বাংলা নিউজ > ময়দান > সচিনকে অন্য বিষয়ে মন্তব্য করার আগে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ প্রাক্তন BCCI সভাপতির
সচিন তেন্ডুলকর। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
সচিন তেন্ডুলকর। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

সচিনকে অন্য বিষয়ে মন্তব্য করার আগে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ প্রাক্তন BCCI সভাপতির

  • কৃষক আন্দোলন নিয়ে টুইটের জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্রুপ সহ্য করতে হয় তেন্ডুলকরকে।

শুভব্রত মুখার্জি

সম্প্রতি 'ক্রিকেট ঈশ্বর' সচিন তেন্ডুলকারের একটা টুইট ঘিরে ক্ষোভ জমে নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে। দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা কৃষক আন্দোলনকে ঘিরে দেশজুড়ে যেন এক ঠান্ডা চোরাস্রোত বইছে। সেই স্রোতে কিছুটা সুনামির মতন কাজ করে পপ তারকা রিহানার একটি ছোট টুইট। তারপর রিহানার সমর্থনে এগিয়ে আসেন গেটা থুনবার্গের মতন বিশ্বজোড়া খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তিত্বরা।

এরপরে সচিন সহ ভারতীয় ক্রীড়াজগত এবং বলিউডের একাধিক কৃতি ব্যক্তিত্বরা এগিয়ে এসে মুখ খোলেন। সচিন তাঁর অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করে ভারতের সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান। এই টুইটের পরেই সচিনের উদ্দেশ্যে ধেয়ে আসে একের পর এক আক্রমণ। গঞ্জনা, অপমান সব সহ্য করতে হয় কিংবদন্তিকে। তাঁকে ট্রোল করা হয়। এমনকি কেরলে যুব কংগ্রেস সচিনের কাট আউটের উপর কালো তেল পর্যন্ত ঢেলে দিতে কুন্ঠাবোধ করেনি।

এরপরে এক অনুষ্ঠানে এই স্পর্শকাতর বিষয়ে মুখ খুললেন প্রাক্তন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট শারদ পাওয়ার। প্রসঙ্গত তিনি আবার রাজনৈতিক দল এনসিপির প্রতিষ্ঠাতা সদস্যও বটে। তিনি সচিনকে ক্রিকেট ছাড়া অন্য বিষয়ে মন্তব্য করার আগে আরও বেশি সতর্ক হয়ে মন্তব্য করার পরামর্শ দেন। তিনি জানান এই টুইটের কারনে সচিনের মতন কিংবদন্তি ক্রিকেটারকে যেভাবে কদর্য আক্রমনের মুখে পড়তে হয়েছে তা তাকে ব্যথিত করেছে।

বন্ধ করুন