বাংলা নিউজ > ময়দান > লাল বলের ক্রিকেটে কি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে আদৌ খেলা হবে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের?
গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (AP)

লাল বলের ক্রিকেটে কি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে আদৌ খেলা হবে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের?

  • সাদা জার্সির ক্রিকেটে টেস্ট খেলার সুযোগ পাবেন না বলে নিজেই মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডার। উল্লেখ্য এমনিতে হার্ড হিটার হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বে পরিচিত গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দলের হয়েও বেশ মারকুটে মেজাজে খেলতে দেখা যায় তাকে।

শুভব্রত মুখার্জি: দীর্ঘ পাচ বছর পরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ফের অস্ট্রেলিয়া দলের হয়ে খেলার সুযোগ এসেছিল হার্ড হিটিং অজি ব্যাটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সামনে। তবে দুই টেস্টের সেই সিরিজে অজি স্কোয়াডে থাকলেও প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি তিনি। এবার তাই নিজের টেস্ট কেরিয়ার নিয়ে নিজেই সংশয় প্রকাশ করলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আদৌ তিনি আর জাতীয় দলের হয়ে টেস্টে খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে নিশ্চিত নন।

প্রসঙ্গত সাদা জার্সির ক্রিকেটে টেস্ট খেলার সুযোগ পাবেন না বলে নিজেই মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডার। উল্লেখ্য এমনিতে হার্ড হিটার হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বে পরিচিত গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দলের হয়েও বেশ মারকুটে মেজাজে খেলতে দেখা যায় তাকে। পাশাপাশি রাইট আর্ম অফ স্পিনার হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নেন তিনি। ফিল্ডার হিসেবেও তিনি বেশ তুখোড়।

আরও পড়ুন: BBL: আমিরশাহিতে টি ২০ লিগ নয়, বিপুল টাকা দিয়ে ওয়ার্নারকে বিগ ব্যাশ খেলতে রাজি করাল সিডনি থান্ডার্স

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দু’টি টেস্টেই খেলার সুযোগ না পাওয়ায় হতাশ তিনি। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে শেষ টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন জাতীয় দলের হয়ে। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ম্যাক্সওয়েল বলেছেন, ‘খেলার সুযোগ পাব না জেনে বিধ্বস্ত হয়ে পড়ি আমি। অথচ একবারও মনে হয়নি ভুল করে আমাকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছিল টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে। ভীষণভাবে টেস্ট ম্যাচ খেলতে চেয়েছিলাম জাতীয় দলের হয়ে। ফের টেস্ট খেলার সুযোগ পেলে ভালো লাগবে।’’

তিনি আরও জানিয়েছেন ‘আমি এখন টেস্ট খেলার জন্য প্রস্তুত। নতুন কোচেদের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেলে ভালো লাগবে। নতুন নতুন পরিকল্পনা, কৌশল শিখতে পারব। ভালো করে স্পিনটা খেলতে শিখতে চাই। আমার বোলিং কী ভাবে আরও কার্যকর করা যায়, তাও শিখতে চাই। ট্রাভিস হেড ফিটনেস পরীক্ষায় পাশ করাতে আমি খুশিই হয়েছিলাম। কারণ, আহত কারও পরিবর্তে খেলা আমি পছন্দ করিনা। দুর্ভাগ্যজনক হলেও দুটো টেস্টেই আমার সঙ্গে একই ঘটনা ঘটেছে। মনে হয় উইকেট আর একটু খারাপ হলে আমাকে খেলানোর কথা ভাবা হত।’

বন্ধ করুন