বাংলা নিউজ > ময়দান > গাব্বা টেস্টে হারের সাক্ষী থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন অজি আম্পায়ার
ব্রুস অক্সেনফোর্ড। ছবি- আইসিসি।
ব্রুস অক্সেনফোর্ড। ছবি- আইসিসি।

গাব্বা টেস্টে হারের সাক্ষী থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন অজি আম্পায়ার

  • ২০০৬ সালে ব্রিসবেনেই প্রথমবার আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন ব্রুস অক্সেনফোর্ড।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন আইসিসির এলিট প্যানেল আম্পায়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার তরফে ৬০ বছর বয়সী আম্পায়ারের সন্যাস নেওয়ার কথা জানানো হয়। আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিলেও ব্রুস অবশ্য ঘরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারিং চালিয়ে যাবেন।

১৫ বছরের দীর্ঘ আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে অক্সেনফোর্ড মোট ৬৩টি টেস্ট, ১০৬টি ওয়ান ডে ও ৩১টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ পরিচালনা করেছেন। শেষবার তিনি আম্পায়ার হিসেবে আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন ভারত-অস্ট্রেলিয়া ব্রিসবেন টেস্টে। ২০০৬ সালে এই ব্রিসবেনেই অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা টি-২০ ম্যাচে আন্তর্জাতিক আম্পায়ার হিসেবে অভিষেক হয় অক্সেনফোর্ডের। সেদিক থেকে গাব্বায় ভারতের কাছে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট হারের সাক্ষী থেকেই দীর্ঘ আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে দাঁড়ি টানলেন তিনি।

২০০৭ সালে আইসিসির ইন্টারন্যাশনাল প্যানেলে ঢুকে পড়েন অক্সেনফোর্ড। পরে ২০১২ সালে প্রথমবার আইসিসির এলিট প্যানেল আম্পায়ারের স্বীকৃতি পান তিনি। সেই থেকে এলিট প্যানেলের নিয়মিত সদস্য ছিলেন ব্রুস।

অস্ট্রেলিয়ার যে ৬ জন আম্পায়ার ৫০টি'র বেশি টেস্ট ম্যাচ পরিচালনা করেছেন, তাঁদের মধ্যে একজন হলেন অক্সেনফোর্ড। তিনি ছাড়া অজি আম্পায়ার হিসেবে এমন কৃতিত্ব রয়েছে ডারিল হার্পার, ড্যারেল হেয়ার, সাইমন টাফেল, রড টাকার ও স্টিভ ডেভিসের। সার্বিকভাবে মাত্র ১৬ জন আম্পায়ার ৫০টির বেশি টেস্ট পরিচালনা করেছেন। ব্রুস ছিলেন তাঁদের মধ্যে অন্যতম।

ব্রুস অক্সেনফোর্ড তিনটি আইসিসি বিশ্বকাপ ও ৩টি টি-২০ বিশ্বকাপ ছাড়াও দু'টি মহিলা টি-২০ বিশ্বকাপেও আম্পায়ারিং করেছেন।

বন্ধ করুন