ফিরে যান অতীতের দিনগুলিতে।

শোয়েব বলেন, ‘কোনও দিনই ফাস্ট বোলার হতে চাইনি। তবে আমার বরাবর মনে হয়েছে যে, আমি কিছু করে দেখাতে পারি। কারণ, আমার মধ্যে যেমন শক্তি রয়েছে, কারও মধ্যে নেই। আমার কাছে পরমাণু বোমার শক্তি রয়েছে, যেটার কোথাও বিস্ফোরণ ঘটানো দরকার।’

আখতার আরও বলেন, ‘আমি ছেলেবেলা থেকেই বন্ধুদের বলতাম, আমার মধ্যে বিশেষ কিছু আছে। তবে শুরু থেকেই আমাকে শুনতে হয়েছে যে, তুমি পারবে না। আমি যে পরিবেশে বাস করতাম, সেটা এমনই ছিল। তবে আমি নিজেকে বলতাম, আমাকে এই বেড়া টপকাতেই হবে।'

১০০ মাইলের গণ্ডি টপকানো প্রসঙ্গে আখতার বলেন, ‘১৯৯৯ বিশ্বকাপের সময় আমার মনে হয় যে, ১০০ মাইল টপকানোর এটাই সঠিক সময়। আমি সেটা করে দেখাই, তবে লোকেদের জন্য নয়। আমি এটা নিজের তাগিদেই করে দেখাই। কারণ আমি গতি ভালোবাসি। আমি রীতিমতো উড়ছিলাম। সেটাই আমার জীবনের একমাত্র যন্ত্রণামুক্ত বছর ছিল।’

বন্ধ করুন