বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > মাথামোটাদের মুখ বন্ধ রাখা উচিত, ‘ফিক্সিং’ নিয়ে পাক অভিনেত্রীকে জবাব তারকার
পাকিস্তানি অভিনেত্রী (বাঁদিকে, ছবি সৌজন্য টুইটার @SeharShinwari), আফগানিস্তান ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
পাকিস্তানি অভিনেত্রী (বাঁদিকে, ছবি সৌজন্য টুইটার @SeharShinwari), আফগানিস্তান ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

মাথামোটাদের মুখ বন্ধ রাখা উচিত, ‘ফিক্সিং’ নিয়ে পাক অভিনেত্রীকে জবাব তারকার

  • অতীতে পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছে।

ভারত-আফগানিস্তান ম্যাচ ঘিরে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ তুলেছিলেন পাকিস্তানি অভিনেত্রী। সেই অভিযোগের পালটা দিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার আকাশ চোপড়া। কড়া ভাষায় বললেন, মাথামোটাদের মুখ বন্ধ রাখা উচিত।

বুধবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আফগানিস্তানকে ৬৬ রানে হারিয়ে দেয় ভারত। সেই ম্যাচে জয়ের ফলে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পয়েন্ট এসেছে ভারতের ঝুলিতে। সেইসঙ্গে সেমিফাইনালে ওঠার সামান্য আশাও জিইয়ে রাখতে পেরেছেন বিরাট কোহলিরা। যদিও পাকিস্তানি অভিনেত্রী শেহর শিনওয়ারি অভিযোগ করেন, ভারত-আফগানিস্তান ম্যাচে ফিক্সিং হয়েছে। তিনি বলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) ভালোভাবে ম্যাচটা কিনে নিয়েছে।’

সেই ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নিয়ে রীতিমতো জলঘোলা শুরু হয়। মূলত নেট দুনিয়ায় সেই মন্তব্যে নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। শেহরের অভিযোগে পাত্তা দেননি পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটাররাও। তারইমধ্যে পালটা জবাব দেন আকাশ। তিনি বলেন, ‘মাথামোটারা যদি মুখ বন্ধ করে থাকতেন!’ যদিও আকাশের সেই টুইটে থেমে থাকেননি শেহর। তিনি দাবি, ‘আকাশ চোপড়া মোটেও যোগ্য জবাব দেননি। বরং অযৌক্তিক জবাব দিয়েছেন। কারণ প্রত্যেকে দেখেছেন যে কীভাবে আফগান খেলোয়াড়রা ইচ্ছাকৃতভাবে চার ও ছয় দিচ্ছিলেন। যাতে নিউজিল্যান্ডের থেকে বেশি নেট রানরেট করতে পারে ভারত।’

যদিও নেট রানরেট প্রসঙ্গে বুধবার একেবারে উলটো কথাই বলেন আফগানিস্তানের রশিদ খান। ভারতের বিরুদ্ধে ৬৬ রানে হারের পর সাংবাদিক বৈঠকে রশিদকে নেট রানরেট নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। বিশেষত শুরুতেই উইকেট হারানোর পর আফগানিস্তান হারের ব্যবধান কমানোর চেষ্টা করেছিল কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন করেন এক সাংবাদিক। সেই প্রশ্নের জবাবে আফগানিস্তানের তারকা স্পিনার বলেন, ‘অবশ্যই। ওই বিষয়টা আমাদের মাথায় ছিল। শুরুতেই কয়েকটি উইকেট পরপর হারানোর পর দল হিসেবে আমরা যতটা বেশি সম্ভব, ততটা রান করার চেষ্টা করেছিলাম। নেট রানরেটের দিকে তাকিয়ে সেটা করা হয়েছে। সেটা নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে আমাদের শেষ ম্যাচে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। সেটা অন্তিম পর্যায়ে বড় পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। বার্তাটা স্পষ্ট ছিল, স্মার্ট ক্রিকেট খেল, ২০ ওভার খেল এবং যত বেশি রান করা যায়, তত কর। এটাই ছিল খেলোয়াড়দের মানসিকতা।’

বন্ধ করুন