বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ‘২০ মিনিট দেরি হলে মরেও যেতে পারতাম’, সেমির আগে কী ঘটেছিল, নিজেই জানালেন রিজওয়ান
মহম্মদ রিজওয়ান।
মহম্মদ রিজওয়ান।

‘২০ মিনিট দেরি হলে মরেও যেতে পারতাম’, সেমির আগে কী ঘটেছিল, নিজেই জানালেন রিজওয়ান

  • অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে নামার ২৪ ঘণ্টা আগেও আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন পাকিস্তানের ওপেনার মহম্মদ রিজওয়ান। জানা গিয়েছে, রিজওয়ানের এমন অবস্থা হয়েছিল যে, তাঁর শ্বাসনালীর পাইপ ফেটে গিয়ে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারত। 

শুভব্রত মুখার্জি: সদ্য শেষ হওয়া টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হেরেই ছিটকে যেতে হয়েছিল বাবর আজমের পাকিস্তান দলকে। তবে সেই ম্যাচে পাকিস্তানের ওপেনার মহম্মদ রিজওয়ানের দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই ক্রিকেটের ইতিহাসের পাতায় ইতিমধ্যেই জায়গা করে নিয়েছে। কি অবস্থার মধ্যে দাঁড়িয়ে রিজওয়ান সেদিন সেমিফাইনালে খেলেছিলেন কারও অজানা নয়। সেমিফাইনালের দু'দিন আগেই তাঁকে আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়েছিল। এবার সেই ঘটনা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে রিজওয়ানের কথায় ধরা পড়ল এক শিহরণ জাগানো বিবরণ। পাকিস্তানের উইকেট রক্ষক ব্যাটার মহম্মদ রিজওয়ান জানিয়ে দিলেন আর মাত্র ২০ মিনিট দেরি হলেই সেদিন ঘটে যেতে পারত দুর্ঘটনা।

তাঁর শ্বাসনালীর পাইপ ফেটে গিয়ে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারত। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে নামার ২৪ ঘণ্টা আগেও আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন পাকিস্তানের ওপেনার মহম্মদ রিজওয়ান। প্রসঙ্গত তার বুকে মারাত্মক রকমের সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়েই রিজওয়ানের দাবি হাসপাতালে নিয়ে যেতে দেরি হলে, তাঁর মৃত্যুও হতে পারত।

এক সাক্ষাৎকারে রিজওয়ান বলেন ‘আমাকে যখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তখন শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ ছিল আমার। চিকিৎসকরা আমাকে দেখার পরে বলেন, আমার শ্বাসনালী বন্ধ হয়ে গেছে। প্রথমে বলা হয়েছিল পরের দিন সকালে আমাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে । পরে জানানো হয় সকালে নয়, সন্ধ্যায় ছাড়া হবে। চিকিৎসকেরা সেই সময় আমাকে জানান, হাসপাতালে নিয়ে যেতে ২০ মিনিট দেরি হলে আমার শ্বাসনালী ও ফুসফুস কাজ করা বন্ধ করে দিতে পারত। আমার শ্বাসনালীর পাইপ দুটি ফেটে যাওয়ারও সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। এতে আমার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারত।'

বন্ধ করুন