বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ২০ বছর ধরে কোচিং করাচ্ছে, খোলনলচে বদলে দিল ভারতীয় বোলিংয়ের, গুরু অরুণকে কুর্নিশ রবির
ভরত অরুণের সঙ্গে রবি শাস্ত্রী
ভরত অরুণের সঙ্গে রবি শাস্ত্রী

২০ বছর ধরে কোচিং করাচ্ছে, খোলনলচে বদলে দিল ভারতীয় বোলিংয়ের, গুরু অরুণকে কুর্নিশ রবির

  • ভারতীয় ক্রিকেট দলের সঙ্গে ‘গুরু’ শব্দটা বেশ জড়িয়ে রয়েছে। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অধিনায়কত্বের সময়কালে গ্রেগ চ্যাপেলকে গুরু বলে ডাকা হত। বিরাট কোহলিদের হেড কোচ হিসাবে নিজের সময়কাল শেষ করলেন রবি শাস্ত্রী।  শেষের দিনে নিজের দলের গুরুর কথা জানালেন রবি শাস্ত্রী।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের সঙ্গে ‘গুরু’ শব্দটা বেশ জড়িয়ে রয়েছে। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অধিনায়কত্বের সময়কালে গ্রেগ চ্যাপেলকে গুরু বলে ডাকা হত। অনেকেই তাকে গুরু গ্রেগ বলে ডাকতেন। সেই ‘গুরু’ শব্দটা আবার ফিরে এসেছে টিম ইন্ডিয়ায়। বিরাট কোহলিদের হেড কোচ হিসাবে নিজের সময়কাল শেষ করলেন রবি শাস্ত্রী।  শেষের দিনে নিজের দলের গুরুর কথা জানালেন রবি শাস্ত্রী। দলের বোলিং কোচ ভরত অরুণের প্রশংসা করেন তিনি এবং বলেন ভরত অরুণই হলেন তাদের দলের ‘গুরু’। 

রবি শাস্ত্রী বলেন, ‘আমি তাকে (অরুণ) ওই বিভাগের গুরু বলে ডাকি। তিনি এবং শ্রীধর একটি অসামান্য কাজ করেছেন। ভরত অরুণ প্রায় ২০ বছর ধরে কোচিং-এ আছেন। তিনি অনেক কোচকে কোচিং করিয়েছেন তারপর এই কাজ করতে এসেছেন। এটাই প্রধান কারণ যে আমি তাকে বেছে নিয়েছি। আমি কিছু সময়ের জন্য এনসিএ-তে চেয়ারম্যান ছিলাম, যখন একটি সিস্টেম স্থাপন করা হয়েছিল। সেই সময় শ্রীধর এবং অরুণ সেখানে ডেভ হোয়াটমোরের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।’

শাস্ত্রী আরও বলেন যে অরুণের সর্বশ্রেষ্ঠ দক্ষতা হল তিনি দারুণ যোগাযোগ করেন। যে কারণে তিনি দলের বোলিংকে একটি পেশাদার পোশাকে ঢালাই করতে সক্ষম হয়েছেন। ৫৯ বছর বয়সী বলেছেন, ‘তার সবচেয়ে বড় প্লাস পয়েন্ট হল বোলারদের সঙ্গে যোগাযোগ করার ক্ষমতা। তিনি এটির জন্য কারও কৌশল পরিবর্তন করবেন না, যদি না তিনি ব্যাখ্যা করেন যে কেন তার এটি করা উচিত। তিনি ইউনিটে পেশাদারিত্ব স্থাপন করেছিলেন। তিনি তাদের জানান যে আমরা বোলিং টিমকে চাই, ব্যক্তি বোলিং নয়।’

বন্ধ করুন